শিমুলিয়ায় যাত্রী কয়েকগুণ বেশি, ভাড়াও

ঈদের টানা আটদিন বন্ধের পর আজ (১৭ আগস্ট) শিমুলিয়া ঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীর উপচে পড়া ভিড় দেখা যায়। বাসের জন্য যাত্রীদের দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয়েছে। এ সময় দীর্ঘক্ষণ লাইনে থেকে চরম দুর্ভোগে পড়েন তারা। আর সেই সুযোগে বাসের ভাড়া দ্বিগুণ থেকে চারগুণ পর্যন্ত আদায় করা হয়েছে।
Shimulia ghat
১৭ আগস্ট ২০১৯, মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়ায় বাসের অপেক্ষায় যাত্রীদের দীর্ঘ লাইন। ছবি: স্টার

ঈদের টানা আটদিন বন্ধের পর আজ (১৭ আগস্ট) শিমুলিয়া ঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীর উপচে পড়া ভিড় দেখা যায়। বাসের জন্য যাত্রীদের দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয়েছে। এ সময় দীর্ঘক্ষণ লাইনে থেকে চরম দুর্ভোগে পড়েন তারা। আর সেই সুযোগে বাসের ভাড়া দ্বিগুণ থেকে চারগুণ পর্যন্ত আদায় করা হয়েছে।

আজ বিকালে শিমুলিয়া ঘাটে গিয়ে দেখা যায়- দক্ষিণবঙ্গের যাত্রীরা লঞ্চ, সিবোট ও ফেরিতে করে পদ্মা পাড়ি দিয়ে বাসের জন্য ছুটছেন শিমুলিয়া ঘাটের বাসস্ট্যন্ডে। ঢাকা থেকে যখনই কোনো বাস আসছে, অমনি হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন যাত্রীরা। কার আগে কে উঠবেন বাসে।

দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে যাত্রীদের চরম দুর্ভোগের শিকার হতে হয়েছে। বিশেষ করে মহিলা, বৃদ্ধ ও শিশু যাত্রীদের ভোগান্তির যেনো শেষ ছিলো না। এ সময় বাসমালিকদের অনেকে তাদের বাসের ভাড়া কয়েকগুণ বাড়িয়ে দেন। শিমুলিয়া-ঢাকার ৭০ টাকার ভাড়া ১০০ থেকে ২০০ টাকা পর্যন্ত আদায় করা হয়েছে যাত্রীদের কাছ থেকে।

সাতক্ষীরার সোলায়মান হোসেন শিমুলিয়া হয়ে ঢাকায় তার কর্মস্থলে ফিরছিলেন। তিনি বলেন, “বাসে ভাড়া অভিরিক্ত দিচ্ছি তাতে যতোটা না কষ্ট পেয়েছি, তার চেয়ে বড় কষ্ট হচ্ছে দাঁড়িয়ে গিয়েও একই ভাড়া দিচ্ছে হচ্ছে। এখানে কি দেখার কেউ নেই?”

এদিকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগে গেলো কয়েকদিন ধরে লৌহজং উপজেলা প্রশাসন বেশ কয়েকটি পরিবহনকে জরিমানা করে এবং যাত্রীদের থেকে নেওয়া অতিরিক্ত ভাড়া ফেরতও দেওয়া হয়। তারপরও কিছুতেই যেনো কমছে না ভাড়া নিয়ে পরিবহন সেক্টরের নৈরাজ্য।

শিমুলিয়া ঘাটে ধারণ ক্ষমতার চেয়ে ৪-৫ গুণ বেশি যাত্রী নিয়ে লঞ্চগুলোকে ঘাটে ভিড়তে দেখা যায়। নির্ধারিত ৩৩ টাকা লঞ্চ ভাড়ার পরিবর্তে ৪০ টাকা থেকে ৫০ টাকা আদায় করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন যাত্রীরা।

এ নৌরুটে চারটি রোরো ফেরিসহ মোট ১৮টি ফেরি, ৮৮টি লঞ্চ এবং প্রায় ২৫০টি স্পিডবোট দিয়ে যাত্রীদের পারাপার করা হচ্ছে। ফেরিগুলো শিমুলিয়া ঘাটে এসে যানবাহন নামিয়ে দিয়ে খালি চালিয়ে কাঁঠালবাড়ি ঘাটে যাচ্ছে। আবার কাঁঠালবাড়ি থেকে গাড়ি বোঝাই করে আসছে শিমুলিয়া ঘাটে।

মাওয়া ট্রাফিক জোনের টিআই মো. হিলাল উদ্দিন জানিয়েছেন, “শিমুলিয়ায় অতিরিক্ত বাস ভাড়ার বিষয়ে আমরা যতোবার অভিযোগ পেয়েছি ততোবার আমরা ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে জরিমানা করেছি। আবার আমরাও খেয়াল রাখার চেষ্টা করছি।”

“গত ১৫ আগস্ট অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের দায়ে ডিএম পরিবহনের দুটি বাসকে ১৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এবং আদায় করা অতিরিক্ত ভাড়া ফেরত দেওয়া হয়” বলেও জানান তিনি।

Comments

The Daily Star  | English
Dhaka Airport Third Terminal: 3rd terminal to open partially in October

HSIA’s terminal-3 to open in Oct

The much anticipated third terminal of the Dhaka airport is likely to be fully ready for use in October, enhancing the passenger and cargo handling capacity.

6h ago