মাশরাফি, সাকিব দুজনেই রংপুরে খেলবে: রংপুর রাইডার্স

আইকন হিসেবে সাকিব আল হাসানকে ঝাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনে দলে ভিড়িয়েছিল রংপুর রাইডার্স। কিন্তু দিন কয়েক না যেতেই বিসিবি জানায়, নতুন করে কাউকে দলে নেওয়ারই এখতিয়ার নেই কোন দলের। নতুন আসরের আগে সব ফ্রেঞ্চাইজিকে আগে চুক্তি নবায়ন করতে হবে, পরে ঠিক হবে রিটেশন বা দলে ভেড়ানোর নিয়ম কানুন। এই সিদ্ধান্তের পর তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখালেও দলটির ভাব এখন নমনীয়। তবে আগামী আসরে সাকিবের সঙ্গে মাশরাফি বিন মর্তুজাও তাদের দলেই খেলবেন বলে জানালেন রাইডার্স সিইও ইশতিয়াক সাদেক।
Mashrafee Mortaza-Shakib Al Hasan
মাশরাফি ও সাকিব। ফাইল ছবি: ফিরোজ আহমেদ

আইকন হিসেবে সাকিব আল হাসানকে ঝাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনে দলে ভিড়িয়েছিল রংপুর রাইডার্স। কিন্তু দিন কয়েক না যেতেই বিসিবি জানায়, নতুন করে কাউকে দলে নেওয়ারই এখতিয়ার নেই কোন দলের। নতুন আসরের আগে সব ফ্রেঞ্চাইজিকে আগে চুক্তি নবায়ন করতে হবে, পরে ঠিক হবে রিটেশন বা দলে ভেড়ানোর নিয়ম কানুন। এই সিদ্ধান্তের পর তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখালেও দলটির ভাব এখন নমনীয়। তবে আগামী আসরে সাকিবের সঙ্গে মাশরাফি বিন মর্তুজাও তাদের দলেই খেলবেন বলে জানালেন রাইডার্স সিইও ইশতিয়াক সাদেক।

মঙ্গলবার বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সঙ্গে দেখা করে পরের আসরের ইস্যু নিয়ে কথা বলতে মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে আসেন ইশতিয়াক। এদিন নতুন করে আরও চার আসরের জন্য বিপিএলে তাদের দলের থাকা নিশ্চিত করে যান তিনি।

সব ফ্রেঞ্চাইজির সঙ্গে এভাবে চুক্তি নবায়নের পর নিয়মে কিছু পরিবর্তন আনবে বিপিএল কর্তৃপক্ষ।  নিয়ম কেমন হওয়া উচিত তা নিয়েও কিছু পরামর্শ দিয়ে যাওয়ার কথা জানায় রংপুর,  ‘আমার মনে হয় এখানে সাকিব কোনো বড় ইস্যু না। যেহেতু ফ্র্যাঞ্চাইজি পেমেন্ট শেষ হয়ে গিয়েছিল, সে কারণে তারা জানতে চাইল আমরা কী পরবর্তী চার বছরের জন্য রাজী কিনা। নিঃসন্দেহে বসুন্ধরা গ্রুপ রংপুর রাইডার্স হিসেবে থাকতে চায়। এরপরও উনারা কিছু নতুন নিয়ম কানুন বদল করবে।  নতুন নিয়ম কানুন কীভাবে করতে চায় কীভাবে করলে ভাল হবে জানতে চাইল। আমরা মোটামুটি সব ব্যাপারেই একমতই হয়েছি। আমরা কিছু পরামর্শ দিয়েছি বলেছি লিখিতভাবে জানিয়ে দিব।’

সেই পরামর্শের মধ্য স্থানীয় একজন সরাসরি সাইনিংয়ের সুযোগ চেয়েছে তারা, যেটা হলে সাকিবকে দলে পেতে আর কোন বাধা থাকে না তাদের,  ‘আমাদের সাজেশন ছিল যেহেতু একটা দল দুই বছর ধরে একভাবে খেলে আসছে, পরবর্তী চার বছর খেলার জন্য দলের একটা কোড দরকার। দলের কিছু খেলোয়াড় রিটেইন করার ব্যাপার আছে। সে রিটেনশন চেয়েছি আমরা। গত বছরের নিয়ম অনুসারে কিছু ফ্রেস সাইনিং ছিল বোর্ড সেটা নিতে চাচ্ছে। আইকন খেলোয়াড় বলে কিছু নাকি থাকবে না। একজন স্থানীয় খেলোয়াড়ের সরাসরি সাইনিং,  যেটা আমরা বাধ্যতামূলকভাবে চেয়েছি। বোর্ড বলছে বিদেশি সরাসরি সাইনিং দুই-তিনজন করবে। আমরা বললাম যেহেতু বিদেশী করবে কেন স্থানীয় লোকাল সাইনিং নয়।’

সাকিবকে আইকন হিসেবে দলে নিলেও নতুন আসরে আইকন প্রথাই উঠিয়ে দেওয়ার কথা শোনা যাচ্ছে। স্থানীয় ক্রিকেটারদের সরাসরি সাইনিং করানো যাবে কিনা তা নিয়েও থাকছে ধোঁয়াশা। সাকিবকে যদি তারা দলে পায় তাহলেও মাশরাফিকেও রাখবে কিনা, বা রাখতে পারবে কিনা এই ধরণের প্রশ্নও অস্পষ্ট। কিন্তু ইশতিয়াক নিশ্চিত করলেন আসছে আসরের তাদের দলে খেলবেন সাকিব, মাশরাফি দুজনেই,  ‘মাশরাফি তো আমাদের ঘরের ছেলে। আমি যতটুকু জানি মাশরাফি যদি অবসর নেয় তাহলে সে আইকন থাকবে না। আমাদের চিন্তা ছিল আমাদের রিটেনশনে মাশরাফিও পড়ে যায়। মাশরাফি সাকিব দুজনেই রংপুরে খেলবে।’

ইশতিয়াক জানালেন টি-টোয়েন্টি থেকে আগেই অবসর নেওয়ায় প্রথা থাকলেও আইকন থাকার ইচ্ছে নেই মাশরাফি নিজেরও, ‘মাশরাফি গত বছর থেকেই আইকন না থাকতে চেয়েছিল কারণ সে টি-টুয়েন্টিতে নেই। বিপিএল যেহেতু টি-টুয়েন্টি এথিক্যালি বা লজিক্যালি মাশরাফিকে আইকন রাখা যায় না। আইকন হবে নতুন কেউ, খুব প্রমিসিং। বোর্ড বলছে আমরা নিজেরাও জানি আমাদের দেশে সাতজন প্রপার আইকন খুঁজে বের করাই মুশকিল। সে হিসেবে মাশরাফিরও ইচ্ছা নাই আইকন থাকার।’

মাশরাফি আইকন না থাকলে তাকে রিটেইন করে রাখতে চাইবে রংপুর। আর সাকিবকে স্থানীয় সরাসরি সাইনিং এর নিয়মে দলে রাখতে বদ্ধ পরিকর তারা।

Comments

The Daily Star  | English

Broadband internet restored in selected areas

Broadband internet connections were restored on a limited scale yesterday after 5 days of complete countrywide blackout amid the violence over quota protest

2h ago