শুক্রবার কাশ্মীরে ১৪৪ ধারা

কাশ্মীরে জনরোষ সামাল দিতে ভারত সরকার নতুন করে সেখানে সমাবেশ ও লোকজনের একত্রিত হওয়ার ওপর নিষেদ্ধাজ্ঞা জারি করেছে। ভারতের কর্মকর্তারা বলেছেন, শুক্রবার জুম্মার নামাজকে কেন্দ্র করে বড় ধরনের যেন কোনো সমাবেশ হতে না পারে সে জন্যই পূর্বসতর্কতা হিসেবে এই ব্যবস্থা।
ভারতের সংবিধান থেকে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নেওয়ার পর থেকে ক্ষোভের আগুনে ফুসছে উপত্যকার লোকজন। ছবিটি গত ২৭ আগস্ট শ্রীনগর থেকে তোলা। ছবি: রয়টার্স

কাশ্মীরে জনরোষ সামাল দিতে ভারত সরকার নতুন করে সেখানে সমাবেশ ও লোকজনের একত্রিত হওয়ার ওপর নিষেদ্ধাজ্ঞা জারি করেছে। ভারতের কর্মকর্তারা বলেছেন, শুক্রবার জুম্মার নামাজকে কেন্দ্র করে বড় ধরনের যেন কোনো সমাবেশ হতে না পারে সে জন্যই পূর্বসতর্কতা হিসেবে এই ব্যবস্থা।

দ্য ডেইলি স্টারের নয়াদিল্লি প্রতিনিধি জানান, শ্রীনগর ও কাশ্মীর উপত্যকার অন্যান্য অনেক জায়গায় ফৌজদারী কার্যবিধির ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। এই নিষেদ্ধাজ্ঞার কথা এলাকায় এলাকায় ঘোষণা করা হয়েছে। লোকজনকে বাড়ির বাইরে বেরুতে নিষেধ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে রাস্তায় রাস্তায় দেওয়া হয়েছে ব্যারিকেড। 

এ নিয়ে ২৬তম দিনের মতো স্বাভাবিক জীবন যাপন থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন কাশ্মিরের সাধারণ জনগণ। গণপরিবহন বন্ধ করে দেওয়ার ফলে যাতায়াত ব্যবস্থাও ভেঙে পড়েছে।

গত কয়েকদিনে সেখানকার কিছু এলাকায় ল্যান্ড লাইন টেলিফোন চালু হলেও মোবাইল ফোন ও ইন্টারনেট বিচ্ছিন্ন হয়ে রয়েছে কথিত এই ভূস্বর্গ। ভারত সরকার গত ৫ আগস্ট কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন কেড়ে নিয়ে সংবিধান সংশোধ করে রাজ্যকে দুই ভাগে ভাগ করার পর থেকে এই অবস্থা তৈরি করে রেখেছে সেখানে।

Comments

The Daily Star  | English

Dhaka, Washington eye new chapter in bilateral ties

Says Foreign Minister Hasan Mahmud after meeting US delegation

9m ago