খেলা

‘ম্যাজিকাল কিছু’ করে এখনো জেতা সম্ভব ভাবছেন সাকিব

হাতে ২ উইকেট নিয়ে ১৪৮ রানে পিছিয়ে বাংলাদেশ। ম্যাচ তাই অনেকটাই আফগানিস্তানের পকেটে। এই অবস্থা থেকে ‘ম্যাজিকাল কিছু’ করতে পারলেই কেবল ইতিবাচক ফল আনা সম্ভব মনে হচ্ছে সাকিব আল হাসানের। টেস্টে ফিরে অসাধারণ আরও সব উদাহরণের টেনে বাংলাদেশ অধিনায়ক আশায় আছেন সেই কঠিন পথ পাড়ি দেওয়ার।
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

হাতে ২ উইকেট নিয়ে ১৪৮ রানে পিছিয়ে বাংলাদেশ। ম্যাচ তাই অনেকটাই আফগানিস্তানের পকেটে। এই অবস্থা থেকে ‘ম্যাজিকাল কিছু’ করতে পারলেই কেবল ইতিবাচক ফল আনা সম্ভব মনে হচ্ছে সাকিব আল হাসানের। টেস্টে ফিরে অসাধারণ আরও সব উদাহরণের টেনে বাংলাদেশ অধিনায়ক আশায় আছেন সেই কঠিন পথ পাড়ি দেওয়ার।

প্রথম ইনিংসে আফগানিস্তানের ৩৪২ রানের জবাবে ৮ উইকেটে ১৯৪ রানে দিন শেষ করে বাংলাদেশ। শেষ দুই উইকেট নিয়ে বাংলাদেশেকে যতটা সম্ভব পুষিয়ে দিতে হবে ১৪৮ রানের ঘাটতি। পরে আফগানদের দ্বিতীয় ইনিংস নাগালের মধ্যে রেখে ছুটতে হবে রান তাড়ায়।

বাস্তবতা বলে চতুর্থ ইনিংসে বেশ বড় লক্ষ্যই তাড়া করতে হবে সাকিবদের। আফগানিস্তানের তিন রিষ্ট স্পিনার সামলে যেকোনো লক্ষ্য তাড়াই হবে দুরূহ। কিন্তু অভাবনীয় কিছুর আশা রাখছেন অধিনায়ক, ‘ম্যাচ জেতা অবশ্যই সম্ভব এবং ক্রিকেটে অনেক এমন হয়েছে যে প্রথম ইনিংসে পেছনে থাকার পরেও এমন শত শত উদাহরণ আছে যে দল ফিরে আসে। আমরাও আশা করবো যেন এমন কিছুই হয়। এর জন্য অবশ্যই আমাদের যে দুই উইকেট আছে তারা যদি ভালো ব্যাটিং করে একটু এগিয়ে নিতে যেতে পারে আর বোলিংটা যদি ভালো করতে পারি।’

শেষ দুই উইকেট নিয়ে লিড নেওয়া অকল্পনীয়, বাংলাদেশ আশা আছে আফগানদের লিডটা যতখানি কম রাখা যায়, ‘আমি তো প্রত্যাশা করবো যেন এই দুই উইকেট অন্তত একটি সেশন ব্যাটিং করে। যদি সেটা করতে পারে তাহলে রানটি অনেক কমে আসবে। ৭০-৮০ পর্যন্তও যদি আমরা আনতে পারি সেটি আমাদের জন্য অনেক বড় সুবিধা হবে। যদিও অনেক কঠিন একটি চ্যালেঞ্জ হবে, তবে যেভাবে ব্যাটিং করেছে আমি বিশ্বাস রাখতেই পারি।’

সেটা করলেও কাজ ফুরোচ্ছে না। বাকি আছে লম্বা পথ। সেই পথে ম্যাজিকাল কিছু চাইছেন অধিনায়ক, ‘এরপরে অবশ্যই খুব ভালো বোলিং করতে হবে। যেটা বিশ্ব ক্রিকেটে অনেকেই অনেক সময় করেছে যে এমনভাবে পিছিয়ে থাকার পরেও ভালোভাবে কামব্যাক করেছে। এমন সুযোগ যদি আমাদের থাকে এবং আমাদের বোলাররা ম্যাজিকাল কিছু করে দেখাতে পারে, এরপরে আমাদের ব্যাটসম্যানদের ওপরেও নির্ভর করতে হবে।’

'রান তাড়া করতে যাওয়াটা অবশ্যই কঠিন হবে, এত সহজ হবে না এই উইকেটে ওদের স্পিনারদের বিরুদ্ধে। তবে বিশ্বাস আমাদের ভেতরে আছে যে জেতা সম্ভব।’

Comments

The Daily Star  | English

Consumers brace for price shocks

Consumers are bracing for multiple price shocks ahead of Ramadan that usually marks a period of high household spending.

2h ago