খেলা

যেভাবে বাংলাদেশ দলে ‘নতুন মুখ’ ইয়াসিন আরাফাত মিশু

জিম্বাবুয়ে ও আফগানিস্তানের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচের জন্য সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) ঘোষিত ১৩ সদস্যের বাংলাদেশ দলে চমক দেখিয়ে জায়গা করে নিয়েছেন ইয়াসিন আরাফাত মিশু।
yeasin arafat
ইয়াসিন আরাফাত মিশু। ছবি: বিসিবি

জিম্বাবুয়ে ও আফগানিস্তানের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচের জন্য সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) ঘোষিত ১৩ সদস্যের বাংলাদেশ দলে চমক দেখিয়ে জায়গা করে নিয়েছেন ইয়াসিন আরাফাত মিশু।

প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের যে কোনো ফরম্যাটের মূল দলে ডাক পেয়েছেন মাত্র ২০ বছর বয়সী মিশু। ৬ ফুট ২ ইঞ্চি উচ্চতার এই ডানহাতি পেসার গেল এক বছরের বেশি সময় ধরেই জাতীয় দলের নির্বাচকদের নজরে ছিলেন।

২০১৮ সালের জুনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের আগে ঘোষিত বাংলাদেশের ৩১ সদস্যের প্রাথমিক স্কোয়াডে ছিলেন মিশু। এছাড়া গেল মাসে ৩৫ ক্রিকেটারকে নিয়ে চারদিনের যে কন্ডিশনিং ক্যাম্প করেছিল বিসিবি, সেখানেও ছিলেন তিনি।

টি-টোয়েন্টি দলে মিশুর অন্তর্ভুক্তির বিষয়টি অবশ্য বেশ চমক হয়েই এসেছে। কারণ এখন পর্যন্ত ঘরোয়া পর্যায়ে কোনো টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেননি তিনি।

আগের বছরটায় চোটের সঙ্গে বেশ লড়াই করতে হয়েছে মিশুকে। তাই চলতি বছরের শুরুতে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ টি-টোয়েন্টিতে খেলা হয়নি তার।

চোট কাটিয়ে মাঠে ফেরার পর গেল জুলাইতে একটি লিস্ট ‘এ’ ম্যাচে আফগানিস্তান ‘এ’ দলকে হারানোতে বাংলাদেশ ‘এ’ দলের হয়ে ৩ উইকেট নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন মিশু। এরপর বাংলাদেশ হাইপারফরম্যান্স দলের হয়ে শ্রীলঙ্কা ইমার্জিংয়ের বিপক্ষে সিরিজে অবশ্য আশানুরূপ পারফর্ম করতে পারেননি তিনি।

তবে ক্যারিয়ার শুরুর অল্প সময়ের মধ্যেই প্রথম শ্রেণি ও লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে মিশু নিজের প্রতিভার স্বাক্ষর ও সামর্থ্যের প্রমাণ রেখেছেন। তাছাড়া আগামী বছর অনুষ্ঠিত হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। তাই সবদিক বিবেচনা করে দারুণ সম্ভাবনাময় মিশুকে পরখ করে দেখতে চাইছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু।

দীর্ঘদেহী মিশু উইকেট থেকে বেশ বাউন্স আদায় করে নিতে পারেন। আর উইকেট সুবিধা না দিলে তার লক্ষ্য থাকে ব্যাটসম্যানের খেলার ধরন বুঝে ডেলিভারি দিয়ে তাকে পরাস্ত করা।

গেল বছর মার্চে মিশু হইচই ফেলে দিয়েছিলেন লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে বাংলাদেশের পক্ষে রেকর্ড বোলিংয়ের নজির তৈরি করে। মোসাদ্দেক-নাসির-শান্ত-মাশরাফিদের নিয়ে গড়া আবাহনী লিমিটেডের বিপক্ষে ৪০ রানে নিয়েছিলেন ৮ উইকেট। সেটা ছিল তার ক্যারিয়ারের মাত্র দ্বিতীয় লিস্ট ‘এ’ ম্যাচ।

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেকে ৫ উইকেট নেওয়ার কীর্তিও আছে মিশুর। ২০১৬ সালের ওই ম্যাচে রংপুর বিভাগের বিপক্ষে তিনি প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করেছিলেন ৬৫ রানে।

Comments

The Daily Star  | English

This was BNP-Jamaat's bid to destroy economy: PM

Prime Minister Sheikh Hasina today said she had an apprehension that the BNP-Jamaat nexus might unleash destructive activities across the country to cripple the country's economy after they failed to foil the last national election

1h ago