ফিরেই পিএসজিকে জেতালেন নেইমার

দলে থাকবেন কি থাকবেন না এমন জটিলতায় চলতি মৌসুমে প্যারিস সেইন্ত জার্মেইর (পিএসজি) হয়ে মাঠে নামা হয়নি নেইমারের। তবে গ্রীষ্মকালীন দল-বদলে হিসেব শেষ হওয়ায় ফরাসী ক্লাবের হয়ে নামলেন এ ব্রাজিলিয়ান। আর মাঠে নেমেই জয়ের মূল নায়ক তিনিই। ত্তার দেওয়া শেষ মুহূর্তের গোলে স্ত্রাসবুরের বিপক্ষে ১-০ গোলে জিতেছে ফরাসী চ্যাম্পিয়নরা।
ছবি: এএফপি

দলে থাকবেন কি থাকবেন না এমন জটিলতায় চলতি মৌসুমে প্যারিস সেইন্ত জার্মেইর (পিএসজি) হয়ে মাঠে নামা হয়নি নেইমারের। তবে গ্রীষ্মকালীন দল-বদলে হিসেব শেষ হওয়ায় ফরাসী ক্লাবের হয়ে নামলেন এ ব্রাজিলিয়ান। আর মাঠে নেমেই জয়ের মূল নায়ক তিনিই। তার দেওয়া শেষ মুহূর্তের গোলে স্ত্রাসবুরের বিপক্ষে ১-০ গোলে জিতেছে ফরাসী চ্যাম্পিয়নরা।

অথচ এ ম্যাচেই শুরুতে পিএসজি সমর্থকদের তোপের মুখে পড়েছেন নেইমার। বার্সেলোনায় ফিরে যাওয়ার জন্য নেইমারের উঠে পড়ে লাগাটা ভালোভাবে নেয়নি সমর্থকরা। নানাভাবে তাকে দুয়ো দেওয়া হয়েছে। রীতিমতো অশ্লীল ভাষায় অপমান করেছেন সমর্থকরা। ব্যানার-ফেস্টুনেও ছিল তাকে উদ্দেশ্য করে অশ্লীল ভাষা। কিন্তু তাতে বিচলিত হননি এ তারকা। খেলেছেন নিজের মতোই। শেষ পর্যন্ত হয়েছেন জয়ের নায়ক।

ম্যাচ তখন মনে হচ্ছিল গোলশূন্য ভাবেই শেষ হতে চলেছে। নির্ধারিত সময়ের খেলা শেষে অতিরিক্ত সময়ের খেলাও গড়িয়েছে ২ মিনিট। ঠিক এ সময় নেইমারের জাদু। দুর্দান্ত এক বাই-সাইকেল কিকে বল জালে জড়ালেন তিনি। তাতে দলের জয় নিশ্চিত হয়। শুধু তাই নয়, এরপর আরও একটি গোল দিয়েছিলেন এ তারকা। কিন্তু ভিএআরে বাতিল হয় সে গোল। তবে এর আগেই জয়ের জন্য কাজের কাজটি করে ফেলেছেন বার্সেলোনার সাবেক এ খেলোয়াড়।

তবে ম্যাচ জয়ের নায়ক যদি হন নেইমার, তবে নিঃসন্দেহে পার্শ্বনায়ক রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে আসা গোলরক্ষক কেইলর নাভাস। অবিশ্বাস্য কিছু সেভ করেছেন তিনি। ১৮তম মিনিটে লুডভিচ আইর্কির জোরালো শট দারুণ দক্ষতায় বাঁপ্রান্তে ঝাঁপিয়ে ঠেকান। ৭৫তম মিনিটে তাকে আরও একবার হতাশ করেন নাভাস। অবিশ্বাস্যভাবে ঠেকিয়ে দেন এ ফরাসী ফরোয়ার্ডের শট।

৩১তম মিনিটে গোলরক্ষককে একা পেয়েও লক্ষ্যভেদ করতে পারেননি নেইমার। তার শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। ৭৬তম মিনিটে একক দক্ষতায় কাটিয়ে দারুণ সুযোগ তৈরি করেছিলেন। কিন্তু গোলরক্ষককে পরাস্ত করতে পারেননি। ৮৫তম মিনিটে নেইমারের নেওয়া কর্নার বারপোস্টে লেগে ফিরে আসে।

বার্সেলোনায় ফিরে যাওয়ার জন্য মরিয়া হওয়ার সঙ্গে গত আসরের নানা কাণ্ডে ক্লাবের কর্ণধার নাসের আল-খেলাইফির চক্ষুশূলে পরিণত হয়েছিলেন নেইমার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নানা জটিলতায় পিএসজিতেই থেকে যাওয়া হয় তার। তখন প্রশ্ন উঠেছিল, প্রায় জোর করে রেখে দেওয়ায় শতভাগ দিয়ে খেলবেন কি না নেইমার। আর প্রথম ম্যাচেই সব প্রশ্নের উত্তর দিয়ে দিয়েছেন এ ব্রাজিলিয়ান।

Comments

The Daily Star  | English
Dhaka stocks snap three-day losing streak

DSE turnover drops to 1.5-year low

Turnover hit Tk 159 crore, lowest since January 3 of 2023

2h ago