ক্রিকেট

বাংলাদেশকে চাপে ফেলার মন্ত্র জিম্বাবুয়ের

টি-টোয়েন্টি, ওয়ানডে তো বটেই, টেস্ট ক্রিকেটেও আগ্রাসী ব্যাটিং করতে পছন্দ করে বাংলাদেশ দল। এ তথ্য ক্রিকেট বিশ্বে গোপন কোনো বিষয় নয়। জিম্বাবুয়ে দলও জানে ব্যাপারটা। আর এটাকে পুঁজি করেই পরিকল্পনা সাজাচ্ছে দলটি। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের বাউন্ডারি মারা থেকে বিরত রেখে চাপ সৃষ্টি করতে চায় তারা। আর এমনটা হলেই সাফল্য পাবেন বলে মনে করেন জিম্বাবুয়ের অন্যতম অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান শন উইলিয়ামস।
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

টি-টোয়েন্টি, ওয়ানডে তো বটেই, টেস্ট ক্রিকেটেও আগ্রাসী ব্যাটিং করতে পছন্দ করে বাংলাদেশ দল। এ তথ্য ক্রিকেট বিশ্বে গোপন কোনো বিষয় নয়। জিম্বাবুয়ে দলও জানে ব্যাপারটা। আর এটাকে পুঁজি করেই পরিকল্পনা সাজাচ্ছে দলটি। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের বাউন্ডারি মারা থেকে বিরত রেখে চাপ সৃষ্টি করতে চায় তারা। আর এমনটা হলেই সাফল্য পাবেন বলে মনে করেন জিম্বাবুয়ের অন্যতম অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান শন উইলিয়ামস।

ঢাকা পর্ব থেকে খালি হাতে চট্টগ্রামে এসেছে জিম্বাবুয়ে। দুই ম্যাচের দুটিতেই হেরেছে তারা। যদিও উভয় ম্যাচেই বেশ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিল। বাংলাদেশের বিপক্ষে তো এক পর্যায়ে জয়ের খুব কাছেও চলে গিয়েছিল। সেখান থেকে তাদের হতাশ হতে হয় তরুণ আফিফ হোসেন ধ্রুবর ব্যাটের ধারে। তবে নানা সংকটে থাকা দলটি কিছুটা হলেও আত্মবিশ্বাস পেয়েছে সে ম্যাচ থেকে।

এখন বাংলাদেশের বিপক্ষে জয়ের কোনো বিকল্প নেই জিম্বাবুয়ের। আর তার জন্য নিজেদের পরিকল্পনাও সাজিয়েছে দলটি। মঙ্গলবার (১৭ সেপ্টেম্বর) উইলিয়ামস জানান, 'বাউন্ডারি না দেওয়াটা গুরুত্বপূর্ণ। ওদের মতো ক্রিকেটারদের বিপক্ষে ফিল্ডিং দারুণ গুরুত্বপূর্ণ। ওদেরকে যদি বাউন্ডারি মারা থেকে বিরত রাখা যায়, তাহলে চাপ সৃষ্টি হয়। আমি জানি ওরা শট খেলতে পছন্দ করে, জানি ওরা আমাদের আগ্রাসী খেলতে চেষ্টা করবে। চ্যালেঞ্জটি তাই হবে দুর্দান্ত।'

কিন্তু কাজটা যে বেশ কঠিন তা ভালো করেই জানেন উইলিয়ামস। টাইগারদের অভিজ্ঞতাও বেশি। তবে প্রতিপক্ষ নিয়ে না ভেবে নিজেদের জন্য খেলতে চান এ ব্যাটসম্যান, 'বাংলাদেশ খুব ভালো অলরাউন্ড দল। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে যে কোনো কিছুই হতে পারে। ওদের দারুণ কিছু ক্রিকেটার আছে, অভিজ্ঞ ক্রিকেটার আছে। সাকিব, মাহমুদউল্লাহ, মুশি… ওরা সবাই খুব ভালো ক্রিকেটার। সেটিকে আমরা সমীহ করি। কোনো ম্যাচই আমরা হালকাভাবে নেব না। আমরা নিজেদের কাজে মনোযোগ দিতে চাই, নিজেদের কাজগুলি করতে চাই নিজেদের জন্য।'

শুধু বাংলাদেশের বিপক্ষে নয়, টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে হলে শেষ দুই ম্যাচেই জিততে হবে জিম্বাবুয়েকে। তবে খুব একটা সুবিধাজনক স্থানে নেই বাংলাদেশও। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে কষ্টার্জিত জয় পেলেও আফগানিস্তানের কাছে হেরে গেছে দলটি। তবে প্রতিপক্ষের চাপ নিয়ে না ভেবে নিজেদের কাজে মনযোগী হতে চান উইলিয়ামস, 'আমরা যদি নিজেদের কাজ মন দিয়ে করতে পারি, বাকি সব আপনাআপনি ঠিক হবে। তারা চাপে আছে, আমরা সেটা জানি। কিন্তু আমাদের মৌলিক দিকগুলো ঠিকঠাক করতে হবে।'

আর এমনটা করতে পারলে জয় পেতে বেশ আশাবাদী উইলিয়ামস, 'যদি মৌলিক দিকগুলো ঠিকঠাক করতে পারি… যেমন ফিল্ডিং, কিছু সূক্ষ্ম ব্যাপার আছে, সেগুলো যদি ঠিকঠাক করতে পারি, দুটি ম্যাচ জয়েরই ভালো সম্ভাবনা আছে আমাদের। আগের দুটি ম্যাচেই আমরা উভয় দলকেই কঠিন সময় দিয়েছি, শেষ ওভার পর্যন্ত টেনে নিয়েছি। সামনে যদি মাঠে সময়মতো ভালো সিদ্ধান্ত আরও নিয়মিতভাবে নিতে পারি, আমাদের এগিয়ে যাওয়ার ভালো সম্ভাবনা আছে।'

Comments

The Daily Star  | English
Bangladesh lacking in remittance earning compared to four South Asian countries

Remittance hits eight-month high

In February, migrants sent home $2.16 billion, up 39% year-on-year

1h ago