শীর্ষ খবর

মোদি ‘ভারতের জনক’, তার জনপ্রিয়তা এলভিস প্রিসলির মতো: ট্রাম্প

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ‘ভারতের জনক’ হিসেবে আখ্যায়িত করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, ৬৯ বছরের এই ভারতীয় নেতাই হলেন ‘ফাদার অব ইন্ডিয়া’।
Trump-and-Modi.jpg
টেক্সাসের হিউস্টনে আয়োজিত ‘হাউডি মোদি’ অনুষ্ঠানে ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং নরেন্দ্র মোদি। ছবি: রয়টার্স

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ‘ভারতের জনক’ হিসেবে আখ্যায়িত করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, ৬৯ বছরের এই ভারতীয় নেতাই হলেন ‘ফাদার অব ইন্ডিয়া’।

গতকাল (২৪ সেপ্টেম্বর) যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের হিউস্টনে আয়োজিত ‘হাউডি মোদি’ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রে ভারতীয় এ নেতার জনপ্রিয়তা দেখে মার্কিন রক অ্যান্ড রোল কিংবদন্তি এলভিস প্রিসলির সঙ্গেও মোদির তুলনা করেছেন ট্রাম্প।

নিউইয়র্কে নিজেদের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের আগে ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন, “আমার মনে আছে- আগের ভারতবর্ষ...খুবই ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন ছিলো এই দেশ। প্রচুর মতবিরোধ ছিলো, প্রচুর লড়াই ছিলো। মোদি সবাইকে একত্রিত করেছেন। একজন বাবার মতো তিনি সবাইকে বেঁধে রেখেছেন। হয়তো তিনিই ভারতের জনক। আমাদের উচিত তাকে ভারতের জনক বলে ডাকা...আমি মনে করি তিনি ভারতে দুর্দান্ত কাজ করছেন।”

ট্রাম্প আরও বলেন, “এই অনুষ্ঠানটিতে প্রমাণিত হলো যে- আমি ভারত দেশটিকে কতোটা পছন্দ করি এবং আপনাদের প্রধানমন্ত্রীকেও আমি কতোটা পছন্দ করি। ওই হল রুমে অদ্ভুত রকমের উত্তেজনা ছিলো, দুর্দান্ত চেতনা ছিলো। আমার ডানদিকে এই ভদ্রলোককে সকলে এতো ভালোবাসে। মানুষজন পাগলের মতো তাদের ভালোবাসা জানিয়েছেন। মোদি যেনো এলভিস প্রিসলির আমেরিকান সংস্করণ! গ্র্যান্ড হাউডি, মোদি!”

ওই অনুষ্ঠানে ৫০ হাজারেরও বেশি মানুষ অংশ নেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের মুখ থেকে এমন প্রশংসাসূচক মন্তব্য শোনার পর তাকেও প্রশংসায় ভাসিয়েছেন মোদি।

ট্রাম্পের উদ্দেশ্যে মোদি বলেন, “সিইও থেকে কমান্ডার-ইন-চিফ, বোর্ডরুম থেকে ওভাল অফিস, স্টুডিও থেকে শুরু করে বৈশ্বিক পর্যায়ে, রাজনীতি থেকে শুরু করে অর্থনীতি ও সুরক্ষা সর্বত্র গভীর ও স্থায়ী প্রভাব ফেলেছেন ট্রাম্প।”

Comments

The Daily Star  | English

Work begins to breathe life into dying Ichamati

The long-awaited project to rejuvenate the Ichamati river began under the supervision of Bangladesh Army, bringing joy to the people of Pabna

18m ago