শোয়ার্জনেগারের 'দ্য টার্মিনেটর' রোনালদো

আর্নল্ড শোয়ার্জনেগারের নাম উঠলেই সবার আগে মনে আসে তার অভিনীত ‘টার্মিনেটর’ সিরিজের সিনেমাগুলোর কথা। সাইবর্গ অ্যাসাসিন টার্মিনেটরের চরিত্র দারুণভাবে ফুটিয়ে সাড়া বিশ্বে রীতিমতো হৈচৈ ফেলে দিয়েছিলেন তিনি। এরপর থেকেই ‘টার্মিনেটর’ শব্দটা যেন তার নামের সমার্থক শব্দে পরিণত হয়েছেন। তবে এ সবই অভিনয়ের কারুকলা। বাস্তব জীবনেও একজন ‘টার্মিনেটর’ দেখছেন তিনি। আর তিনি হলেন হালের অন্যতম সেরা ফুটবল তারকা ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো।
ছবি: সংগ্রহীত

আর্নল্ড শোয়ার্জনেগারের নাম উঠলেই সবার আগে মনে আসে তার অভিনীত ‘টার্মিনেটর’ সিরিজের সিনেমাগুলোর কথা। সাইবর্গ অ্যাসাসিন টার্মিনেটরের চরিত্র দারুণভাবে ফুটিয়ে সাড়া বিশ্বে রীতিমতো হৈচৈ ফেলে দিয়েছিলেন তিনি। এরপর থেকেই ‘টার্মিনেটর’ শব্দটা যেন তার নামের সমার্থক শব্দে পরিণত হয়েছেন। তবে এ সবই অভিনয়ের কারুকলা। বাস্তব জীবনেও একজন ‘টার্মিনেটর’ দেখছেন তিনি। আর তিনি হলেন হালের অন্যতম সেরা ফুটবল তারকা ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো।

রোনালদোর ফুটবলে শোয়ার্জনেগার এতোটাই মজেছেন যে সাংবাদিকদের অনুরোধ করেছেন তাকে ‘দ্য টার্মিনেটর’ ডাকতে। সম্প্রতি বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, 'এনবিএতে একজন আছে যাকে অনেকে দ্য টার্মিনেটর ডাকে। আমার মনে হয় না ফুটবলে কাউকে দ্য টার্মিনেটর ডাকা হয়। কেন তোমরা শুরু করো না? রোনালদো? হ্যাঁ, তাকে তোমরা এটা বলতে পার। তাহলে সবাই এটা গ্রহণ করবে এবং তাকে দ্য টার্মিনেটর ডাকা শুরু করবে।'

শোয়ার্জনেগারের আরও একটি বড় পরিচয় বডি বিল্ডার হিসেবে। রোনালদোর শারীরিক কাঠামো সবসময়ই পছন্দ তার। এর আগেও এক সাক্ষাৎকারে রোনালদোকে নিয়ে তিনি বলেছিলেন, 'তার (রোনালদো) দুর্দান্ত শারীর রয়েছে। তার দারুণ কিছু অ্যাবস রয়েছে, যার কারণে তাকে দর্শনীয় দেখায়। তার শারীরিক কাঠামো দুর্দান্ত। নিঃসন্দেহে সে দারুণ একজন ফুটবলার।'

ফুটবল বিশ্বে অবশ্য কোন নামের প্রয়োজন হয় না রোনালদোর। নিজেকে এতোটাই উঁচুতে তুলেছেন তিনি। একের পর এক কীর্তি গড়ে যাচ্ছেন এ পর্তুগিজ তারকা। কদিন আগেই ক্যারিয়ারে ৭০০ গোলের মাইলফলক পার করেছেন। ইতিহাসে তিনি মাত্র ষষ্ঠ খেলোয়াড় যে কিনা ৭০০ গোল কিংবা তার বেশি করতে পেরেছেন। সামনে হয়তো আরও অনেক কীর্তিই অপেক্ষা করছে তার জন্য।

‘টার্মিনেটর’ সিরিজের ধারাবাহিকতায় আগামী ১ নভেম্বর মুক্তি পেতে যাচ্ছে নতুন সিনেমা ‘টার্মিনেটর ডার্ক ফেইট’। অ্যাকশন ঘরনার এ ছবিতে থাকছেন শোয়ার্জনেগার। তার উপস্থিতি মানেই এক অন্যরকম উত্তেজনা। এ সিনেমায় আগের চেয়েও বেশি মারকুটে ভূমিকায় অবতীর্ণ হবেন ৬০ বছর বয়সী এই তারকা।

Comments