খেলা

বার্সেলোনাকে রুখে দিয়েছে স্লাভিয়া প্রাগ

এমন নয় যে, রক্ষণ সামলাতেই ব্যস্ত ছিল স্লাভিয়া প্রাগ; রক্ষণ জমাট রেখে বার্সেলোনার সঙ্গে সমান তালেই আক্রমণে গিয়েছে তারা। ভাগ্য সঙ্গে থাকলেও হয়তো ভিন্ন ফলও হতে পারতো। পাঁচ বারের চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনাকে তাদের মাঠেই আটকে দিয়েচে দলটি। গোলরক্ষক ওনদ্রেজ কোলারের অসাধারণ দক্ষতায় ন্যু ক্যাম্প থেকে ১ পয়েন্ট নিয়ে দেশে ফিরছে চেক রিপাবলিকের দলটি।
ছবি: এএফপি

এমন নয় যে, রক্ষণ সামলাতেই ব্যস্ত ছিল স্লাভিয়া প্রাগ; রক্ষণ জমাট রেখে বার্সেলোনার সঙ্গে সমান তালেই আক্রমণে গিয়েছে তারা। ভাগ্য সঙ্গে থাকলেও হয়তো ভিন্ন ফলও হতে পারতো। পাঁচ বারের চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনাকে তাদের মাঠেই আটকে দিয়েছে দলটি। গোলরক্ষক ওনদ্রেজ কোলারের অসাধারণ দক্ষতায় ন্যু ক্যাম্প থেকে ১ পয়েন্ট নিয়ে দেশে ফিরছে চেক রিপাবলিকের দলটি।

বার্সেলোনার ঘরের মাঠে এদিন ম্যাচটি গোলশূন্য ভাবে শেষ হয়। এর আগে প্রাগের মাঠ থেকে ২-১ গোলের জয় নিয়ে ফিরেছিল বার্সেলোনা। এ ড্রয়ের ফলে 'এফ' গ্রুপে ৪ ম্যাচে দুটি জয় ও দুটি ড্রতে ৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই রইল কাতালান ক্লাবটি। চার ম্যাচে প্রাগের সংগ্রহ ২ পয়েন্ট।

নিজেদের মাঠে খেললেও ম্যাচে আধিপত্য খাঁটাতে পারেনি স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নরা। প্রথমার্ধে তো প্রায় সমান তালেই লড়াই করেছে সেকের দলটি। তবে ম্যাচের ১১তম মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার দারুণ সুযোগ পেয়েছিল বার্সেলোনা। জেরার্দ পিকের নিখুঁত পাস থেকে বল ডি-বক্সে ঢুকে শট নিয়েছিলেন নেলসন সেমেদো। তবে দারুণ দৃঢ়তায় সে শট ফিরিয়ে দেন গোল প্রাগ গোলরক্ষক কোলার।

২১তম মিনিটে বাঁ প্রান্ত থেকে মেসির ফ্রি কিক ঠেকিয়ে দেন কোলার। ছয় মিনিট পর গোল করার ভালো সুযোগ পেয়েছিল প্রাগও। বাঁ প্রান্ত দিয়ে পিটার ওলিয়েঙ্কার ক্রস থেকে ভালো শট নিয়েছিলেন নিকোলে স্টাঞ্চু। কিন্তু অল্পের জন্য নিশানা ঠিক থাকেনি।

৩৫তম মিনিটে ভাগ্য বঞ্চিত হয় বার্সেলোনা। নিজেদের অর্ধ বল নিয়ে ডি-বক্সের সামান্য বাইরে থেকে দুর্দান্ত এক শট নিয়েছিলেন মেসি। কিন্তু দুর্ভাগ্য তার, বারপোস্টে লেগে ফিরে আসে সে শট।

৪৩তম মিনিটে তিন দফা গোলের সুযোগ পেয়েও লক্ষ্যভেদ করতে পারেনি বার্সা। প্রাগের এক ডিফেন্ডারের ভুলে অনেকটা ফাঁকায় বল পেয়ে যান আর্তুরো ভিদাল। বাঁ প্রান্তে পাস দেন মেসিকে। বল ধরে দারুণ এক কোণাকোণি শট নিয়েছিলেন মেসি। কিন্তু অসাধারণ দক্ষতায় লাফিয়ে সে শট কর্নারের বিনিময়ে ফিরিয়ে দেন গোলরক্ষক কোলার।

কর্নার থেকেও দুর্দান্ত এক হেড নিয়েছিলেন পিকে। তার হেডও দারুণ দক্ষতায় ফিরিয়ে দেন প্রাগ গোলরক্ষক। ফিরতি কর্নার থেকেও ডি-বক্সে সৃষ্ট জটলায় সুযোগ ছিল। তবে সে যাত্রাও বেঁচে যায় সফরকারীরা।

৪৮তম মিনিটে বিপজ্জনক জায়গা থেকে ফ্রি কিক পেয়েছিল বার্সা। তবে মেসির নেওয়া শট অল্পের জন্য লক্ষ্যে থাকেনি। সাত মিনিট পর ওসমান দেম্বেলের চিপ থেকে গোলরক্ষককে একা পেয়ে গিয়েছিলেন সের্জি রোবার্তো। তার শট ফিরিয়ে দেন গোলরক্ষক কোলার।

৭৬তম মিনিটে বদলী খেলোয়াড় আনসু ফাতির পাস থেকে মেসির নেওয়া শট আবারো দুর্দান্ত দক্ষতায় ফিরিয়ে দেন প্রাগ গোলরক্ষক।

৮২তম মিনিটে ফাতির পাস থেকে আরেক বদলী খেলোয়াড় ইভান রাকিতিচও দারুণ সুযোগ পেয়েছিলেন। কিন্তু উড়িয়ে মেরে সে সুযোগ নষ্ট করেন তিনি। এরপর শেষ দিকেও ভালো কিছু সুযোগ পেলেও তা থেকে গোল আদায় করতে না পারায় ঘরের মাঠে ড্র মেনেই মাঠ ছাড়তে হয় কাতালানদের।

Comments

The Daily Star  | English