ব্লেন্ডার বিস্ফোরণে অগ্নিদগ্ধ মা-মেয়ের মৃত্যু

চার দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে অবশেষে মারা গেলেন মানিকগঞ্জে ব্লেন্ডার বিস্ফোরণে অগ্নিদগ্ধ মা আসমা বেগম (৫০) ও মেয়ে সুমাইয়া আক্তার (৭)। বুধবার ভোরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে আধ ঘণ্টার ব্যবধানে তারা মারা যান।

চার দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে অবশেষে মারা গেলেন মানিকগঞ্জে ব্লেন্ডার বিস্ফোরণে অগ্নিদগ্ধ মা আসমা বেগম (৫০) ও মেয়ে সুমাইয়া আক্তার (৭)। বুধবার ভোরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে আধ ঘণ্টার ব্যবধানে তারা মারা যান।

মানিকগঞ্জের গিলন্ড এলাকায় ইব্রাহিম মিয়া জানান, শনিবার (১ নভেম্বর) সন্ধ্যার পর বাসায় তার স্ত্রী আসমা বেগম (৫০) ব্লেন্ডার দিয়ে পিঠা তৈরির জন্য চাল গুড়ো করছিলেন। ঘরে নবম শ্রেণি পড়ুয়া ছেলে আরিফ জামা-কাপড় ইস্ত্রি করছিল। আর খাটের ওপর বসে ছিল সুমাইয়া। এসময় হঠাৎ বিকট শব্দে ব্লেন্ডারটি বিস্ফোরিত হয়ে ঘরে আগুন ধরে যায়। এতে মা, মেয়ে ও ছেলে অগ্নিদগ্ধ হয়।

আহতদের দ্রুত মুন্নু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানকার চিকিৎসকরা তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বার্ন ইউনিটে স্থানান্তর করে। আসমা বেগমের শরীরের ৯০ ভাগ, সুমাইয়ার শরীরের ৮০ ভাগ এবং আরিফের শরীরের ৬০ ভাগ পুড়ে গেছে। বুধবার ভোরে সুমাইয়া মারা যাওয়ার ঠিক আধ ঘণ্টা পর শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন মা আসমা বেগম।

বুধবার বিকালে মা-মেয়ের মরদেহ ঢাকা থেকে গিলন্ড আনা হলে সেখানে নেমে আসে শোকের ছায়া। সন্ধ্যার আগে গিলন্ড কবরস্থানের তাদের দাফন করা হয়।

স্ত্রী ও কন্যাকে হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন মুন্নু ফেব্রিক্সের ইলেকট্রিক্যাল বিভাগের কর্মকর্তা মো. ইব্রাহিম মিয়া।

আরও পড়ুন: ব্লেন্ডার বিস্ফোরণে ৩ জন দগ্ধ

Comments

The Daily Star  | English

Pahela Baishakh being celebrated

Pahela Baishakh, the first day of Bengali New Year-1431, is being celebrated across the country today with festivity, upholding the rich cultural values and rituals of the Bangalees

56m ago