খেলা

দিল্লির উল্লাস ফিরবে নাগপুরে?

এক ম্যাচে হাতে রেখে ভারতের মাটিতে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জেতার সুযোগ ছিল বাংলাদেশের। সে কাজটা যে কত কঠিন তা টের পেয়েছে বাংলাদেশ। তাই বলে সব সম্ভাবনা একেবারে শেষ হয়ে যায়নি। সমীকরণ বলছে, সিরিজ নিজেদের করে নেওয়ার সমান সুযোগ দুদলের সামনে, নাগপুরে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটা যে সিরিজ নির্ধারণকারী।
bangladesh cricket team
ছবি: বিসিবি

এক ম্যাচে হাতে রেখে ভারতের মাটিতে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জেতার সুযোগ ছিল বাংলাদেশের। সে কাজটা যে কত কঠিন তা টের পেয়েছে বাংলাদেশ। তাই বলে সব সম্ভাবনা একেবারে শেষ হয়ে যায়নি। সমীকরণ বলছে, সিরিজ নিজেদের করে নেওয়ার সমান সুযোগ দুদলের সামনে, নাগপুরে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটা যে সিরিজ নির্ধারণকারী।

রবিবার (১০ নভেম্বর) অলিখিত ‘ফাইনাল’, মাঠে নামবে বাংলাদেশ ও ভারত। নয়নাভিরাম বিদর্ভ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের মাঠে খেলা শুরু বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায়।

নানা কারণে বিপর্যস্ত বাংলাদেশের ক্রিকেট দিল্লি জয় করে সিরিজে এগিয়ে যাবে, সেটা কজনই বা ভেবেছিল! কিন্তু ঘটে সেটাই। মুশফিকুর রহিমের দায় মোচনের ম্যাচে চোখ ধাঁধানো নৈপুণ্য দেখিয়ে ৭ উইকেটে জিতেছিল দল। ভারতের মাটিতে তো বটেই, ভারতের বিপক্ষে এই সংস্করণে বাংলাদেশের একমাত্র জয় এটিই।

রাজকোটে অবশ্য সব বিভাগেই এগিয়ে থেকে ভারত সিরিজে ফেরায় সমতা। সেদিন উপযোগী উইকেট পেয়ে বাঁধনছাড়া হয়েছিলেন রোহিত শর্মা। তার সামনে প্রতিরোধের দেয়াল গড়তে ব্যর্থ হয়েছিলেন লেগ স্পিনার আমিনুল ইসলাম বাদে সবাই। তাই বাংলাদেশের কপালে জুটেছিল ৮ উইকেটের হার, তখনও বাকি ছিল ম্যাচের ২৬ বল।

তার আগে মাহমুদউল্লাহদের ব্যাটিংটাও ছিল শ্রীহীন। শুরুর ভালোটাকে শেষ পর্যন্ত টেনে নিয়ে যেতে পারেননি ব্যাটসম্যানরা। শেষদিকে ঝড় তোলা হয়নি। তাতে বোলারদের লড়াই করার পুঁজিটাও দেওয়া যায়নি।

দুই ম্যাচে দুই বিপরীত চিত্র। তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে কোন বাংলাদেশের দেখা মিলবে? দিল্লির উল্লাস আবার নাগপুরে ফেরাতে পারবেন মুশফিক-বিপ্লবরা? ভারতের মাটিতে সিরিজ জয়ের অবিস্মরণীয় কীর্তি গড়তে পারবে রাসেল ডমিঙ্গোর শিষ্যরা?

সে আশাবাদ জানিয়ে রেখেছেন বাংলাদেশ কোচ, ‘আমরা নিজেদের নিয়ে খুবই তৃপ্ত। একটা দারুণ সুযোগ। ছেলেরা রোমাঞ্চিত। দিন শেষে ভারত বিশ্বের অন্যতম সেরা দল। এখানে কেউ বাংলাদেশের সুযোগ দেখবে না। কিন্তু যদি আমরা আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে পারি, তাহলে আমাদেরও সুযোগ থাকবে।’

সেই সঙ্গে আছে একটি দারুণ খবর। মন্থর উইকেট, বল ব্যাটে আসে ধীরে, স্পিনাররা পান বাড়তি সুবিধা, বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান হলেও তেড়েফুঁড়ে মারার সুযোগ খুব একটা নেই- এমন উইকেট বাংলাদেশের জন্য খুব মানানসই। দিল্লিতে এরকম পিচেই ভারতকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। সুখবর হলো, নাগপুরের উইকেটও একই ধাঁচের।

এর আগে পেসার শফিউল ইসলাম বলেছিলেন, নাগপুরে সিরিজ জেতার জন্যই নামবেন তারা, ‘প্রথম ম্যাচটা যেরকম খেলেছি, সেরকম যদি খেলতে পারি। আর এই (দ্বিতীয়) ম্যাচে কিছু ছোট ছোট ভুল ছিল। যদি আমরা সামনের ম্যাচে এই ভুলগুলো না করি, অবশ্যই, আমাদের সিরিজ জেতা সম্ভব। আশা করি, আমরা দৃঢ়ভাবে ঘুরে দাঁড়াব। আমরা সিরিজ জেতার জন্যই খেলব।’

বাংলাদেশের প্রত্যাশা আর প্রাপ্তি একবিন্দুতে মেলে কিনা তা জানা যাবে আর কয়েক ঘণ্টা পরই।

Comments

The Daily Star  | English

Dos and Don’ts during a heatwave

As people are struggling, the Met office issued a heatwave warning for the country for the next five days

3h ago