শীর্ষ খবর

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রেন দুর্ঘটনায় রেল কর্তৃপক্ষের অপমৃত্যুর মামলা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশনে দুটি ট্রেনের সংঘর্ষে ১৬ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করেছে রেল কর্তৃপক্ষ।
১২ নভেম্বর ২০১৯, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলায় মন্দবাগ রেল স্টেশনে দুটি ট্রেনের সংঘর্ষ হয়। ছবি: স্টার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশনে দুটি ট্রেনের সংঘর্ষে ১৬ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করেছে রেল কর্তৃপক্ষ।

গতকাল (১২ নভেম্বর) রাতে আখাউড়া রেলওয়ে থানায় মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার জাকের হোসেন চৌধুরী বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন।

আখাউড়া রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল কান্তি দাস বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, স্টেশন মাস্টার থানায় একটি ইউডি (অপমৃত্যু) মামলা করেছেন।

এদিকে দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে জেলা প্রশাসনের গঠিত তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি তাদের তদন্ত কাজ শুরু করেছেন। ইতোমধ্যে দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। আহত যাত্রীদের সঙ্গেও কথা বলছেন কমিটির সদস্যরা।

তদন্ত কমিটির প্রধান, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মিতু মরিয়ম বলেন, “গতকাল থেকেই আমরা তদন্ত কাজ শুরু করেছি। প্রাথমিক পর্যায়ে যারা রেসপন্স করেছে তাদের সঙ্গে আমরা কথা বলেছি। আমাদের তদন্ত কাজ চালু আছে। এখন পর্যন্ত আমরা চূড়ান্ত কিছুতে আসতে পারিনি। কবে নাগাদ তদন্ত প্রতিবেদন দিতে হবে সেই নির্দেশনা আমাদেরকে এখনও দেওয়া হয়নি। সেটি জানার পর আমরা বলতে পারবো কবে প্রতিবেদন জমা দেওয়া হবে।”

গতকাল ভোররাত পৌনে তিনটার দিকে মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশনে তূর্ণা নিশীথা ও উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনের সংঘর্ষ হয়। এতে ১৬ জন নিহত এবং প্রায় ৭০ জনেরও বেশি যাত্রী আহত হন।

দুর্ঘটনার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে রেলপথমন্ত্রী নূরুল ইসলাস সুজন দুর্ঘটনার জন্য তূর্ণা নিশীথার লোকোমোটিভ মাস্টারকে (চালক) দায়ী করেন। দুর্ঘটনার পরই তূর্ণার লোকোমোটিভ মাস্টার, সহকারী মাস্টার ও পরিচালককে (গার্ড) সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

Comments

The Daily Star  | English

Coastal villagers shifted to LPG from Sundarbans firewood

'The gas cylinder has made my life easy. The smoke and the tension of collecting firewood have gone away'

1h ago