খেলা

১০ বছর পর পাকিস্তানে ফের টেস্ট ম্যাচ, যাচ্ছে সেই শ্রীলঙ্কাই

বছর ১০ আগে শ্রীলঙ্কা দলের উপর সন্ত্রাসী হামলার কারণে ঘরের মাঠে ক্রিকেট আয়োজন থেকে এক রকম নির্বাসিতই ছিল পাকিস্তান। যদিও গত কয়েক বছরে জিম্বাবুয়ে-শ্রীলঙ্কাকে দিয়ে সংক্ষিপ্ত সংস্করণে ঝটিকা সফর করাতে পেরেছে তারা। তবে এখনও টেস্ট ম্যাচ আয়োজন করতে পারেনি। এক দশক পর আবার দেশটিতে ফিরছে টেস্ট ক্রিকেট। সফর করবে সেই শ্রীলঙ্কাই। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।

বছর ১০ আগে শ্রীলঙ্কা দলের উপর সন্ত্রাসী হামলার কারণে ঘরের মাঠে ক্রিকেট আয়োজন থেকে এক রকম নির্বাসিতই ছিল পাকিস্তান। যদিও গত কয়েক বছরে জিম্বাবুয়ে-শ্রীলঙ্কাকে দিয়ে সংক্ষিপ্ত সংস্করণে ঝটিকা সফর করাতে পেরেছে তারা। তবে এখনও টেস্ট ম্যাচ আয়োজন করতে পারেনি। এক দশক পর আবার দেশটিতে ফিরছে টেস্ট ক্রিকেট। সফর করবে সেই শ্রীলঙ্কাই। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।

আর লম্বা সময় পর পাকিস্তানে টেস্ট ক্রিকেট ফেরায় দারুণ উচ্ছ্বসিত পিসিবি। এক বিবৃতিতে পিসিবি পরিচালক জাকির খান বলেছেন, 'এটা পাকিস্তান ক্রিকেটের জন্য দারুণ একটি সংবাদ। এটা এখন স্বীকৃত যে পাকিস্তান অন্যান্য দেশের মতোই শান্ত এবং নিরাপদ।'

২০০৯ সালের মার্চে সবশেষ টেস্ট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছিল পাকিস্তানে। লাহোর টেস্টের তৃতীয় দিনে হোটেল থেকে মাঠে যাওয়ার পথে শ্রীলঙ্কা দল বহনকারী বাসে সন্ত্রাসী হামলা হয়। তাতে আহত হয়েছিলেন বেশ কয়েক জন লঙ্কান ক্রিকেটার। এরপর জরুরী ভিত্তিতে দেশ ছেড়েছিল লঙ্কান দলটি। সেই থেকে নিজদের হোম ভেন্যু হিসেবে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে বেছে নিয়েছিল পাকিস্তান। এরপর টানা ছয় বছর তো কোন ধরণের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটই হয়নি দেশটিতে।

গত সেপ্টেম্বর-অক্টোবরেই পাকিস্তানে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে এসেছে শ্রীলঙ্কা। তাতে প্রথম সারির খেলোয়াড় ছিল ১০ জন। সে সফর শেষে অবশ্য তারা জানিয়েছিল এখনও টেস্ট খেলার মতো উপযুক্ত নয় পাকিস্তান। এবার তারাই সবার আগে টেস্ট খেলতে যাচ্ছে দেশটিতে। রাওয়ালপিন্ডিতে আগামী ১১ ডিসেম্বর শুরু হবে প্রথম টেস্ট। দ্বিতীয় টেস্টটি অনুষ্ঠিত হবে করাচিতে। শুরু হবে ১৯ ডিসেম্বর।

আর সে সফর থেকেই পাকিস্তান সফরের প্রতি আস্থাশীল হয়েছেন বলে জানিয়েছেন শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী অ্যাশলি ডি সিলভা, 'পাকিস্তানে আমাদের সফর নিশ্চিত করে আমরা সন্তুষ্ট। আগের সফরের দারুণ অভিজ্ঞতা থেকে আমরা সেখানে টেস্ট খেলতে সম্মত হয়েছি। আমরা এটাও বিশ্বাস করি যে ক্রিকেট খেলুড়ে সব দেশেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট হওয়া উচিত। আর এই বিবেচনায় পাকিস্তানে পুরোপুরি ক্রিকেট ফেরানোয় অংশ নিতে পেরে আমরা খুশি।'

শুরুতে পাকিস্তান সফর করা দুশ্চিন্তা থাকলেও তা মিটে গেছে বলে জানিয়েছেন শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের এক মুখপাত্র। পূর্ণ শক্তির দল পাঠানো হবে বলেই বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন তিনি, 'টেস্ট সিরিজের জন্য বোর্ড পূর্ণ-শক্তির দল পাঠানোর চেষ্টা করছে।'

কিছু দিন আগেই বাংলাদেশের একটি বয়স ভিত্তিক দল ও নারী দলও সফর করেছে পাকিস্তানে। এরপর আইসিসির ভবিষ্যৎ সফর সূচি অনুযায়ী, আগামী জানুয়ারিতে পাকিস্তান সফরে যাওয়ার কথা রয়েছে টাইগারদের। বাংলাদেশের একটি নিরাপত্তা পরিদর্শক দলও সফর করে এসেছে পাকিস্তানে। লঙ্কানদের সফরে তাই পাকিস্তানে যাওয়ার জন্য চাপ পড়বে বাংলাদেশের উপরও।

Comments

The Daily Star  | English

PM reaches New Delhi on two-day state visit to India

Prime Minister Sheikh Hasina arrived in New Delhi today on a two-day state visit to India

31m ago