নিষ্প্রাণ দিনে বার্নস-ডেনলি-স্টোকসের ফিফটি

নিউজিল্যান্ডের নবম টেস্ট ভেন্যু হিসেবে যাত্রা শুরু করল মাউন্ট মঙ্গানুইয়ের বে ওভাল। এই ভেন্যুর অভিষেকের প্রথম দিনটি অবশ্য ছিল একেবারেই ম্যাড়ম্যাড়ে। ইংল্যান্ডের তিন ব্যাটসম্যান হাফসেঞ্চুরি তুলে নিলেও রান তোলার গতি ছিল খুবই শ্লথ। বিপরীতে, নিউজিল্যান্ড সারাদিনে নিতে পেরেছে মাত্র চার উইকেট।
ben stokes
ছবি: এএফপি

নিউজিল্যান্ডের নবম টেস্ট ভেন্যু হিসেবে যাত্রা শুরু করল মাউন্ট মঙ্গানুইয়ের বে ওভাল। এই ভেন্যুর অভিষেকের প্রথম দিনটি অবশ্য ছিল একেবারেই ম্যাড়ম্যাড়ে। ইংল্যান্ডের তিন ব্যাটসম্যান হাফসেঞ্চুরি তুলে নিলেও রান তোলার গতি ছিল খুবই শ্লথ। বিপরীতে, নিউজিল্যান্ড সারাদিনে নিতে পেরেছে মাত্র চার উইকেট।

বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম দিনে ৯০ ওভারে ৪ উইকেটে ২৪১ রান তুলেছে সফরকারী ইংল্যান্ড। হাফসেঞ্চুরি করে দলকে বড় সংগ্রহের পথে রেখেছেন ররি বার্নস, জো ডেনলি ও বেন স্টোকস।

ব্যক্তিগত ১০ রানে বেঁচে যাওয়া ওপেনার বার্নস ৫২ রান করেন। তিনে নেমে ডেনলি টেস্ট ক্যারিয়ারের পঞ্চম ফিফটি তুলে নিয়ে আউট হন ৭৪ রানে। দিনের শেষ সেশনে রানের গতি বাড়িয়ে খেলা স্টোকস অপরাজিত আছেন ৬৭ রানে। তার সঙ্গী অলি পোপের সংগ্রহ ১৮ রান।

ব্যাটিংয়ের জন্য ভালো উইকেটে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ইংল্যান্ডের শুরুটাও হয় বেশ। উদ্বোধনী জুটি অভিষিক্ত ডম সিবলিকে নিয়ে ৫২ রান যোগ করেন বার্নস। সিবলির ৬৩ বলে ২২ রানের সাবধানী ইনিংস শেষ হয় কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের ডেলিভারিতে। স্লিপে ক্যাচ নেন অভিজ্ঞ রস টেইলর।

১ উইকেটে ৬১ রান নিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যাওয়া ইংল্যান্ড দ্বিতীয় সেশনে আরও ৬০ রান যোগ করতে হারায় ২ উইকেট। নড়বড়ে ব্যাটিংয়ে ফিফটি তুলে নিয়ে বার্নস পরিণত হন ডি গ্র্যান্ডহোমের দ্বিতীয় শিকারে। তাতে ভাঙে ডেনলির সঙ্গে তার ৬১ রানের জুটি।

১৩৮ বলে ৬ চারে ৫২ রান করে উইকেটের পেছনে বিজে ওয়াটলিংয়ের হাতে ক্যাচ দেন বার্নস। এরপর দলের খাতায় ৭ রান যোগ হতেই ফেরেন ইংলিশ অধিনায়ক জো রুট। নিউজিল্যান্ড পায় দিনের সেরা সাফল্য। ২২ বলে ২ রান করে রুট আউট হন নেইল ওয়াগনারের বলে।

এরপর দিনের সেরা জুটিটি পায় ইংল্যান্ড। ডেনলি ও স্টোকস চতুর্থ উইকেটে যোগ করেন ৮৩ রান। এই জুটির ইতি ঘটে ডেনলির বিদায়ে। ১৮১ বলে ৭৪ রান করে টিম সাউদির বলে উইকেটরক্ষক ওয়াটলিংয়ের হাতে ক্যাচ দেন তিনি। দিনের বাকি সময়ে আর কোনো বিপদ হতে দেননি স্টোকস ও পোপ।

নিউজিল্যান্ডের হয়ে ২৮ রানে ২ উইকেট পান ডি গ্র্যান্ডহোম। একটি করে উইকেট ঝুলিতে নেন ওয়াগনার ও সাউদি। সারাদিনে দলটির চার পেসারই মূলত হাত ঘোরান। একমাত্র স্পিনার মিচেল স্যান্টনার করেন মাত্র ৫ ওভার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

(প্রথম দিন শেষে)

ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংস: ৯০ ওভারে ২৪১/৪ (বার্নস ৫২, সিবলি ২২, ডেনলি ৭৪, রুট ২, স্টোকস ৬৭*, পোপ ১৮*; বোল্ট ০/৬১, সাউদি ১/৪৬, ডি গ্র্যান্ডহোম ২/২৮, ওয়েগনার ১/৭৭, স্যান্টনার ০/২৪)।

Comments

The Daily Star  | English
Bangladesh lacking in remittance earning compared to four South Asian countries

Remittance hits eight-month high

In February, migrants sent home $2.16 billion, up 39% year-on-year

1h ago