দুর্দান্ত কোহলি, রানের পাহাড় গড়েও হারল উইন্ডিজ

তার আগের সেরা ছিল অপরাজিত ৯০ রান। ২০১৬ সালে অ্যাডিলেডে, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। সেটা ছাড়িয়ে আরেকটি চোখ জুড়ানো ইনিংস খেললেন বিরাট কোহলি। তার ৫৫ বলে হার না মানা ৯৪ রানে ভর করে ওয়েস্ট ইন্ডিজের রানের পাহাড় টপকে গেল ভারত।
virat kohli
ছবি: বিসিসিআই

তার আগের সেরা ছিল অপরাজিত ৯০ রান। ২০১৬ সালে অ্যাডিলেডে, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। সেটা ছাড়িয়ে আরেকটি চোখ জুড়ানো দুর্দান্ত ইনিংস খেললেন বিরাট কোহলি। তার ৫৫ বলে হার না মানা ৯৪ রানে ভর করে ওয়েস্ট ইন্ডিজের রানের পাহাড় টপকে গেল ভারত।

শুক্রবার (৬ ডিসেম্বর) হায়দরাবাদে ৮ বল হাতে রেখে সফরকারী উইন্ডিজকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে ভারত। ফলে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে স্বাগতিকরা।

টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে এই নিয়ে রেকর্ড ২৩তম বারের মতো পঞ্চাশোর্ধ্ব রানের ইনিংস খেলেছেন কোহলি। ২২টি পঞ্চাশোর্ধ্ব রানের ইনিংস আছে তারই স্বদেশী রোহিত শর্মার। প্রথম দিকে ধীরেসুস্থে ব্যাট চালালেও সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে কোহলির ব্যাটে উঠতে থাকে ঝড়। প্রথম ২০ বলে ২০ রান করা ভারতীয় দলনেতা ফিফটি পূরণ করেন ৩৫ বলে, ছক্কা মেরে। এরপর ক্যারিয়াবিয়ান বোলারদের নাকানি-চুবানি খাইয়ে পরের ১৫ বল থেকে তিনি আদায় করে নেন ৪৪ রান। কোহলি ম্যাচও শেষ করেন বল মাঠের বাইরে পাঠিয়ে। তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন লোকেশ রাহুল। তিনি ৪০ বলে করেন ৬২ রান।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ২০৭ রানের বিশাল সংগ্রহ দাঁড় করায় বর্তমান টি-টোয়েন্টি বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন উইন্ডিজ। ইনিংসের শুরুতে লেন্ডল সিমন্স আউট হলেও দলটির বাকি ব্যাটসম্যানরা চার-ছক্কার ফুলঝুরি ছোটান। ওপেনার এভিন লুইস মাত্র ১৭ বলে ৩ চার ও ৪ ছয়ে করেন ৪০ রান। তিনে নামা ব্র্যান্ডন কিং ২৩ বলে করেন ৩১ রান। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ২৬ বলে ৫১ রান যোগ করেন তারা।

এই দুজনের বিদায়ের পর আগ্রাসী ব্যাটিং জারি রাখেন শিমরন হেটমায়ার ও অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড। টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের প্রথম হাফসেঞ্চুরি তুলে নিয়ে হেটমায়ার ৪১ বলে করেন ৫৬ রান। তার ইনিংসে ছিল ২ চার ও ৪ ছয়। পোলার্ড ১ চারের সঙ্গে ৪ ছক্কা মেরে ১৯ বলে করেন ৩৭ রান। তাদের দুজনের চতুর্থ উইকেট জুটিতে আসে ৪২ বলে ৭১ রান।

শেষদিকে জেসন হোল্ডারের ৯ বলে অপরাজিত ২৪ ও দিনেশ রামদিনের ৭ বলে অপরাজিত ১১ রানে উইন্ডিজের সংগ্রহ পেরিয়ে যায় দুইশো। ভারতের হয়ে যুজবেন্দ্র চাহাল ৪ ওভারে ২ উইকেট নেন ৩৬ রান খরচায়। উইকেটের দেখা পান ওয়াশিংটন সুন্দর, দীপক চাহার আর রবীন্দ্র জাদেজাও। তরুণ পেসার দীপক ছিলেন খরুচে। ৪ ওভারে দেন ৫৬ রান।

লক্ষ্য তাড়ায় শুরু থেকেই রানের গতি বাড়িয়ে খেলার প্রচেষ্টা ছিল ভারতের। তবে চতুর্থ ওভারে ধাক্কা খায় তারা। ১০ বলে ৮ রান করে সাজঘরে ফেরেন টি-টোয়েন্টি সংস্করণের ক্রিকেটের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক রোহিত। এরপর জুটি বাঁধেন রাহুল ও কোহলি। ৬২ বলে ১০০ রান যোগ করে দলকে জয়ের ভিত পাইয়ে দেন তারা।

৩৭ বলে হাফসেঞ্চুরি ছুঁয়ে ফেলা ওপেনার রাহুল পরের দুই বলে টানা মারেন দুই ছক্কা। ফের উড়িয়ে মারতে গিয়ে লং-অফে ক্যাচ দেন তিনি। তার ইনিংসে ছিল ৫ চার ও ৪ ছয়।  এরপর পান্তের সঙ্গে ১৯ বলে ৪৮ রানের আরেকটি দারুণ জুটি গড়েন কোহলি। এর মধ্যে হাত খুলে ব্যাটিং শুরু করে দেন তিনি। পেসার কেসরিক উইলিয়ামসের করা ১৬তম ওভার থেকে কোহলি আদায় করে নেন ২৩ রান।

পান্ত বিদায় নেন ৯ বলে ১৮ রান করে। দ্রুত ফেরেন শ্রেয়াস আয়ার। তার বিদায়ের পর ৪ বলের মধ্যে খেলা শেষ করে দেন কোহলি। ২টি ডাবলের সঙ্গে মারেন সমান সংখ্যক ছয়। অপরপ্রান্তে শিভাম দুবে কেবলই দর্শক হয়ে উপভোগ করেন কোহলির নান্দনিক ব্যাটিং।

উইন্ডিজের বোলারদের মধ্যে খ্যারি পিয়েরে ৪ ওভারে সর্বোচ্চ ২ উইকেট নেন ৪৪ রানে। পোলার্ড পান উইকেটের স্বাদ। শেলডন কটরেল ৪ ওভারে ১ উইকেট নেন ২৪ রানে। তিনি ছাড়া বাকি সবাই ছিলেন খরুচে। সবচেয়ে বড় তোপটা দাগা হয় উইলিয়ামসের ওপর। ৩.৪ ওভারে ৬০ রান দেন তিনি। এলোমেলো লাইন-লেংথে ২৩টি অতিরিক্ত রানও ভারতকে উপহার দেন উইন্ডিজ বোলাররা।

আগামীকাল রবিবার থিরুভানানথাপুরামে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে মুখোমুখি হবে দুই দল। খেলা শুরু বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায়।

Comments

The Daily Star  | English
Bangladeshis consume 136 eggs a year, people in developed countries 400

Bangladeshis consume 136 eggs a year, people in developed countries 400

Experts say at a seminar on “Doctors' dialogue on right to protein”

1h ago