আ লীগের কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে ৯ মন্ত্রী বাদ

সরকার থেকে দলটিকে আলাদা করার প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে নয় মন্ত্রীর নাম।
AL logo
ছবি: সংগৃহীত

সরকার থেকে দলটিকে আলাদা করার প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে নয় মন্ত্রীর নাম।

বাদ যাওয়া মন্ত্রীরা হলেন: গণপূর্তমন্ত্রী এসএম রেজাউল করিম (আওয়ামী লীগের সাবেক আইনবিষয়ক সম্পাদক), বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সী (সাবেক অর্থবিষয়ক সম্পাদক), নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী (সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক), পানিসম্পদ উপ-মন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম (সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক), শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী (সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক), ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ (সাবেক ধর্মবিষয়ক সম্পাদক) এবং নারী ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরা (সাবেক নারীবিষয়ক সম্পাদক)।

এছাড়াও, শিল্প মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে থাকা নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন এবং শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বেগম মুন্নুজান সুফিয়ান বিগত কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য থাকলেও বর্তমান কমিটি থেকে বাদ পড়েছেন।

এরপরও চারজন মন্ত্রী কমিটিতে রয়ে গেছেন। তারা হলেন ওবায়দুল কাদের, হাসান মাহমুদ, আব্দুর রাজ্জাক ও ডা. দীপুমনি। সূত্র জানায়, জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে তাদের সম্পর্কে নতুন সিদ্ধান্ত আসতে পারে। সেসময় মন্ত্রীপরিষদে পরিবর্তনের সম্ভাবনাও রয়েছে।

উল্লেখ্য, দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের গতকাল (২৬ ডিসেম্বর) ধানমন্ডিতে দলীয় সভাপতির কার্যালয়ে পূর্ণাঙ্গ কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষণা করেন। ৮১ সদস্যের কমিটিতে এখনো সাতটি পদে কারো নাম ঘোষণা করা হয়নি।

সেই পদগুলো হলো: সাংগঠনিক সম্পাদক, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক, শিল্প-বাণিজ্যবিষয়ক সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ এবং তিনজন নির্বাহী সদস্য।

গত ২১ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের ২১তম ত্রিবার্ষিক জাতীয় সম্মেলনে কেন্দ্রীয় কমিটির ৪২ জনকে নির্বাচিত করা হয়।

সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নবমবারের মতো দলের সভাপতি এবং ওবায়দুল কাদেরকে দ্বিতীয়বারের মতো সাধারণ সম্পাদক হিসেবে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত করা হয়।

(সংক্ষেপিত, পুরো প্রতিবেদনটি পড়তে এই 9 ministers dropped from AL committee লিংকে ক্লিক করুন)

Comments

The Daily Star  | English