পদ্মাসেতু ৩ কিলোমিটার দৃশ্যমান

বছরের শেষ দিনে আজ (৩১ ডিসেম্বর) পদ্মাসেতুতে বসেছে ২০তম স্প্যান। সেতুর মাওয়া প্রান্তের ১৮ ও ১৯ নম্বর খুঁটিতে ‘৩এফ’ নম্বরের এই স্প্যানটি বসানো হয়। এর ফলে বহুল প্রত্যাশিত পদ্মাসেতু তিন কিলোমিটার দৃশ্যমান হলো।
Padma Bridge
৩১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২০তম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে বহুল প্রত্যাশিত পদ্মাসেতু তিন কিলোমিটার দৃশ্যমান হয়। ছবি: স্টার

বছরের শেষ দিনে আজ (৩১ ডিসেম্বর) পদ্মাসেতুতে বসেছে ২০তম স্প্যান। সেতুর মাওয়া প্রান্তের ১৮ ও ১৯ নম্বর খুঁটিতে ‘৩এফ’ নম্বরের এই স্প্যানটি বসানো হয়। এর ফলে বহুল প্রত্যাশিত পদ্মাসেতু তিন কিলোমিটার দৃশ্যমান হলো।

আজ (৩১ ডিসেম্বর) দুপুর ১টা ২ মিনিটে সেতুর ২০তম স্প্যানটি বসানো হয়েছে।

সেতু প্রকল্পের সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবীর বলেন, “আজ ২০তম স্প্যান সেতুর মাওয়া প্রান্তে ১৮ ও ১৯ নম্বর খুঁটির ওপর বসানো হয়েছে। এখন সেতুর তিন কিলোমিটার দৃশ্যমান।”

এ নিয়ে চলতি বছরে মোট ১৪টি স্প্যান বসানো হলো। বিজয়ের মাস ডিসেম্বরে বসানো হয়েছে তিনটি স্প্যান।

এর আগে, সকাল সাড়ে ৯টায় মাওয়ার কুমারভোগের বিশেষায়িত কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে স্প্যানটি নিয়ে খুঁটির দিকে রওয়ানা দেয় ৩ হাজার ৬০০ টন ধারণ ক্ষমতার ভাসমান ক্রেন ‘তিয়ান-ই’। প্রায় ৪০ মিনিটের মাথায় সেটি পৌঁছে যায় খুঁটির কাছে।

এসব তথ্য জানিয়ে নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান আব্দুল কাদের বলেন, “এখন প্রতি মাসে তিনটি স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা রয়েছে। এই শিডিউল মেনে স্প্যান বসাতে পারলে আগামী বছরের জুলাই নাগাদ ৪১টি স্প্যান বসানো শেষ হবে।

পদ্মা সেতুর মোট ৪১টি স্প্যানের মধ্যে চীন থেকে মাওয়ায় এসেছে ৩৩টি। এর মধ্যে ২০টি স্প্যান স্থায়ীভাবে বসে গেছে। আরও দুইটি স্প্যান চীন থেকে বাংলাদেশের পথে রওনা হয়েছে। ছয়টি স্প্যান তৈরির কাজ চীনে চলমান আছে। আগামী বছরের মার্চের মধ্যে সব স্প্যান দেশে চলে আসবে বলে জানান সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

উল্লেখ্য, ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের দ্বিতল সেতুটি কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে। চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না রেলওয়ে মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড মূল সেতু নির্মাণের কাজ করছে।

Comments

The Daily Star  | English
Forex reserves rise by $180 million in a week

Forex reserves rise by $180 million in a week

Reserves hit $18.61 billion on May 21, up from $18.43 billion on May 15

2h ago