‘রাজনৈতিক’ দীপিকাকে ঘিরে টুইটারে পক্ষে-বিপক্ষে ঝড়

জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ে (জেএনইউ) হামলার শিকার শিক্ষার্থীর পাশে দাঁড়ানোয় দীপিকা পাডুকোনকে ঘিরে টুইটারে ঝড় বইছে। প্রশংসার পাশাপাশি সমালোচনাও করছেন অনেকে।
Deepika-1.jpg
জেএনইউয়ে গিয়ে আহত ছাত্র নেতা ঐশী ঘোষের সঙ্গে দেখা করেছেন দীপিকা পাড়ুকোন। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ে (জেএনইউ) হামলার শিকার শিক্ষার্থীর পাশে দাঁড়ানোয় দীপিকা পাডুকোনকে ঘিরে টুইটারে ঝড় বইছে। প্রশংসার পাশাপাশি সমালোচনাও করছেন অনেকে।

হিন্দুত্ববাদীদের হামলায় জেএনইউয়ে আহত ছাত্র নেতা ঐশী ঘোষের সঙ্গে মঙ্গলবার দেখা করেন দীপিকা। ঐশীর সঙ্গে দীপিকার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। টুইটারে নিজের প্রোফাইলের ছবি বদলে ছাত্র সংসদের সভানেত্রী ঐশী ঘোষকে কুর্নিশ করছেন এমন ছবি পোস্টও করেন তিনি।

এরপর থেকেই টুইটারে দীপিকার সাহসিকতায় মুখরিত হয়েছেন সাধারণ মানুষসহ সিনেমাপাড়ার অনেকে। হ্যাশট্যাগ সাপোর্ট (#Support) লিখে দীপিকার পক্ষে সমর্থন জানান তারা।

অন্যদিকে, দীপিকার বিপক্ষেও সরগরম হয়ে আছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো। হ্যাশট্যাগ শেইম #Shame লিখে প্রতিবাদের পাশাপাশি #BoycottChhapaak লিখে মুক্তির অপেক্ষায় থাকা তার অভিনীত ‘ছপক’ ছবিটি বয়কটের ডাকও দিয়েছেন দীপিকা বিরোধীরা।

প্রবীণ অভিনেত্রী শাবানা আজমি দীপিকাকে সমর্থন জানিয়ে মন্তব্য করেন, “পদ্মাবতের মুক্তির সময় যখন তাকে ক্রমাগত আক্রমণ করা হচ্ছিল, তখন সে বুঝেছিল ‘আক্রান্ত’ শব্দের অর্থ। তাই জেএনইউর আক্রান্তদের পশে দাঁড়িয়ে দীপিকা খানিকটা সেই ক্ষতে মলম লাগালেন। তোমার আরও মানসিক জোর বাড়ুক।” 

এদিকে বিজেপি নেতা তেজিন্দর সিং বাগ্গা-সহ অনেকে সরাসরি দীপিকার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। তাদের বক্তব্য, “আমাদের উচিত ওর ছবি বয়কট করা। যে টুকরে-টুকরে গ্যাং আর আফজল গুরুর সমর্থকদের প্রতি সহমর্মী তার সিনেমা আমরা কেন দেখব?”

আরও পড়ুন:

আন্দোলনরতদের পাশে দীপিকা পাড়ুকোন

Comments

The Daily Star  | English

Mirpur-10 intersection: Who will control unruly bus drivers?

A visit there is enough to know why people suffer daily from the gridlock: a mindless completion of busses to get more passengers

1h ago