শেষ পাঁচ ওভারে পথ হারালো বাংলাদেশ

প্রথম ইনিংস শেষে নাজমুল হোসেন শান্ত বলেছিলেন দ্বিতীয় ইনিংসে ভালো ব্যাট করবে বাংলাদেশ। শুরুতে ইঙ্গিতও দিচ্ছিল তেমনই। ২ উইকেটে এক সময় টাইগারদের সংগ্রহ ছিল ১২৪ রান। কিন্তু এরপরই খেই হারিয়ে বসে তারা। নাসিম শাহর বোলিং তোপে পাঁচ ওভারের ব্যবধানে স্কোরবোর্ডে ২ রান যোগ করতেই নেই ৪ উইকেট। হ্যাট্রিকই তুলে নেন নাসিম। ফলে তৃতীয় দিন শেষেই ইনিংস ব্যবধানে হার দেখছে বাংলাদেশ।

প্রথম ইনিংস শেষে নাজমুল হোসেন শান্ত বলেছিলেন দ্বিতীয় ইনিংসে ভালো ব্যাট করবে বাংলাদেশ। শুরুতে ইঙ্গিতও দিচ্ছিল তেমনই। ২ উইকেটে এক সময় টাইগারদের সংগ্রহ ছিল ১২৪ রান। কিন্তু এরপরই খেই হারিয়ে বসে তারা। নাসিম শাহর বোলিং তোপে পাঁচ ওভারের ব্যবধানে স্কোরবোর্ডে ২ রান যোগ করতেই নেই ৪ উইকেট। হ্যাট্রিকই তুলে নেন নাসিম। ফলে তৃতীয় দিন শেষেই ইনিংস ব্যবধানে হার দেখছে বাংলাদেশ।

অথচ বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুটা ছিল বেশ ভালো। ৩৯ রানের ওপেনিং জুটিতে বেশ সাবলীলই দেখাচ্ছিল তাদের। সাইফ হাসানের বিদায়ে ভাঙে জুটি। এরপর খুব বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি আরেক ওপেনার তামিম ইকবালও। ৫৩ রানে দুই ওপেনারকে হারানোর পর তৃতীয় উইকেট জুটিতে দৃঢ়তা দেখিয়েছিলেন নাজমুল হোসেন শান্ত ও অধিনায়ক মুমিনুল হক।

কিন্তু এবারও সেই একই গল্প। আবারো উইকেটে সেট হয়ে ইনিংস না করতে পারার আক্ষেপ। সফল রিভিউতে শান্তকে ফেরান নাসিম। আর এরপরই তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে টাইগারদের ব্যাটিং। হ্যাট্রিকই তুলে নেন নাসিম। পরের বলে নাইটওয়াচম্যান তাইজুল ইসলামকেও ফেরান এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে। আর মাহমুদউল্লাহকে স্লিপে হারিস সোহেলের তালুবন্দি করে হ্যাটট্রিক আদায় করে নেন এ পেসার।

তবে বাংলাদেশ শিবিরে আরও বড় ধাক্কাটা দেন ইয়াসির শাহ। পাঁচ উইকেট হারিয়ে ধুকতে থাকা দল তখন তাকিয়েছিল মোহাম্মদ মিঠুনের ব্যাটে। আগেই ইনিংসেই দারুণ ধৈর্যশীল এক ইনিংসে টাইগারদের ম্যান রক্ষা করেছিলেন তিনি। কিন্তু এদিন ইয়াসিরের কিছুটা জোরের উপর রাখা বলে বোল্ড হয়ে গেলে বড় বিপদে পড়ে বাংলাদেশ।

তবে এক প্রান্ত আগলে রেখে এখনও টিকে আছেন অধিনায়ক মুমিনুল। ৮৭ বলে ৩৭ রান করে অপরাজিত আছেন তিনি। এছাড়া শান্ত ৩৮ ও তামিম ৩৪ রান করেন। পাকিস্তানের পক্ষে ২৬ রানের খরচায় ৪টি উইকেট তুলে নিয়েছেন নাসিম।

শুধু দ্বিতীয় ইনিংস নয় দিনের শুরুটাই দারুণ ছিল বাংলাদেশের। দিনের শুরুতেই আগের দিনে সেঞ্চুরি তুলে নেওয়া ববর আজমকে ফিরিয়ে দিন শুরু করে টাইগাররা। আরেক অপরাজিত ব্যাটসম্যান আসাদ শফিককেও খুব বেশি আগাতে দেয়নি। নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট তুলে নিতে থাকে তারা। ফলে ৩ উইকেটে ৩৪২ রান নিয়ে শুরু করা পাকিস্তান এদিন ১০৩ রান করে শেষ ৭ উইকেট হারায়। ফলে ৪৪৫ রান তুলে অলআউট হয়ে যায় দলটি।

তবে এক প্রান্ত ধরে রেখে ছয় নম্বরে নামা হারিস সোহেল ব্যাট হাতে ভোগান টাইগারদের। ৭৫ রানের এক ইনিংসে লিড বড় করেন তিনি। ৭টি চার ও ২টি ছক্কায় নিজের ইনিংস সাজান এ ব্যাটসম্যান। বাংলাদেশের হয়ে ৩টি করে উইকেট তুলে নিয়েছেন রুবেল হোসেন ও আবু জায়েদ রাহী। এছাড়া ২টি উইকেট পান তাইজুল ইসলাম। ইবাদতের শিকার ১টি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ২৩৩

পাকিস্তান প্রথম ইনিংস: ১২২.৫ ওভারে ৪৪৫ (মাসুদ ১০০, আবিদ ০, আজহার ৩৪, বাবর ১৪৩, শফিক ৬৫, হারিস ৭৫, রিজওয়ান ১০, ইয়াসির ৫, আফ্রিদি ৩, আব্বাস ১* নাসিম ২; ইবাদত ১/৯৭, আবু জায়েদ ৩/৮৬, রুবেল ৩/১১৩, তাইজুল ২/১৩৯, মাহমুদউল্লাহ ০/৬)।

বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংস: ৪৫ ওভারে ১২৬/৬ (তামিম ৩৪, সাইফ ১৬, শান্ত ৩৮, মুমিনুল ৩৭*, তাইজুল ০, মাহমুদউল্লাহ ০, মিঠুন ০, লিটন ০*; আফ্রিদি ০/৩৫, আব্বাস ০/২০, নাসিম ৪/২৬, ইয়াসির ২/৩৩, আসাদ ০/১২)।  

Comments

The Daily Star  | English

PM visits areas devastated by Cyclone Remal

Prime Minister Sheikh Hasina today visited the most affected areas in the country's south by Cyclone Remal

2h ago