আন্তর্জাতিক

করোনাভাইরাস: ৫ বন্দর ঘুরে অবশেষে নোঙর ক্রুজ শিপের

দুই হাজারেরও বেশি যাত্রী নিয়ে এশিয়ার পাঁচটি বন্দরে নোঙর করতে চেয়েও পারেনি দ্য ওয়েস্টারডাম ক্রুজ শিপ। অবশেষে আজ বৃহস্পতিবার কম্বোডিয়ার একটি বন্দরে ঠাঁই মিলেছে জাহাজটির।
ছবি: রয়টার্স

দুই হাজারেরও বেশি যাত্রী নিয়ে এশিয়ার পাঁচটি বন্দরে নোঙর করতে চেয়েও পারেনি দ্য ওয়েস্টারডাম ক্রুজ শিপ। অবশেষে আজ বৃহস্পতিবার কম্বোডিয়ার একটি বন্দরে ঠাঁই মিলেছে জাহাজটির।

ক্রুজ শিপের যাত্রী যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাঞ্জেলা জোনস বলেন, “সকালে মাটির দেখা পেয়ে মনে হচ্ছিল এ এক অভূতপূর্ব দৃশ্য। মনে হচ্ছিল এটি কী সত্যি!”

এর আগে করোনাভাইরাস আতঙ্কে কোনো বন্দরেই নোঙর করতে দেয়া হয়নি ক্রুজ শিপটিকে।

মঙ্গলবার থাইল্যান্ডে নোঙর করতে চেয়েছিল ওয়েস্টারডাম, তবে অনুমতি মেলেনি। থাই নৌবাহিনীর একটি জাহাজের প্রহরায় ক্রুজশিপটিকে থাই উপসাগর পার করে দেয়া হয়।

একইভাবে বন্দরে নোঙরের অনুমতি দেয়নি তাইওয়ান, গুয়াম, ফিলিপাইন এবং জাপান।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক হল্যান্ডের ক্রুজ শিপ দ্য ওয়েস্টারডাম ১ ফেব্রুয়ারি ১ হাজার ৪৫৫ যাত্রী ও ৮০২ জন ক্রু নিয়ে যাত্রা শুরু করে। দুই সপ্তাহ সাগরে ভাসার রশদ ছিল জাহাজটিতে।

জাহাজের ক্যাপ্টেন ভিনসেন্ট স্মিট জানিয়েছেন, কম্বোডিয়ার সিহানোকভিলে বন্দরে আরোহীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে। তারপরই জাহাজ ছাড়ার অনুমতি পাবেন যাত্রীরা। কম্বোডিয়ার রাজধানী নমপেন থেকে যাত্রীরা যার যার দেশে ফিরতে পারবেন বলেও জানান তিনি।

জাহাজটিকে বন্দরে ভিড়তে দেয়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রস ঘেব্রেইসাস।

তিনি বলেন, “এটি আন্তর্জাতিক সৌহার্দ্যের এক অনন্য দৃষ্টান্ত যা আমরা বার বার আহ্বান করে আসছি”।

এদিকে, জাপানের ইয়োকোহামায় কোরায়ান্টাইন করে রাখা ক্রুজ শিপ ডায়মন্ড প্রিন্সেসের ৩৭০০ যাত্রীর মধ্যে ২০০ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত। শুক্রবার শেষ হচ্ছে ক্রুজ শিপটির কোয়ারান্টাইন সময়।

 

 

 

Comments