আন্তর্জাতিক

বর্বরতার ইসরাইলি রূপ

গাজায় ইসরাইলি সেনা ও ফিলিস্তিনিদের মধ্যে হামলা-পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটেছে। এর কয়েক ঘণ্টা পরে নিহত এক ফিলিস্তিনির মরদেহ বুলডোজারে পিষে তুলে নিয়ে যাওয়ার ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।
ইসরাইলি ভূখণ্ডের দিকে ২০টিরও বেশি রকেট হামলা চালানো হয়েছে বলে দাবি করেছে দেশটির সেনাবাহিনী। ছবি: এএফপি

গাজায় ইসরাইলি সেনা ও ফিলিস্তিনিদের মধ্যে হামলা-পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটেছে। এর কয়েক ঘণ্টা পরে নিহত এক ফিলিস্তিনির মরদেহ বুলডোজারে পিষে তুলে নিয়ে যাওয়ার ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

গতকাল রবিবার সন্ধ্যায় ইসরাইলি ভূখণ্ডের দিকে ২০টিরও বেশি রকেট হামলা চালানো হয়েছে বলে ইসরাইলি সেনাবাহিনীর বরাত দিয়ে খবর প্রকাশ করেছে সিএনএন।

এই হামলার জন্য ইসরাইলি সেনারা দায়ী করছে ইসলামিক জিহাদ গ্রুপকে। ইসলামিক জিহাদ তাদের ওয়েবসাইটে এই হামলার দায় স্বীকার করেছে।

হামলার ঘটনাটি ভিডিও করেছেন স্থানীয় এক সাংবাদিক। সেই ভিডিওতে দেখা যায়, ইসরায়েলি সেনারা গাজা উপত্যকার ভেতরে এক গুলিবিদ্ধ ফিলিস্তিনির দেহ বুলডোজার দিয়ে পিষে দিতে থাকে। এরপর সেই মরদেহটি বুলডোজারে তুলে নিয়ে যায়।

নিহত ব্যক্তির নাম মোহাম্মদ আল-নাইম (২৭)। তিনি ইসলামিক জিহাদের কুদস ব্রিগেডের সদস্য ছিলেন।

নিহত আল-নাইমের সঙ্গীরা তাকে উদ্ধারের চেষ্টা করলেও সফল হননি। তবে তারা অন্য আহতদের সরিয়ে নিতে সক্ষম হন।

এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী নাফতালি বেনেট সেনাদের সমর্থন করে বলেছেন, “আমি আইডিএফের পাশেই আছি। তারা একজন সন্ত্রাসীকে হত্যা করেছে এবং তারা মরদেহ নিয়ে এসেছে। এভাবেই আমাদের প্রতিক্রিয়া দেখানো উচিত এবং এভাবেই আমরা প্রতিক্রিয়া দেখিয়ে যাব। সন্ত্রাসীদের মোকাবেলায় আমরা আমাদের সর্বোচ্চ শক্তি ব্যবহার করবো।”

Comments