মাশরাফি ভাইয়ের অধীনে খেলতে পারা সৌভাগ্যের: নাঈম

প্রথমবারের মাশরাফির নেতৃত্বে খেলার সুযোগ পাচ্ছেন উদীয়মান টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ নাঈম শেখ। আর সেকারণে নিজেকে বড় ভাগ্যবান মনে করছেন এ তরুণ।
Mashrafe Mortaza
ছবি: এএফপি

বয়স ৩৬ পেরিয়েছে। ক্যারিয়ারের প্রায় অন্তিম লগ্নে উপস্থিত বাংলাদেশ দলের ওয়ানডে সংস্করণের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। তার অবসর নিয়ে দোলাচল থাকলেও সিলেটে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া জিম্বাবুয়ে সিরিজে খেলছেন তিনি। সেখানে প্রথমবারের তার নেতৃত্বে খেলার সুযোগ পাচ্ছেন উদীয়মান টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ নাঈম শেখ। আর সেকারণে নিজেকে বড় ভাগ্যবান মনে করছেন এ তরুণ।

মাশরাফিকে বাংলাদেশ দলের সর্বকালের সেরা অধিনায়ক বললে কোনো ভুল হবে না। তার অধীনেই হারের বৃত্তে থাকা দলটি ঘুরে দাঁড়িয়েছিল ২০১৫ সালে। বর্তমান বিশ্বে বাংলাদেশ ওয়ানডে দলকে বাকিদের সমীহ করার মূলে রয়েছে মাশরাফির দক্ষ নেতৃত্ব। এই পেসারের অধীনে খেলতে পারা তাই দেশের প্রত্যেক খেলোয়াড়ের জন্যই আলাদা কিছু। নাঈমও অকপটে তাই বলেছেন, ‘ভাগ্যবান আমি, মাশরাফি ভাইয়ের অধীনে খেলতে পারছি।’

Mohammad Naim Sheikh

বাংলাদেশ জাতীয় দলে মূলত টি-টোয়েন্টি সংস্করণ দিয়ে নজর কাড়েন বাঁহাতি নাঈম। কিন্তু সে সংস্করণে খেলেন না মাশরাফি। তবে হুট করেই তার নেতৃত্বে খেলার সুযোগ চলে এসেছে নাঈমের। ওয়ানডের নিয়মিত ওপেনার সৌম্য সরকার বিয়ের পিঁড়িতে বসায় ছুটিতে আছেন। তাই বিকল্প ওপেনার হিসেবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আসন্ন তিন ম্যাচের সিরিজে থাকছেন নাঈম। পুরো বিষয়টা তার কাছে স্বপ্নের মতো মনে হচ্ছে, ‘এত কিছু তো স্বপ্নেও দেখতাম না। জাতীয় দলে খেলব, এত কিছু চিন্তা করতাম না। বয়সভিত্তিক ক্রিকেট থেকেই ধাপে ধাপে চিন্তা করেছি, কীভাবে খেলা উচিত।’

সাদা বলের খেলা সবসময়ই উপভোগ করেন নাঈম। মূল একাদশে সুযোগ পেলে তাই সেরাটা উজাড় করে দেওয়ার অঙ্গীকার করেছেন এ তরুণ, ‘সাদা বলের খেলা খুব উপভোগ করি। লাল বলে সম্প্রতি খুব একটা ভালো সময় যায়নি। বাড়িতে গিয়ে সাদা বলে কাজ করেছি। কিছু জিনিস আমাকে বলে দেওয়া হয়েছে কাজ করার জন্য। এসব নিয়েই কাজ করছি। প্রস্তুতি সবমিলিয়ে ভালো। মূল একাদশে যদি সুযোগ পাই, আমার শতভাগ দেওয়ার চেষ্টা করব।’

Comments

The Daily Star  | English

Quota protests: Tensions run high on DU campus

Tensions flared up at the Dhaka University campus last night as hundreds of students stormed out of their dormitories to protest what they said was a “disparaging comment” by Prime Minister Sheikh Hasina earlier in the afternoon

1h ago