খেলা

বাঁ পায়ের আঙুলের হাড়ে চোট পেলেন ইমরুল

অনুশীলনে ফিল্ডিং করার সময় চোট পেয়েছেন তিনি। পরে দেখা গেছে, চিড় ধরেছে তার বাঁ পায়ের কনিষ্ঠ আঙুলের হাড়ে।
Imrul Kayes
ফাইল ছবি

ভারত সফরে বাজে পারফরম্যান্সে কারণে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়েছেন। এরপর বাদ গেছেন বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকেও। দুঃসময়ের শেষ নয় এখানেই, নতুন করে আবার চোট পেয়েছেন ইমরুল কায়েস। এতে তাকে মাঠের বাইরে থাকতে হবে কমপক্ষে এক মাস। তাই আসন্ন ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের শুরুর কয়েকটি রাউন্ডে খেলতে পারবেন না বাঁহাতি এই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান।

প্রিমিয়ার লিগে এবার শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের হয়ে খেলবেন ইমরুল। এর মধ্যেই শুরু হয়ে গেছে দলটির অনুশীলন। সোমবার (৯ মার্চ) অনুশীলনেই ফিল্ডিং করার সময় চোট পেয়েছেন তিনি। পরে দেখা গেছে, চিড় ধরেছে তার বাঁ পায়ের কনিষ্ঠ আঙুলের হাড়ে।

চোট পাওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই হতাশ ইমরুল দ্য ডেইলি স্টারকে জানালেন, ‘শেখ জামালের মাঠ, একটু স্যাঁতস্যাঁতে ছিল তো... ফিল্ডিং করতে গিয়ে লেগেছে। পা পিছলে গোড়ালি মচকে গিয়েছিল। এক্স-রে করার পর জানলাম, হাড়ে চিড় ধরা পড়েছে। তারপর ব্যান্ডেজ করে দিয়েছে।’

ঠিক কবে নাগাদ ফিরতে পারেন জানতে চাইলে অভিজ্ঞ ব্যাটার বললেন, ‘সাধারণত দুই সপ্তাহ লাগে এই ধরনের চোট ঠিক হতে। তবে আমি খেলোয়াড় হওয়ায় ডাক্তার বলেছেন, তিন সপ্তাহ ব্যান্ডেজ রাখতে হবে। এরপর এক সপ্তাহ বিশ্রাম নিতে হবে। মানে এক মাসের ধাক্কা।’

দলে ফেরার মঞ্চ হিসেবে প্রিমিয়ার লিগকে বেছে নিয়ে প্রস্তুত হচ্ছিলেন ইমরুল। এর আগে সবশেষ বিপিএলেও তিনি খেলেছিলেন বেশ। কিন্তু অনাকাঙ্ক্ষিত চোটে ফের লক্ষ্য থেকে পিছিয়ে যাওয়ায় আক্ষেপ ফুটে উঠল তার কথায়, ‘আমার খুব খারাপ লাগছে। বিপিএলে ভালো করেছিলাম। এবার আমি লিগটা অনেক ফোকাস করেছিলাম। অনেক সিরিয়াস ছিলাম যে, এবার প্রিমিয়ার লিগটা ভালো করব। হলো না, এখন কী করার! ভাগ্যের উপর কিছু করার নেই। পরে যে কয়টা ম্যাচ সুযোগ পাই, চেষ্টা করব কাজে লাগাতে। এর বেশি কী আর করব।’

চোট পাওয়ার আগে কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়ার দুঃসংবাদও জেনেছেন ইমরুল। এ নিয়ে অবশ্য তেমন কিছু বলতে চাইলেন না তিনি। তবে বাদ পড়লে কী কী ঘাটতি তৈরি হয় তা বোঝানোর চেষ্টা করলেন বাঁহাতি ওপেনার, ‘কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকলে ভালো লাগে। এতে কী হয়, টাচে থাকা যায়। না থাকলে অনেক সময় অনেক সুবিধা পাওয়া যায় না জাতীয় দলের। যেমন- নেট সুবিধা, ইনডোরের সুবিধা। তখন ওই জায়গা থেকে নিজেকে মোটিভেটেড রাখাও কঠিন হয়ে যায়।’

লম্বা আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে অনেকবার বাদ পড়েছেন, দলে ফিরেও এসেছেন। এবারও হাল না ছেড়ে দিয়ে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার আত্মবিশ্বাস তার কণ্ঠে, ‘তারপরও তো... এর আগেও আমি বাদ পড়েছি। আবার ফিরেও এসেছি।’

Comments

The Daily Star  | English
Bank mergers in Bangladesh

Bank mergers: All dimensions must be considered

In general, five issues need to be borne in mind when it comes to bank mergers in Bangladesh.

10h ago