শুরুতে বাদ পড়া সৌম্য ‘এ প্লাস’ গ্রেডে

গত বছর কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ছিলেনই না। তবে সাম্প্রতিক সময়ে যে পারফরম্যান্স করেছিলেন তাতে এবার ঢুকবেন এমনটা প্রত্যাশিতই ছিল। কিন্তু তালিকা প্রকাশের পর দেখা গেল এবারও নেই সৌম্য সরকার। স্বাভাবিকভাবেই কিছুটা হতাশ হয়েছিলেন এ তারকা। কিন্তু এদিন পরই জানা যায় ভুল বশত তালিকা বাদ পড়েছে তার নাম। পরে তালিকায় তো ঢুকলেনই, দেখা গেল এক লাফে সাদা বলের শীর্ষ ক্যাটেগরিতে আছেন তিনি। পারিশ্রমিক মাসে ৪ লাখ টাকা।
Soumya Sarkar
ফাইল ছবি

গত বছর কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ছিলেনই না। তবে সাম্প্রতিক সময়ে যে পারফরম্যান্স করেছিলেন তাতে এবার ঢুকবেন এমনটা প্রত্যাশিতই ছিল। কিন্তু তালিকা প্রকাশের পর দেখা গেল এবারও নেই সৌম্য সরকার। স্বাভাবিকভাবেই কিছুটা হতাশ হয়েছিলেন এ তারকা। কিন্তু এদিন পরই জানা যায় ভুল বশত তালিকা বাদ পড়েছে তার নাম। পরে তালিকায় তো ঢুকলেনই, দেখা গেল এক লাফে সাদা বলের শীর্ষ ক্যাটেগরিতে আছেন তিনি। পারিশ্রমিক মাসে ৪ লাখ টাকা।

রোববার কেন্দ্রীয় চুক্তির ১৬ ক্রিকেটারের নাম প্রকাশ করেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। পরে সে তালিকায় যোগ করা হয় সৌম্যর নাম। জানিয়েছিলেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়ে মোট ১৭ জনের তালিকায় দেয় বিসিবি। পাশপাশি জানিয়ে দেওয়া হয় কে আছেন কোন ক্যাটেগরিতে। নিয়ম অনুযায়ী, দুই ক্যাটেগরিতে যারা আছেন, তারা দুটির পুরো অর্থ পাবেন না। নিজের ওপরে থাকা ক্যাটেগরির পুরো অর্থ পাবেন, আর অপর ক্যাটেগরির পাবেন অর্ধেক।

আর সে নিয়মে সবচেয়ে বেশি বেতন পাবেন ওয়ানডে সংস্করণের নতুন অধিনায়ক তামিম ইকবাল খান ও উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। নতুন গ্রেডিং অনুযায়ী তিনি বেতন পাবেন মাসিক ৬ লাখ টাকা করে। এ প্লাসে থাকা এ দুই তারকার এর আগে বেতন ছিল মাসে ৪ লাখ টাকা। তবে ওয়ানডে  অধিনায়ক হওয়ায় তামিম অধিনায়ক ভাতা হিসেবে বাড়তি পাবেন ৩০ হাজার টাকা, গত বছর বেশি ম্যাচ খেলায় মুশফিকের বাড়তি পাওনা ২০ হাজার টাকা। 

এরপর সৌম্যর সঙ্গে সাদা বলের শীর্ষ ক্যাটেগরিতে থাকা মাহমুদউল্লাহ দুইজনের পারিশ্রমিক চার লাখ টাকা করে। এ দুইজনের কেউ নেই লাল বলের চুক্তিতে। মাহমুদউল্লাহর অবশ্য অধিনায়ক ভাতাও যোগ হবে। টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক আছেন শুধু লাল বলের চুক্তিতে। ‘এ’ গ্রেডের তিনি একমাত্র প্রতিনিধি পাবেন মাসিক তিন লাখ টাকা। সেইসঙ্গে টেস্ট অধিনায়কের ভাতাও পাবেন তিনি।  তিন লাখ করে পাবেন লাল-সাদা দুই চুক্তিতে থাকা লিটন কুমার দাস ও মেহেদী হাসান মিরাজও। লাল বলে বি ক্যাটেগরিতে থাকা তাইজুল ইসলাম পাবেন মোট আড়াই লাখ টাকা।

শুধু সাদা বলের চুক্তিতে থাকা মোস্তাফিজুর রহমান আছেন বি গ্রেডে। পারিশ্রমিক দুই মাসিক দুই লাখ টাকা। নাজমুল হোসেন শান্ত দুটিতেই আছেন ‘ডি’ গ্রেডে। প্রতি মাসে তিনি পাবেন দেড় লাখ করে।

ক্যাটেগরি এ প্লাস: (মাসিক পারিশ্রমিক ৪ লাখ)

লাল বল: মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবাল

সাদা বল: মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সৌম্য সরকার

ক্যাটেগরি এ: (মাসিক পারিশ্রমিক ৩ লাখ)

লাল বল: মুমিনুল হক

সাদা বল: নেই

ক্যাটেগরি বি: (মাসিক পারিশ্রমিক ২ লাখ)

লাল বল: লিটন দাস, মেহেদী হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলাম

সাদা বল: লিটন দাস, মেহেদী হাসান মিরাজ ও মোস্তাফিজুর রহমান

ক্যাটেগরি সি: (মাসিক পারিশ্রমিক দেড় লাখ)

লাল বল: নেই

সাদা বল: মোহাম্মদ মিঠুন ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন

ক্যাটেগরি ডি: (মাসিক পারিশ্রমিক ১ লাখ)

লাল বল: মোহাম্মদ মিঠুন, নাজমুল হোসেন শান্ত, নাঈম হাসান, আবু জায়েদ চৌধুরী ও ইবাদত হোসেন চৌধুরী

সাদা বল: তাইজুল ইসলাম, নাজমুল হোসেন শান্ত, আফিফ হোসেন ও মোহাম্মদ নাঈম শেখ

Comments

The Daily Star  | English
Will the Buet protesters’ campaign see success?

Ban on student politics: Will Buet protesters’ campaign see success?

One cannot help but note the irony of a united campaign protesting against student politics when it is obvious that student politics is very much alive on the Buet campus

8h ago