আর্জেন্টিনা দলে ম্যাক আলিস্তার-নিকোলাস, নেই দি মারিয়া-ইকার্দি

বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে ইকুয়েডর ও বলিভিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের জন্য দল ঘোষণা করেছে আর্জেন্টিনা। ২৩ সদস্যের স্কোয়াডে চমক হয়ে এসেছে আলেক্সিস ম্যাক আলিস্তার ও নিকোলাস গঞ্জালেজের অন্তর্ভুক্তি।
mac allister
ম্যাক আলিস্তার (ডানে)। ছবি: এএফপি

বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে ইকুয়েডর ও বলিভিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের জন্য দল ঘোষণা করেছে আর্জেন্টিনা। ২৩ সদস্যের স্কোয়াডে চমক হয়ে এসেছে আলেক্সিস ম্যাক আলিস্তার ও নিকোলাস গঞ্জালেজের অন্তর্ভুক্তি।

মঙ্গলবার (১০ মার্চ) ঘোষিত দলে আর্জেন্টাইন কোচ লিওনেল স্কালোনি রাখেননি প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি) দুই তারকা মাউরো ইকার্দি ও অ্যাঙ্গেল দি মারিয়াকে। প্রত্যাশিতভাবেই জায়গা পেয়েছেন আক্রমণভাগের তিন তারকা লিওনেল মেসি, সার্জিও আগুয়েরো ও পাওলো দিবালা।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব ব্রাইটন অ্যান্ড হোভ অ্যালবিয়নে খেলেন ম্যাক আলিস্তার। গেল বছর আর্জেন্টিনার হয়ে দুটি ম্যাচ খেলেছিলেন তিনি। কিন্তু আশানুরূপ পারফর্ম করতে না পারায় বাদ পড়ে গিয়েছিলেন। ২১ বছর বয়সী অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার ফিরেছেন আবার।

জার্মান ক্লাব ফুটবলের দ্বিতীয় স্তরের দল স্টুটগার্টের স্ট্রাইকার নিকোলাসকেও ফেরানো হয়েছে। ২০১৯ সালে জাতীয় দলে তিন ম্যাচ খেলে গোল করতে পারেননি তিনি।

আগামী ২৭ মার্চ ঘরের মাঠ লা বোম্বোনেরায় ইকুয়েডরের মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা। এই ম্যাচ দিয়ে ২০২২ কাতার বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব শুরু করবে আলবিসেলেস্তেরা। এরপর ১ এপ্রিল দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা লা পাজে বলিভিয়ার আতিথ্য নেবে।

গেল বছর কোপা আমেরিকার তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে চিলির বিপক্ষে লাল কার্ড দেখেছিলেন বার্সেলোনা ফরোয়ার্ড মেসি। সেকারণে ইকুয়েডরের বিপক্ষে ম্যাচে খেলা হবে না আর্জেন্টিনা অধিনায়কের।

nicolas gonzalez
নিকোলাস গঞ্জালেজ। ছবি: এএফপি

স্কোয়াডে মাত্র একজন গোলরক্ষক রাখা হয়েছে। কারণ শুধু ইউরোপে খেলা ফুটবলারদের নাম ঘোষণা করেছেন স্কালোনি। দক্ষিণ আমেরিকার লিগগুলোর খেলোয়াড়দের নিয়ে পরবর্তীতে দল সম্পূর্ণ করা হবে।

দল ঘোষণার পরপরই অবশ্য দুঃসংবাদ জেনেছেন স্কালোনি। ঘাড়ে চোট পেয়ে এক মাসের জন্য মাঠের বাইরে চলে গেছেন লুকাস আলারিও। জার্মান ক্লাব বেয়ার লেভারকুসেনের এই ফরোয়ার্ড তাই বাছাইয়ের ম্যাচ দুটিতে খেলতে পারবেন না।

২৩ সদস্যের আর্জেন্টিনা স্কোয়াড:

গোলরক্ষক: হুয়ান মুসসো (উদিনেসে);

ডিফেন্ডার: নেহুয়েন পেরেজ (ফামালিকাও), নিকোলাস ওতামেন্দি (ম্যানচেস্টার সিটি), রেনজো সারাভিয়া (ইন্টারন্যাসিওনাল), জার্মান পেজ্জেয়া (ফিওরেন্টিনা), নিকোলাস তাগলিয়াফিকো (আয়াক্স আমস্টারডাম), লিওনার্দো বেলার্দি (বরুসিয়া ডর্টমুন্ড);

মিডফিল্ডার: গুইদো রদ্রিগেজ (রিয়াল বেতিস), রবার্তো পেরেইরা (ওয়াটফোর্ড), এক্সকুয়েল পালাসিওস (বেয়ার লেভারকুসেন), রদ্রিগো দে পল (উদিনেসে), মার্কোস আকুনা (স্পোর্টিং), লেয়ান্দ্রো পারেদেস (পিএসজি), নিকোলাস দমিঙ্গেজ (বোলোনিয়া), জিওভানি লো সেলসো (টটেনহ্যাম হটস্পার);

ফরোয়ার্ড: আলেক্সিস ম্যাক আলিস্তার (ব্রাইটন), লিওনেল মেসি (বার্সেলোনা), সার্জিও আগুয়েরো (ম্যানচেস্টার সিটি), লুকাস ওকাম্পোস (সেভিয়া), লুকাস আলারিও (বেয়ার লেভারকুসেন), নিকোলাস গঞ্জালেজ (স্টুটগার্ট), পাওলো দিবালা (জুভেন্টাস), লাউতারো মার্তিনেজ (ইন্টার মিলান)।

Comments

The Daily Star  | English