পরিবেশবান্ধব নির্বাচনী প্রচারণা

নির্বাচনী প্রচারে কোনো ধরনের পোস্টার ব্যবহার না করে ভিন্নধর্মী প্রচারণা চালাচ্ছেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (সিসিসি) নির্বাচনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী শৈবাল দাস সুমন। জামালখানে ঠেলাগাড়ি প্রতীক নিয়ে লড়ছেন তিনি।
শৈবাল দাস সুমন

নির্বাচনী প্রচারে কোনো ধরনের পোস্টার ব্যবহার না করে ভিন্নধর্মী প্রচারণা চালাচ্ছেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (সিসিসি) নির্বাচনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী শৈবাল দাস সুমন। জামালখানে ঠেলাগাড়ি প্রতীক নিয়ে লড়ছেন তিনি।

ভিন্নধর্মী প্রচারণার জন্য এরই মধ্যে ‘পরিবেশবান্ধব কাউন্সিলর প্রার্থী’ হিসেবে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত শৈবাল। নিয়মিত রাস্তার পাশের আবর্জনা পরিষ্কার, ডাস্টবিন স্থাপন এবং গাছ লাগানোর উদ্যোগ নিয়েছেন তিনি।

দ্য ডেইলি স্টারকে শৈবাল বলেন, ‘আমরা সবসময় পরিবেশ রক্ষার কথা বললেও সেজন্য তেমন কোনো কাজ করি না। আমি পোস্টার সংস্কৃতির বাইরে এসে ডিজিটাল মাধ্যমে প্রচারণা চালাচ্ছি। এর মাধ্যমে আমি জনগনকে পরিবেশ সংরক্ষণে সচেতন করতে চাই। সবুজ প্রকৃতির ব্যাপারে নগরবাসীকে সচেতন করতে চাই।

তিনি আরও বলেন, ‘প্রচারণার জন্য আমি ফেসবুকের মতো ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করছি। মোবাইলে এসএমএস পাঠাচ্ছি। বাড়ি বাড়ি গিয়ে লিফলেট বিতরণ করব।’

ফেসবুকে একটি ভিডিও প্রকাশ করে তিনি অন্য প্রার্থীদেরও পোস্টার না লাগিয়ে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে প্রচারণা চালানোর জন্য আহবান জানাচ্ছেন। এখন পর্যন্ত ওই ভিডিও ৩৮ হাজার বার দেখা হয়েছে এবং ৮৪৩ বার শেয়ার করা হয়েছে।

ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ‘আমি আপনাদের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি যে জামাল খান ওয়ার্ডের সবুজ পরিবেশ নষ্ট করে কোনো ধরনের পোস্টার ব্যবহার করা হবে না। এটা আমাদের দেশে নির্বাচনের ইতিহাসে একটি উদাহরণ হয়ে থাকবে।’

গত ৯ মার্চ থেকে শহরজুড়ে নির্বাচনী প্রচার শুরু হয়। নির্বাচনী প্রচার প্রচারণায় প্লাস্টিকে মোড়ানো পোস্টার নিষিদ্ধ করেছে নির্বাচন কমিশন।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা যায়, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী ছয় জন। ১৪টি সংরক্ষিত মহিলা আসনে ৫৬ জন এবং ৪১টি সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ১৬১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

Comments

The Daily Star  | English

New School Curriculum: Implementation limps along

One and a half years after it was launched, implementation of the new curriculum at schools is still in a shambles as the authorities are yet to finalise a method of evaluating the students.

9h ago