শ্রীলঙ্কা সিরিজ স্থগিত হওয়ায় ইংলিশ ক্রিকেটারদের স্বস্তি

শ্রীলঙ্কার মাটিতে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলার কথা ছিল ইংল্যান্ডের। তবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে তা স্থগিত করে দেশে ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। বোর্ডের এই সিদ্ধান্তের সমর্থনে দলটির অধিনায়ক জো রুট বলেছেন, ইংল্যান্ডের ক্রিকেটাররা এখন ‘স্বস্তি’ বোধ করছেন।
england cricket team
ছবি: এএফপি

শ্রীলঙ্কার মাটিতে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলার কথা ছিল ইংল্যান্ডের। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে তা স্থগিত করে দেশে ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। বোর্ডের এই সিদ্ধান্তের সমর্থনে দলটির অধিনায়ক জো রুট বলেছেন, ইংল্যান্ডের ক্রিকেটাররা এখন স্বস্তি বোধ করছেন।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসির কাছে তারকা ডানহাতি ব্যাটসম্যান রুট জানিয়েছেন, দলের সবাই চিন্তামুক্ত হয়েছে, ‘(মাঝপথে সিরিজ স্থগিত হওয়ায়) স্বস্তি ফিরে এসেছে। সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

টেস্ট সিরিজ মাঠে গড়ানোর আগে গেল শুক্রবার একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা ছিল ইংল্যান্ডের। সেদিনই সফর অসমাপ্ত রেখে ক্রিকেটারদের দেশে ফিরিয়ে নেওয়ার ঘোষণা দেয় ইসিবি। আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে তারা জানায়, ক্রিকেটার ও সাপোর্ট-স্টাফদের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যই বোর্ডের কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

করোনা আতঙ্কে ক্রিকেটারদের মনোযোগ খেলার মধ্যে ছিল না উল্লেখ করে রুট বলেছেন, ‘খেলোয়াড়দের দিকে তাকালে দেখতে পেতেন যে, তাদের মন অন্য কোথাও ছিল। তারা দেশে থাকা পরিবারের সদস্যদের কথা ভাবছিল। এখন যেহেতু আমরা ফিরে যেতে পারব এবং পরিবারের সদস্যদের যত্ন নিতে পারব এবং প্রিয়জনদের সঙ্গে থাকতে পারব, সেহেতু অনেক মানুষ এখন স্বস্তি বোধ করবে।’

ইংলিশ ক্রিকেটাররা কতটা দুশ্চিন্তায় ছিল তা উপলব্ধি করা যায় স্টুয়ার্ট ব্রডের কথায়। আরেক ব্রিটিশ গণমাধ্যম ডেইলি মেইলে তিনি লিখেছেন, ‘আমাদের কেউ একজন যদি এতে (করোনাভাইরাস) আক্রান্ত হতো, তাহলে কী ঘটত? পুরো স্কোয়াডকে ১৪ দিনের জন্য কোয়ারেন্টিনে যেতে হতো। যদি পরিবারের কোনো সদস্য বাড়িতে অসুস্থ হয়ে যেত আর আমরা বিদেশে কোয়ারেন্টিনে থাকতাম, তাহলে কেমন হতো? এর অর্থ দাঁড়াত, তাদের কাছে ফিরে যাওয়ার কোনো উপায় নেই।’

অন্যান্য ক্রীড়া ইভেন্টের মতো ক্রিকেটেও পড়েছে বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের প্রভাব। স্থগিত করা হয়েছে ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার ওয়ানডে সিরিজও। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত।

Comments