কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা দাবি সম্পাদক পরিষদের

ভ্রাম্যমাণ আদালত দিয়ে মধ্যরাতে কুড়িগ্রামে সাংবাদিক গ্রেপ্তার-কারাদণ্ড-নির্যাতনের ঘটনায় সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছে সম্পাদক পরিষদ।
editors-council.jpg

ভ্রাম্যমাণ আদালত দিয়ে মধ্যরাতে কুড়িগ্রামে সাংবাদিক গ্রেপ্তার-কারাদণ্ড-নির্যাতনের ঘটনায় সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছে সম্পাদক পরিষদ।

আজ রোববার বাংলাদেশের জাতীয় সংবাদপত্রের সম্পাদকদের সংগঠন সম্পাদক পরিষদের এক বিবৃতিতে এই দাবি জানানো হয়।

বিবৃতিতে সম্পাদক পরিষদ বলেছে, ‘আমরা গভীর উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছি, কিছুদিন ধরে দেশের বিভিন্ন এলাকায় সাংবাদিক আটক ও নির্যাতনের খবর প্রকাশিত হচ্ছে। বিশেষ করে বাংলা ট্রিবিউনের কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি আরিফুল ইসলামকে পুলিশ মধ্যরাতে আটক করার পর রাতেই এক বছরের সাজা দিয়ে কারাগারে পাঠায়। এটা শুধু নিন্দনীয়ই নয়, দুঃখজনক ও পীড়াদায়কও বটে। সম্পাদক পরিষদ বিস্মিত মধ্যরাতে এভাবে ভ্রাম্যমাণ আদালত দিয়ে সাংবাদিক গ্রেপ্তার, কারাদণ্ড ও জরিমানা, নির্যাতনের ঘটনায়। আমরা আরিফুলের বিরুদ্ধে করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি করছি। কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসককে শুধু প্রত্যাহার নয়, বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক।’

ঢাকার সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলের নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় উৎকণ্ঠা জানিয়ে সম্পাদক পরিষদ বলেছে, ‘আমরা আশা করব কাজলকে খুঁজে বের করে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।’

সম্পাদক পরিষদ বাংলাদেশ প্রতিদিনের মেহেরপুর প্রতিনিধি মাহবুবুল হক পোলেনের ওপর হামলা, তার বাড়িঘর ভাঙচুরের ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে।

Comments

The Daily Star  | English