শীর্ষ খবর

কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে মাইক নিয়ে রাস্তায় চট্টগ্রামের মেয়র

চট্টগ্রামে প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টিন বা ঘরে থাকা নিশ্চিত করতে মাইক নিয়ে শহরের বিভিন্ন সড়কে আহবান জানাচ্ছেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন।
Ctg mayor
চট্টগ্রামে প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টিন বা ঘরে থাকা নিশ্চিত করতে গ্লবস ও মাস্ক পড়ে মাইক নিয়ে শহরের বিভিন্ন সড়কে প্রচারণা চালাচ্ছেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। ছবি: সংগৃহীত

চট্টগ্রামে প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টিন বা ঘরে থাকা নিশ্চিত করতে মাইক নিয়ে শহরের বিভিন্ন সড়কে আহবান জানাচ্ছেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন।

আজ সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নগরীর কাজীর দেউড়ি এলাকায় এ প্রচারাভিযান শুরু করেন মেয়র নাসির।

তারপর নগরীর ওয়াসার মোড়, জিইসির মোড়, দুই নম্বর গেইটসহ গুরুত্বপূর্ণ মোড়গুলোতেও এ প্রচারণা চালাতে দেখা গেছে।

মেয়র নাসির বলেন, ‘যারা বিদেশ থেকে এসেছেন তাদের অবশ্যই ১৪ দিনের গৃহবাস পালন করতে হবে। এ সময় পরিবারের অন্য কারো সংশ্রবে আসা যাবে না।’

তিনি জনগণের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘বিদেশ থেকে কারো আসার সংবাদ পেলে এবং ওই ব্যক্তিকে বাইরে দেখা গেলে আপনারাও তাকে কোয়ারেন্টিনের বিষয়টা বুঝিয়ে বলবেন।’

এরপরও কাজ না হলে তিনি পুলিশ, প্রশাসন এবং সিটি করপোরেশনকে জানাতে জনগণের প্রতি আহবান জানান।

জনগণ যাতে করোনার বিষয়টিকে গুরুত্ব দেন এবং সচেতন হন সে তাগিদ থেকে তিনি রাস্তায় নেমেছেন বলেও জানান।

করোনার কারণে নিম্নআয়ের মানুষদের কষ্ট লাঘবে তিনি সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহবানও জানান।

‘এটাই প্রকৃত সুযোগ দেশ ও মানুষের কল্যাণে কিছু করার। যাদের আর্থিক সামর্থ্য আছে তারা দয়া করে এগিয়ে আসুন। খেটে খাওয়া মানুষেরা সাময়িক সংকটে পড়বেন। তাই আসুন এদের সহযোগিতায় এগিয়ে এসে নাগরিক ও মানবিক দায়িত্ব পালন করি,’ বলেন তিনি।

এসময় জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের না হওয়ার পরামর্শ দেন মেয়র নাসির। সেসময় তিনি হ্যান্ড গ্লবস ও মাস্ক পড়া অবস্থায় লিফলেটও বিতরণ করেন।

তিনি আরও বলেন, ‘হোটেলগুলোতে অযথা আড্ডা ও ভিড় লক্ষ্য করছি আমরা। করোনার সংক্রমণ থেকে বাঁচতে হলে অবশ্য নিদিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। নগরীর হোটেলগুলো বন্ধ করার বিষয়ে আজকে আমরা সিদ্ধান্ত নিবো।’

Comments

The Daily Star  | English

Coastal villagers shifted to LPG from Sundarbans firewood

'The gas cylinder has made my life easy. The smoke and the tension of collecting firewood have gone away'

1h ago