৪৫ বছরের স্মৃতির ঝাঁপি মেলে ধরল আইসিসি

আইসিসির নিজস্ব আর্কাইভে রয়েছে মনকাড়া অসংখ্য মুহূর্ত। করোনাভাইরাস মহামারির কারণে থমকে যাওয়া সময়ে ভক্ত-সমর্থকদের কথা ভেবে গত ৪৫ বছর ধরে জমা হওয়া রোমাঞ্চকর সেসব ম্যাচ উন্মুক্ত করে দিয়েছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা।
Cricket Fan
ফাইল ছবি: এএফপি

১৯৭৫ বিশ্বকাপে ক্যারিবিয়ানদের দাপট হয়তো অনেকেরই দেখার সুযোগ হয়নি কিংবা ১৯৮৩ বিশ্বকাপে কপিল দেবের ভারতের বাজিমাত। ১৯৯২ বিশ্বকাপে ওয়াসিম আকরামের মুন্সিয়ানা হয়তো কারো কারো স্মৃতিতে দোলা দেয়। ১৯৯৯ বিশ্বকাপে প্রথমবার খেলতে গিয়ে বাংলাদেশের পাকিস্তানকে হারিয়ে দেওয়া কিংবা সেবার সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়া-দক্ষিণ আফ্রিকার সেই শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচও। আইসিসির নিজস্ব আর্কাইভে রয়েছে মনকাড়া এমন অসংখ্য মুহূর্ত। করোনাভাইরাস মহামারির কারণে থমকে যাওয়া সময়ে ভক্ত-সমর্থকদের কথা ভেবে গত ৪৫ বছর ধরে জমা হওয়া রোমাঞ্চকর সেসব ম্যাচ উন্মুক্ত করে দিয়েছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

আইসিসির ইউটিউব চ্যানেল, ফেসবুক পেজ, ওয়েবসাইট ও অ্যাপে দেখা যাবে ধ্রুপদী সব ম্যাচ। স্মৃতির ঝাঁপি মেলে ধরে ছেলে ও মেয়েদের সব বিশ্বকাপ, আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি, যুব বিশ্বকাপের আলোচিত ম্যাচের ভিডিও ফুটেজ ক্রিকেতপ্রেমীদের জন্য দেখার ব্যবস্থা করেছে তারা। থাকছে ভারত-পাকিস্তান, ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার দ্বিপাক্ষিক কিছু ম্যাচও।

সোনালি সময়ে ফিরে যাওয়ার খেলায় ভক্তরা নিজেরাও যুক্ত হতে পারবেন। আইসিসির সোশ্যাল চ্যানেল, ওয়েবসাইট ও মোবাইল অ্যাপে কিছু ম্যাচের হাইলাইটস নিয়ে হবে ভোটাভুটি। সেখানে ভক্তরা ঠিক করতে পারবেন কোন ম্যাচটি আবার তারা পুরোটাই দেখতে চান।

আইসিসির প্রধান নির্বাহী মানু সাওনি জানান, এই অচলাবস্থায় ভক্তদের পাশে থাকতেই এমন উদ্যোগ তাদের, ‘ক্রীড়া দুনিয়ায় আমরা এক অভূতপূর্ব সময় পার করছি। অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে এই সময়ে আমাদের ভক্তদের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করা বেশি জরুরি, যখন কিনা কোনো সরাসরি খেলা চলছে না। তাই আমাদের ব্রডকাস্ট পার্টনারদের জন্য বড় ব্যাপার হবে আর্কাইভ উন্মুক্ত করে দুর্দান্ত সব স্মৃতিময় মুহূর্ত ফের উপভোগ করতে দেওয়া।’

আইসিসির একেকটি ইভেন্টে থাকে মোটা অঙ্কের ব্রডকাস্ট চুক্তি। কোভিড-১৯ মহামারির কারণে বাতিল হয়েছে বেশ কিছু খেলা। স্থগিত বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা আশা করছে, বিকল্প হিসেবে এই উদ্যোগ ব্রডকাস্টারদের জন্য হতে পারে আর্শিবাদ, ‘আমরা আশা করছি, বাতিল হয়ে যাওয়া সূচির বিকল্প হিসেবে আমাদের ব্রডকাস্ট পার্টনারদের এসব কন্টেন্ট সাহায্য করবে। বাড়িতে থাকার সময়টাতে লোকেরা এসব মুহূর্ত দেখতে পারবে।’

‘একই সঙ্গে আইসিসির সোশ্যাল চ্যানেলের মাধ্যমে ভক্তরাও যুক্ত হওয়ার সুযোগ পাবেন। ফেসবুকে ওয়াচ পার্টি থাকবে। ফেসবুক পেজে ভোটাভুটি চালু থাকবে। গত চার দশকের মধ্যে কোন ম্যাচ তারা আনলক করতে চান, তা ঠিক করতে পারবেন।’

আইসিসির ইভেন্ট ছাড়াও ব্রডকাস্টাররা যুক্ত করেছেন অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের ট্রান্স-তাসমান লড়াই। উপমহাদেশীয় প্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তানের আলোচিত ম্যাচ এবং অ্যাশেজে ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার লড়াই।

উন্মুক্ত করা হয়েছে ২০১৯ বিশ্বকাপের অফিসিয়াল ফুটেজ, অফিসিয়াল হাইলাইটস এবং বিহাইন্ড দ্য সিন। ইংল্যান্ডের রোমাঞ্চকর বিশ্বজয়ের উত্তেজনাময় মুহূর্তের সঙ্গে ভক্তদের জন্য থাকছে বিহাইন্ড দ্য সিন কিছু মুহূর্ত।

কোভিড-১৯ মহামারিতে বিশ্বব্যাপী ৫ লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ২৪ হাজারের বেশি। ক্রমেই এই সংখ্যা বেড়ে চলেছে। মহামারি ঠেকাতে বন্ধ আছে সব ক্রীড়া ইভেন্ট। বিশ্বের বহু দেশ এই মুহূর্তে আছে পুরো লকডাউনে। কোটি কোটি মানুষ আটকে আছেন বাড়িতে। এই অফুরন্ত অবসরের সময়টা রাঙাতে তাই আর্কাইভ উন্মুক্তের ভাবনা বাস্তবায়ন করেছে আইসিসি।

Comments

The Daily Star  | English

Banking sector abused by oligarchs: CPD

Oligarchs are using banks to achieve their goals, harming good governance, transparency, and accountability in the financial sector, said economists and experts yesterday.

1h ago