শীর্ষ খবর

করোনায় যুবকের মৃত্যু সন্দেহে ৩টি ভবন লকডাউন

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনীতে ২৪ বছর বয়সী এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তিনি জ্বরে আক্রান্ত ছিলেন বলে সতর্কতার অংশ হিসেবে আজ শুক্রবার দুপুরে ওই যুবকের বাড়িসহ তিনটি ভবন লকডাউন করেছে প্রশাসন।
Noakhali_Corona_Lockdown
শুক্রবার দুপুরে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় তিনটি ভবন লকডাউন করে দেয় প্রশাসন। ছবি: স্টার

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনীতে ২৪ বছর বয়সী এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তিনি জ্বরে আক্রান্ত ছিলেন বলে সতর্কতার অংশ হিসেবে আজ শুক্রবার দুপুরে ওই যুবকের বাড়িসহ তিনটি ভবন লকডাউন করেছে প্রশাসন।

বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হারুনুর রশিদ চৌধুরী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ভবনগুলো সম্পূর্ণভাবে পুলিশের নজরদারিতে রয়েছে। কেউ যেন ভেতর থেকে বাইরে কিংবা বাইরে থেকে ভেতরে প্রবেশ করতে না পারে, সে জন্য ভবনগুলোর আশেপাশে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, ওই যুবক চৌমুহনীর একটি ডেন্টাল ক্লিনিকে চিকিৎসকের সহকারী হিসেবে কাজ করতেন। সম্প্রতি তিনি ঢাকায় গিয়েছিলেন, তিন দিন আগে জ্বর নিয়ে তিনি চৌমুহনীতে আসেন। জ্বরের তীব্রতা বেড়ে গেলে প্রথমে তাকে হকার্স মার্কেট এলাকার একটি ক্লিনিকে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক তার শারীরিক পরীক্ষা করে ওষুধ দেন। গতকাল সন্ধ্যায় ওই যুবকের কাশির সঙ্গে রক্ত যেতে শুরু করলে পরিবারের সদস্যরা প্রথমে চিকিৎসককে জানান। এরপর তার পরামর্শে রাতে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক ওই যুবককে মৃত ঘোষণা করেন।

এ প্রসঙ্গে বেগমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. অসীম কুমার দাস বলেন, যদিও যুবকের করোনা আক্রান্ত হওয়ার কোনো উপসর্গ ছিল না। তারপরও আজ সকালে হাসপাতালের একজন চিকিৎসক ও একজন মেডিকেল টেকনোলজিস্ট নিয়ে মরদেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করে রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) পাঠানো হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদন হাতে এলে জানা যাবে তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন কি না।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা সৈয়দ মহিউদ্দিন আবদুল আজিম বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে কয়েকজন লোক হাসপাতালের জরুরি বিভাগে এক যুবককে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। ধারণা করা হচ্ছে, ওই যুবক হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

জেলা সিভিল সার্জন ডা. মো. মোমিনুর রহমান বলেন, বিষয়টি আইইডিসিআরকে জানানো হয়েছে। নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

Comments