করোনাভাইরাস

দেশে আরও ২ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ৯

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও দুই জন মারা গেছেন। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা আট। আক্রান্ত আরও নয় জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৭০ জনে দাঁড়িয়েছে। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন আরও চার জন। এখন পর্যন্ত মোট ৩০ জন সুস্থ হয়েছেন।
আইইডিসিআর পরিচালক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। ছবি: অনলাইন ব্রিফিং থেকে নেওয়া

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও দুই জন মারা গেছেন। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা আট। আক্রান্ত আরও নয় জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৭০ জনে দাঁড়িয়েছে। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন আরও চার জন। এখন পর্যন্ত মোট ৩০ জন সুস্থ হয়েছেন।

আজ শনিবার দুপুর ১২টার দিকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে অনলাইন ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

তিনি বলেন, ‘গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছেন আরও নয় জন। তাদের মধ্যে আট জনের নমুনা আইইডিসিআরে পরীক্ষা করে শনাক্ত করা হয়েছে। একজনের নমুনা ঢাকার বাইরে। ইতোমধ্যে আপনারা জানেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রোটোকল অনুযায়ী, রেফারেন্স ল্যাবরেটরি হিসেবে অন্যান্যা ল্যাবেরটরিতে যে নমুনা পরীক্ষা করা হবে, যখন সেখানে পজিটিভ পাওয়া যাবে, সেই নমুনাগুলো আমাদের আইইডিসিআরে এনে রি-কনফার্ম করার একটা বাধ্যবাধকতা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দিক থেকে রয়েছে। তাই এই একজনের নমুনা আবার পরীক্ষা করা হবে। কিন্তু, আমরা এই একজনকে পজিটিভ ধরে নিয়েই নয় জনকে আমাদের যে কার্যক্রম কন্টাক্ট ট্রেসিং এবং এদেরকে কন্টেইন করা, তাদের যারা কন্টাক্ট আছে, তাদের কোয়ারেন্টিনে নিয়ে যাওয়া, সে কাযক্রমগুলো শুরু করেছি।’

‘এই নয় জনের মধ্যে পাঁচ জনের কন্টাক্ট ইতিহাস রয়েছে। তার মানে পাঁচ ইতোমধ্যে সংক্রমণ আছে এরকম শনাক্তকৃত রোগীর সংস্পর্শে বা পরিবারের সদস্য। দুই জন যারা যারা বিদেশে থেকে এসেছিলেন এরকম তাদের সংস্পর্শের আছেন। আর বাকি দুইজনের ক্ষেত্রে আমরা এখনো তথ্য সংহগ্রহ করছি’, যোগ করেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, ‘নতুন নয় জনের মধ্যে দুজন শিশু, যাদের বয়স ১০ বছরের নিচে। তিন জনের বয়স ২০-৩০ বছরের মধ্যে, দুজনের বয়স ৫০-৬০ এর মধ্যে, একজনের বয়স ৬০-৭০ এবং একজনের বয়স ৯০ বছর। গত ২৪ ঘণ্টায় আরও দুজন মারা গেছেন। যার মধ্যে একজন যারা গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছেন তাদের মধ্যকার। আরেকজন আগেই শনাক্ত হয়েছিলেন। তাদের এক জনের বয়স ৯০ বছর এবং আরেকজনের বয়স ৬৮ বছর। এদর মধ্যে একজন ঢাকার বাইরে, আরেকজন ঢাকায়। এদের মধ্যে একজনের হৃদরোগ ছিল, আরেকজনের স্ট্রোকের ইতিহাস ছিল।’

‘বর্তমানে সর্বমোট রোগীর সংখ্যা ৭০, এর মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন মোট আট জন এবং ৩০ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। এর বাইরে যে ৩২ জন থাকে, তাদের মধ্যে বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন ১২ জন এবং ২০ জন হাসপাতালে রয়েছেন’, বলেন তিনি।

ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ৫৫৩টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। পরীক্ষা করা হয়েছে ৪৩৪টি।’

Comments

The Daily Star  | English

The taste of Royal Tehari House: A Nilkhet heritage

Nestled among the busy bookshops of Nilkhet, Royal Tehari House is a shop that offers students a delectable treat without burning a hole in their pockets.

2h ago