কেন ব্যতিক্রমী কায়দায় ব্যাটিং, কারণ ব্যাখ্যা করলেন স্মিথ

বরাবরই এমন অদ্ভুত ভঙ্গিতে ব্যাট করা অস্ট্রেলিয়ান তারকা ব্যাটসম্যান গত অ্যাশেজে পেয়েছেন অবিশ্বাস্য সাফল্য।
steven smith
ছবি: ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া

পেছনের পা অফ স্টাম্পে রেখে আড়াআড়িভাবে দাঁড়িয়ে সারাক্ষণই নড়াচড়া করতে থাকেন স্টিভেন স্মিথ। নাগালের বাইরের বলগুলো ছেড়ে দেন আয়েস করে। স্টাম্প বাঁচানোর সঙ্গে কমিয়ে দেন এলবিডব্লিউ হওয়ার সুযোগ। বরাবরই এমন অদ্ভুত ভঙ্গিতে ব্যাট করা অস্ট্রেলিয়ান তারকা ব্যাটসম্যান গত অ্যাশেজে পেয়েছেন অবিশ্বাস্য সাফল্য।

করোনাভাইরাসের মহামারির সময়ে খেলা না থাকায় ফাঁকা সময় কাটছে সাবেক অজি অধিনায়ক স্মিথের। এই সময়ে আইপিএলের দল রাজস্থান রয়্যালসের পডকাস্টে যুক্ত হয়েছিলেন ক্রিকেট বিশ্বের অন্যতম সেরা তারকা। সেখানেই নিজের ব্যাটিং ভঙ্গিমা নিয়ে কথা বলেছেন স্মিথ। জানিয়েছেন, কোনো একটা নির্দিষ্ট ছকে স্টান্স না নিয়ে পরিস্থিতি বুঝে বদলাতে থাকেন নিজের কৌশল।

টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর ব্যাটসম্যান জানান, কতগুলো ফ্যাক্টরের উপর নির্ভর করে তার ভঙ্গিটা কেমন হবে, ‘নির্ভর করে কে বল করছে, উইকেট কেমন আচরণ করছে। কীভাবে আমি রান করব, কীভাবে বোলার আমাকে আউট করার চেষ্টা করবে। এসব ভাবনার উপর নির্ভর করে আমি কতটা উন্মুক্ত থাকব, কতটা আঁটসাঁট।

‘কিন্তু আমার সাধারণ স্টান্স হচ্ছে, আমার পেছনের পা অনেকটা অফ স্টাম্পের কাছে অথবা তারও বাইরে থাকবে। আমি জানি, আমার চোখের সামনে থেকে বল স্টাম্পে আঘাত করতে পারবে না।’ 

৭৩ টেস্টে ৭ হাজার ২২৭ রান করা এই ব্যাটসম্যান তার প্রথাবিরোধী ব্যাটিং কৌশল রপ্ত করেছেন মূলত আউট হওয়ার উপায় কমাতে, ‘আমার কাছে হলো, বল স্টাম্পে না লাগলে ওই স্টান্সে আমাকে আউট করা যাবে না (এলবিডব্লিউ হওয়ার সুযোগ নেই)। এই কৌশল আমি শুরু করেছি আসলে আউট হওয়ার পথ কমাতে।’

‘মাঝে মাঝে আমি ফাঁদে পড়ি, কিন্তু সামলে নেই। আমি জানি যে, আমার চোখের সামনে (বল) না থাকলে, এটা খেলার দরকার নেই। আমি ছেড়ে দেই।’

Comments