ত্রাণের দাবিতে লালমনিরহাটে কাজ হারানো মানুষের বিক্ষোভ

লালমনিরহাটে সাধারণ ছুটিতে কাজ হারানো শ্রমজীবী মানুষ ত্রাণের দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন। আজ বুধবার দুপুরে সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের হাড়ীভাঙ্গা এলাকায় শতাধিক কর্মহীন মানুষ লালমনিরহাট-বুড়িমারী মহাসড়কে অবস্থান নেন।
ত্রাণের দাবিতে লালমনিরহাটের সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের হাড়ীভাঙ্গা এলাকায় কর্মহীন মানুষের বিক্ষোভ। ছবি: এস দিলীপ রায়

লালমনিরহাটে সাধারণ ছুটিতে কাজ হারানো শ্রমজীবী মানুষ ত্রাণের দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন। আজ বুধবার দুপুরে সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের হাড়ীভাঙ্গা এলাকায় শতাধিক কর্মহীন মানুষ লালমনিরহাট-বুড়িমারী মহাসড়কে অবস্থান নেন।

ক্ষুব্ধ লোকজন অভিযোগ করে বলেছেন, তারা বেশিরভাগই দিনমজুর। কাজ হারিয়ে নিরন্ন অবস্থায় থাকলেও সরকারি-বেসরকারি কোনো সাহায্য তাদের কাছে পৌঁছায়নি।

ত্রাণের দাবিতে জড়ো হওয়ায় পুলিশের বিরুদ্ধে ধাওয়া করারও অভিযোগ তুলেছেন তারা।

পরিস্থিতি সামাল দিতে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার উত্তম কুমার রায় ঘটনাস্থলে এসে ত্রাণের আশ্বাস দেওয়ার পর বিক্ষুব্ধ লোকজন বাড়ি ফিরে যান।

নির্মাণ শ্রমিক আকলিমা বেওয়া জানান, গত মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে তারা বাড়িতে বসে আছেন। হাতে নগদ টাকা নেই যা দিয়ে পেট চালাবেন। অনেকে চড়া সুদে ঋণ নিতে বাধ্য হচ্ছেন। পরিবার নিয়ে কারও দিন কাটছে অর্ধাহারে-অনাহারে।

‘আর কত পেটের ক্ষুধা সহ্য করি? বাধ্য হয়েই রাস্তায় নেমে পড়ি আর ত্রাণের জন্য বিক্ষোভ করি,’ আকলিমা বলেন।

বৈদ্যুতিক কাজের শ্রমিক আব্দুল হান্নান বলেন, ‘টিভি ফেসবুকে দেখি চারদিক ত্রাণের ছড়াছড়ি। কিন্তু আমাদের এলাকায় শতাধিক কর্মহীন দিনমজুর কেউ কোন সহায়তা পায়নি। পেটে ক্ষুধা নিয়ে বাধ্য হয়েই রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করছি। আর এখানে এসেও পুলিশের ধাওয়া খেতে হলো।’

ইউএনওর আশ্বাসে বাড়ি ফিরে এলেও, ত্রাণ না পেলে তারা আবার বিক্ষোভ করবেন বলে তিনি জানান।

লালমনিরহাট সদর উপজেলার ইউএনও উত্তম কুমার রায় দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ওই এলাকায় কর্মহীন দিনমজুর শ্রমিক ও দুঃস্থদের সবাইকে সরকারি ত্রাণ সহায়তা দেওয়া হবে। স্থানীয় ইউপি সদস্যের কাছে তালিকা চাওয়া হয়েছে। তালিকা পেলেই বাড়ি বাড়ি ত্রাণ পৌঁছে দেওয়া হবে।

Comments