খেলা
আজকের এই দিনে

বলে-কয়ে রেকর্ড পুনরুদ্ধার করেছিলেন লারা!

২০০৪ সালে আজকের এই দিনে ত্রিনিদাদের বরপুত্র ওঠেন নতুন উচ্চতায়। তার সময়ে খেলা পাকিস্তানের ইনজামামুল হক জানান, লারা তখন চ্যালেঞ্জ দিয়েই পুনরুদ্ধার করেছিলেন রেকর্ড।
Brian Lara
ছবি: সংগ্রহ

স্যার গ্যারি সোবার্সের রেকর্ড টিকেছিল ৩৬ বছর। ১৯৯৪ সালে তা ভেঙে টেস্টে ৩৭৫ রানের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ইনিংসের নতুন কীর্তি গড়েন ব্রায়ান লারা। ৯ বছর পর তাকে টপকে ৩৮০ রানের ইনিংস খেলে নতুন রেকর্ড গড়েন অস্ট্রেলিয়ার ম্যাথু হেইডেন। আজন্ম জেদি লারা হেইডেনকে শীর্ষে টিকতে দেননি ছয় মাসের বেশি। ২০০৪ সালে আজকের এই দিনে ত্রিনিদাদের বরপুত্র ওঠেন নতুন উচ্চতায়। তার সময়ে খেলা পাকিস্তানের ইনজামামুল হক জানান, লারা তখন চ্যালেঞ্জ দিয়েই পুনরুদ্ধার করেছিলেন রেকর্ড।

অ্যান্টিগার রিক্রিয়েশন গ্রাউন্ডে ৯৪ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে রেকর্ড গড়েছিলেন লারা। ২০০৪ সালেও রেকর্ড পুনরুদ্ধারে একই প্রতিপক্ষের বিপক্ষে একই ভেন্যু বেছে দেন সৃষ্টিশীল ব্যাটিংয়ের জন্য জগতখ্যাত এই ব্যাটসম্যান।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে রোববার এক ভিডিও পোস্ট করেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ইনজামাম। স্মরণ করেন ১৬ বছর আগে খেলা লারার অবিশ্বাস্য ওই ইনিংস, ‘আজ আমি এমন এক খেলোয়াড়ের কথা বলব। যে কেবল আমার যুগে না, সব সময়ের মধ্যে সেরাদের একজন। ব্রায়ান লারা যখন খেলত আমার কেবল মনে হতো ও বোধহয় সব রেকর্ডই চুরমার করে দেবে।’

ইনজামাম জানান হেইডেনের রেকর্ড টিকতে দেবে না লারা আত্মবিশ্বাসের সঙ্গেই তখন বলেছিলেন, ‘রেকর্ড হয়ই ভাঙার জন্য। কিন্তু একজন ৫০০ করে, ৪০০ করে, ৩৭৫ করে এসব তো আমি কেবল স্বপ্নেই ভাবতে পারি। হেইডেন যখন ওর ৩৭৫ রানের রেকর্ড ভেঙ্গে দিল। তারপর লারা বলল, “এটা বেশিদিন টিকতে দিব না।” সত্যিই তাই হলো। কদিন পরই লারা ৪০০ করে বসল! এই ছিল তার আত্মবিশ্বাস। সে আপন মর্জিতে খেলত। কন্ডিশন কেমন, বোলার কারা এসব কেয়ার করত না।’

সেবার সফরকারী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লারার ওয়েস্ট ইন্ডিজ তিন টেস্ট হেরে সিরিজ খুইয়ে শেষ টেস্ট খেলতে নেমেছিল অ্যান্টিগায়। কাজেই ক্যারিবিয়ানদের ছিল হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর লক্ষ্য। তা এমনভাবে পূরণ হয়েছে, টেস্টের হিসাব, সিরিজের ফল সবই পড়ে গেছে লারার কীর্তির আড়ালে।

টেস্ট শুরু হয়েছিল ১০ এপ্রিল। ম্যাচের তৃতীয় দিন অর্থাৎ ১২ এপ্রিল লারা স্পর্শ করেন অনন্য এক চূড়া। টেস্ট ক্রিকেটের প্রথম এবং এখন পর্যন্ত একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে করে ফেলেন কোয়াট্রেট সেঞ্চুরি।

৭৭৮ মিনিট ক্রিজে থেকে ৫৮২ বল খেলেছিলেন। ৪৩ চার আর ৪ ছক্কায় কাটায় কাটায় ৪০০ করে ইনিংস ঘোষণা দেন তিনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৫ উইকেটে ৭৫২ রানের পর ইংল্যান্ড ফলোঅনে পড়ে করেছে হার এড়ানোর লড়াই। সিরিজ জিতেছে তারা ৩-০ ব্যবধানে।

তবে ইতিহাসে এসব পরিসংখ্যানের মূল্য সামান্যই। বাঁহাতি লারা অনিন্দ্য সুন্দর ব্যাটিংয়ের পসরা সাজিয়ে ৪০০ রানের নতুন যে চূড়ায় উঠেছেন, সেটাই হয়ে আছে স্মরণীয়।

Comments

The Daily Star  | English

Extreme heat sears the nation

The scorching heat continues to disrupt lives across the country, forcing the authorities to close down all schools and colleges till April 27.

8h ago