শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সমান তীব্রতা নিয়ে খেলেন কোহলি

খেলার মাঠে কোহলির শরীরী ভাষা নিয়ে আছে নানা বিতর্ক। মাঠে তার আগ্রাসী উপস্থিতি অনেকের চোখে সমালোচনার কারণ। কিন্তু এক বিন্দু ছাড় না দিয়ে দলের জন্য সেরা ফল আনতে চাওয়ার মানসিকতা প্রশংসিতও হয়।
virat kohli

ম্যাচের আগে ওয়ার্মআপেই দেখা যায় বিরাট কোহলির শরীর ভাষায় কিছু করে দেখানোর ঝাঁজ। সেই আগ্রাসন ভারতীয় অধিনায়ক ম্যাচের কোন অবস্থাতেই আর হারিয়ে ফেলেন না। ভিভিএস লক্ষণ মনে করেন এক মুহূর্তের জন্যও নেতিয়ে না পড়ে লড়াই চালিয়ে যাওয়াই কোহলির সবচেয়ে বড় গুণ।

খেলার মাঠে কোহলির শরীরী ভাষা নিয়ে আছে নানা বিতর্ক। মাঠে তার আগ্রাসী উপস্থিতি অনেকের চোখে সমালোচনার কারণ। কিন্তু এক বিন্দু ছাড় না দিয়ে দলের জন্য সেরা ফল আনতে চাওয়ার মানসিকতা প্রশংসিতও হয়।

ভারতের সাবেক তারকা ব্যাটসম্যান লক্ষণের চোখে কোহলির এই তীব্রতা ধরে রাখার গুণ অবিশ্বাস্য ‘বিরাট যে তীব্রতা, উত্তেজনার পারদ  নিয়ে মাঠে নামে, ম্যাচের শেষ বল পর্যন্ত তা শিথিল হয় না, একইরকম থাকে। ২০১০-১১ মৌসুমে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে শুরু হয়েছিল ওর। আমিও সেই দলে ছিলাম। যত দিন গেছে উন্নতি হয়েছে ওর, আরও পোক্ত হয়েছে।’

‘ম্যাচের আগে ওয়ার্মআপে যে তেজ দেখা যায় ওর, মনে হত ম্যাচের শেষ দিকে কি এটা থাকবে? কিন্তু আমাকে ভুল প্রমাণ করেছে সে বারবার। আমি দেখেছি সে শুরু থেকে শেষ অবধি সমান আগ্রাসন নিয়ে খেলতে পারে।’

লক্ষণ কথা বলেছেন সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনিকে নিয়েও। করোনাভাইরাসের কারণে চলতি বছর আইপিএল অনিশ্চয়তায় পড়ায় ৩৮ পেরুনো ধোনির শেষ কিনা, এমন প্রশ্ন উঠছে। লক্ষণ মনে করেন ফিটনেস দিয়ে সেরা জায়গায় থাকা ধোনির জন্য বয়স কেবল সংখ্যা, ‘ধোনির কাছে বয়স কেবল একটা সংখ্যা, ও অসম্ভব ফিট। চেন্নাই সুপার কিংসকে নেতৃত্ব দেওয়া উপভোগ করে। মানসিকভাবে ও প্রচণ্ড শক্তিশালী। আমার বিশ্বাস আরও দুবছর একই জার্সিতে দেখা যাবে তাকে।’

Comments

The Daily Star  | English
Dhaka brick kiln

Dhaka's toxic air: An invisible killer on the loose

Dhaka's air did not become unbreathable overnight, nor is there any instant solution to it.

13h ago