মঙ্গলবার ইতালিতে ফিরছেন রোনালদো, থাকবেন ১৪ দিনের কোয়েরেন্টিনে

আগামী ৪ মে থেকে ব্যক্তিগত অনুশীলনে নামছে ইতালির ক্লাবগুলোর খেলোয়াড়রা। আর ১৮ মে থেকে তো শুরু দলীয় অনুশীলনই। তাই দলের সঙ্গে যোগ দিতে আজ মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) ইতালির উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার কথা রয়েছে জুভেন্টাসের পর্তুগিজ তারকা ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর। তবে সেখানে পৌঁছেই ১৪ দিনের জন্য কোয়েরেন্টিনে থাকতে হবে পাঁচ বারের ব্যলন ডি'অর জয়ী এ তারকাকে।
Ronaldo

আগামী ৪ মে থেকে ব্যক্তিগত অনুশীলনে নামছে ইতালির ক্লাবগুলোর খেলোয়াড়রা। আর ১৮ মে থেকে তো শুরু দলীয় অনুশীলনই। তাই দলের সঙ্গে যোগ দিতে আজ মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) ইতালির উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার কথা রয়েছে জুভেন্টাসের পর্তুগিজ তারকা ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর। তবে সেখানে পৌঁছেই ১৪ দিনের জন্য কোয়েরেন্টিনে থাকতে হবে পাঁচ বারের ব্যলন ডি'অর জয়ী এ তারকাকে।

ইন্টার মিলানের সঙ্গে বন্ধ দরজায় ম্যাচ খেলে পরদিন মা ডোলোরেস আভেইরোর সঙ্গে দেখা করতে মাদেইরাতে গিয়েছিলেন রোনালদো। সেখানে যাওয়ার পরদিনই খবর মিলে সতীর্থ দানিয়েল রুগানি আক্রান্ত হয়েছেন করোনাভাইরাসে। তাতে ক্লাবের সব খেলোয়াড়কে কোয়ারেন্টিনে থাকা বাধ্যতামূলক করে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। এরপর করোনাভাইরাস মহামারি আকারে ছড়িয়ে ইতালিতে। তাই পর্তুগালেই থাকতে হয়েছে তাকে। তবে ইতালিতে আবার খেলা শুরুর সম্ভাবনা সৃষ্টি হওয়ায় তুরিনে পা রাখছেন রোনালদো।

আগামী সোমবার থেকে অনুশীলন শুরু হলেও একটু আগে ভাগেই ফিরছেন রোনালদো। কারণ ১৪ দিন যে তাকে গৃহবন্দী হয়েই থাকতে হবে। তাই শুরুর দিকে অনুশীলনে থাকতে পারবেন না। মে'র মাঝামাঝি সময়ের আগে দেখা করতে পারবেন না তার সতীর্থদের সঙ্গেও। তবে জানা গেছে ঘরে থেকেই ব্যক্তিগতভাবে অনুশীলন চালিয়ে যাবেন তিনি।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব কিছুটা কমায় ধীরে ধীরে জীবনযাত্রা স্বাভাবিক করতে লকডাউন শিথিল করার পদক্ষেপ নিয়েছে ইতালির সরকার। অনুশীলনের সুযোগ দিয়েছেন খেলোয়াড়দের। এরপর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলে নেওয়া হবে লিগ শুরুর সিদ্ধান্ত। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী কন্তে বললেন, 'নিরাপদভাবে অনুশীলন শুরু করতে ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা এবং বিজ্ঞানীদের সঙ্গে একত্রে কাজ করবেন ক্রীড়া মন্ত্রী ভিনসেঞ্জো স্পাদাফোরা। আর অনুশীলন শুরুর পর লিগ মৌসুম আবারও শুরু করা যায় কিনা তা নিয়ে আলোচনা হবে।'

গত রোববার (২৬ এপ্রিল) দেশটিতে নতুন করে প্রাণ হারিয়েছেন আরও ২৬০ জন। যা ছিল ১৪ মার্চ থেকে ইতালিতে ভয়াবহতা শুরুর পর সবচেয়ে কম সংখ্যক মৃত্যুর রেকর্ড। পরদিন সোমবারের পরিসংখ্যান এখনও জানা যায়নি। তবে সবমিলিয়ে দেশটির মৃত্যুর সংখ্যা ২৬ হাজার ৬৪৪ জন। মোট আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় দুই লাখ।

Comments

The Daily Star  | English

New School Curriculum: Implementation limps along

One and a half years after it was launched, implementation of the new curriculum at schools is still in a shambles as the authorities are yet to finalise a method of evaluating the students.

3h ago