ফরাসী লিগ চ্যাম্পিয়ন নেইমার-এমবাপেরা

গুঞ্জনটা আগেই ছিল। করোনাভাইরাসের কারণে লিগ ওয়ান মাঝপথে বন্ধ করে দেওয়ায় চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হতে পারে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইকে (পিএসজি)। শেষ পর্যন্তই তাই হয়েছে। দীর্ঘ আলোচনার পর ২০১৯-২০ মৌসুমের নেইমার-এমবাপেদের চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করেছে লিগ দা ফুটবল প্রফেশনাল (এলএফপি)। নিজেদের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে এক বার্তায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছে তারা।
ছবি: এএফপি

গুঞ্জনটা আগেই ছিল। করোনাভাইরাসের কারণে লিগ ওয়ান মাঝপথে বন্ধ করে দেওয়ায় চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হতে পারে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইকে (পিএসজি)। শেষ পর্যন্তই তাই হয়েছে। দীর্ঘ আলোচনার পর ২০১৯-২০ মৌসুমের নেইমার-এমবাপেদের চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করেছে লিগ দা ফুটবল প্রফেশনাল (এলএফপি)। নিজেদের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে এক বার্তায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছে তারা।

প্রধানমন্ত্রী এদুয়ার্দ ফিলিপের ঘোষণার পর থেকেই চলতি মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন কারা হবেন এ নিয়ে আলোচনা চলছিল এলএফপি কর্মকর্তাদের মধ্যে। বৃহস্পতিবার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। এক বিবৃতিতে এলএফপি প্রেসিডেন্ট নাটালি বয় দে লা টুর বলেছেন, 'প্রধানমন্ত্রী ও সরকারী ঘোষণার পর এলএফপি চলতি মৌসুম বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পিএসজি লিগওয়ানের চ্যাম্পিয়ন, এফসি লোরিয়েন্ট লিগ টু চ্যাম্পিয়ন।'

লিগ ওয়ানে এটা পিএসজির নবম শিরোপা এবং টানা তৃতীয়। অবশ্য লিগ ওয়ানের শিরোপা নিশ্চিতই ছিল পিএসজির। লিগে প্রতি দলের ম্যাচ বাকি ছিল মাত্র ১০টি করে। এক ম্যাচ কম খেলেই দ্বিতীয় স্থানে থাকা মার্শেইর চেয়ে ১২ পয়েন্টে এগিয়ে ছিল নেইমার-এমবাপেরা। ফলে তাদের টপকে অন্য কেউ শেষ পর্যন্ত শীর্ষে ওঠা অনেকটা অবাস্তবই ছিল।

পিএসজির সঙ্গে আগামী মৌসুমে মার্শেই সরাসরি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সঙ্গী হচ্ছে। আর রেনেস খেলবে কোয়ালিফিকেশন রাউন্ড। আর লিলে ও নিস সরাসরি ইউরোপা লিগে সুযোগ পাবে। তবে এটা বদলাতে পারে যদি কোপা দে লা লিগা ও কোপা দে ফ্রান্সের ফাইনালে লিঁও অথবা সেইন্ট-ইটিয়েনে যদি পিএসজিকে হারিয়ে দেয়। তাহলে এদের মধ্যে কেউ সরাসরি ইউরোপা লিগে খেলার সুযোগ পাবে। লিগ টু'তে শীর্ষে থাকা দুই দল লোরিয়েন্ট ও লেন্স আগামী মৌসুমে লিগ ওয়ানে খেলবে। তবে অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে লে ম্যান্সের।

আর এলএফপির এ সিদ্ধান্তে দারুণ খুশী ক্লাবটির মালিক নাসের আল খেলাইফি, '২০২০-২১ সালের লিগ ওয়ান শিরোপা ঘোষণা করা আমরা পছন্দ করেছি। আমরা বুঝতে পেরেছি এবং তাদের সিদ্ধান্তকে সম্মান করি। স্বাস্থ্যগত ব্যাপার অবশ্যই সরকারের প্রথম অগ্রাধিকারের বিষয়।'

Comments

The Daily Star  | English

Bangladesh wants to import 9,000MW electricity from neighbours: Nasrul

State Minister for Power, Energy, and Mineral Resources Nasrul Hamid today said Bangladesh and India have a huge opportunity to work together for the development of the power and energy sector

47m ago