রেলপথ ও প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ে নতুন সচিব

সরকারের একজন সচিব আজ শুক্রবার অবসরে গেছেন। নতুন সচিব পেয়েছে দুই মন্ত্রণালয়। এর মধ্যে মো. সেলিম রেজাকে রেলপথ মন্ত্রণালয় এবং ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীনকে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব করা হয়েছে। আর অবসরে গেছেন রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোফাজ্জেল হোসেন।

সরকারের একজন সচিব আজ শুক্রবার অবসরে গেছেন। নতুন সচিব পেয়েছে দুই মন্ত্রণালয়। এর মধ্যে মো. সেলিম রেজাকে রেলপথ মন্ত্রণালয় এবং ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীনকে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব করা হয়েছে। আর অবসরে গেছেন রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোফাজ্জেল হোসেন।

বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারের ১৯৮৪ ব্যাচের কর্মকর্তা মোফাজ্জেল হোসেন ২০১৭ সালের ৪ মে সচিব হিসেবে রেলপথ মন্ত্রণালয়ে যোগদান করেন। গত বছরের ২৩ ডিসেম্বর তিনি সিনিয়র সচিব হিসেবে পদোন্নতি পান। বয়স ৫৯ হওয়ায় সরকারি চাকুরি আইন ২০১৮ অনুযায়ী তাকে অবসরে পাঠানো হয়। তিনি আগামী এক বছর অবসরোত্তর ছুটি (পিআরএল) পাবেন।

এর আগে, তিনি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়, পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ সরকারি কর্ম-কমিশন সচিবালয়, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর এবং বিদ্যুৎ বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ পদসহ ঢাকা মাস র‌্যাপিড ট্রানজিট ডেভেলপমেন্ট প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেছেন।

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের নতুন সচিব মো. সেলিম রেজা এর আগে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব ছিলেন। বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারের ৭ম (১৯৮৫) ব্যাচের এই কর্মকর্তা কুয়েতে বাংলাদেশ দূতাবাসে প্রথম সচিব (শ্রম) হিসেবে ৬ বছর দায়িত্ব পালন করে ২০০৯ সালে জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) পরিচালক পদে যোগদান করেন। পরে তিনি প্রতিষ্ঠানটির মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। গত বছরের ২৯ সেপ্টেম্বর পদোন্নতি পেয়ে তিনি প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব হন।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের নতুন সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন একই মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। পদোন্নতি পেয়ে তিনি ওই মন্ত্রণালয়ের সচিব হলেন।

Comments

The Daily Star  | English

PM's comment ignites protests across campuses

Hundreds of students from several public universities, including Dhaka University, took to the streets around midnight to protest what they said was a "disparaging comment" by Prime Minister Sheikh Hasina earlier in the evening

5h ago