'রোনালদো ইউনাইটেডে ফিরবেন, ৯৯% নিশ্চিত ছিলেন ফার্গুসন'

বিশ্ব ফুটবলে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর উত্থান ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কোচ অ্যালেক্স ফার্গুসনের হাত ধরেই। তার অধীনে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের স্বাদ পেয়েছেন। জিতেছেন প্রথম ব্যালন ডি'অরটিও। কিন্তু হুট করেই ২০০৯ সালে ইউনাইটেড ছেড়ে রিয়াল মাদ্রিদে পারি জমান তিনি। তবে চার মৌসুম পর আবারও ম্যানইউতে ফেরার কাছাকাছি ছিলেন। আর এ ব্যাপারে প্রায় ৯৯ শতাংশ নিশ্চিত ছিলেন ফার্গুসন।
ফাইল ছবি: এএফপি

বিশ্ব ফুটবলে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর উত্থান ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কোচ অ্যালেক্স ফার্গুসনের হাত ধরেই। তার অধীনে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের স্বাদ পেয়েছেন। জিতেছেন প্রথম ব্যালন ডি'অরটিও। কিন্তু হুট করেই ২০০৯ সালে ইউনাইটেড ছেড়ে রিয়াল মাদ্রিদে পারি জমান তিনি। তবে চার মৌসুম পর আবারও ম্যানইউতে ফেরার কাছাকাছি ছিলেন। আর এ ব্যাপারে প্রায় ৯৯ শতাংশ নিশ্চিত ছিলেন ফার্গুসন।

শুধু রোনালদোই নয়, সে সময় টটেনহ্যাম থেকে গ্যারেথ বেলকেও আনার খুব কাছাকাছি ছিলেন ফার্গুসন। কিন্তু তার অবসরের পরেই সব চিত্র যায় পাল্টে। রিয়ালে যোগ দেন বেল। আর রোনালদোও থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। সম্প্রতি ইউটিডি পডকাস্টকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই বলেছেন রোনালদোর সাবেক সতীর্থ ফরাসী তারকা পেট্রিক এভরা। অবসর নেওয়ার এক সপ্তাহ আগে তাকে এসব কথা বলেছিলেন ফার্গুসন।

সাক্ষাৎকারে এভরা বলেন, 'আমার মনে আছে তার অবসরের দুই সপ্তাহ আগে সব গণমাধ্যমে আলোচনা চলছিল ফার্গুসন আগামী মৌসুমে অবসর নিবেন। কিন্তু তিনি আমাকে বলেছিলেন, "পেট্রিক, আমি কখনোই অবসর নিব না, আমি এখানে আরও ১০ বছর থাকছি।" সে আরও বলেছিল, "আমার লক্ষ্য, আসলে আমি ৯৯ শতাংশ নিশ্চিত ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো ও গ্যারেথ বেলও এখানে আসবে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিততে হলে ওদের দুইজনকে দরকার। আমি ৯৯ ভাগ নিশ্চিত আসবে।"

আর এ বিষয়টি রোনালদোর সঙ্গে যোগাযোগ করে নিশ্চিতও হয়েছিলেন এভরা, 'এরপর আমি নিশ্চিত হই রোনালদোর সঙ্গে কথা বলে। আমি তাকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করি এবং সে জানায়, বসকে সে হ্যাঁ বলেছে এবং ইউনাইটেডে আসছে। সে আমাকে এটা বলেছিল।'

কিন্তু সপ্তাহ দুই পর সব পাল্টে যায়। কার্টিংটনে যাওয়ার পর হুট করেই জানতে পারেন অবসরে যাচ্ছেন ফার্গুসন। এভরার ভাষায়, 'যখন আমি কার্টিংটন আসি, আমি এই সব ক্যামেরা দেখি এবং বলি, "কেউ উল্টাপাল্টা কিছু করেছে। কেউ কোনো সমস্যা করেছে এবং আমরা ঝামেলায় পড়তে যাচ্ছি।" তারপরও আসলাম কেউ একজন বলল, "তোমরা ড্রেসিং রুমে অপেক্ষা করো, বস তোমাদের সঙ্গে কথা বলবে।" এবং যখন বস আমাদের সঙ্গে ড্রেসিং রুমে কথা বলতে আসলো তখন বুঝে যাই কিছু একটা ঝামেলা আছে।'

আর হঠাৎ করে অবসরের সিদ্ধান্ত নেওয়ায় ফার্গুসন সদ্য দলে আনা খেলোয়াড়দের কাছে ক্ষমা চান বলেও জানান এভরা, 'সে আসে এবং আমাদের বলে, "আমি সত্যিই খুব দুঃখিত। আমি বলার আগে অনেকেই বলে দিয়েছে যে আমি অবসরে যাচ্ছি। এ কারণেই ওইসব ক্যামেরা তোমরা দেখেছ। কিন্তু আমি অবসর যাচ্ছি কারণ আমার স্ত্রীর আমাকে দরকার।" সে তখন (রবিন) ভ্যান পার্সির কাছে ক্ষমা চায়, শিনজির (কাগাওয়া) কাছেও চায় কারণ সে তাদের এনেছিল। তাদের কাছেই বিশেষভাবে ক্ষমা চায়।'

২০০৬ সালে সাড়ে ৫ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে এভরাকে মোনাকো থেকে ইউনাইটেডে আনেন ফার্গুসন। আট বছর তার অধীনে সাফল্যের সঙ্গে। কিন্তু ২০১৩ সালে অবসর নেন ফার্গুসন। এরপর থেকে এখনও লিগে সাফল্যের মুখ দেখেনি দলটি। চ্যাম্পিয়ন লিগেও নয়।

Comments

The Daily Star  | English
Flooding in Sylhet region | More rains threaten to worsen situation

More rains threaten to worsen situation

More than one million marooned; BMD predict more heavy rainfall in 72 hours; water slightly recedes in main rivers

4h ago