অনুশীলনে না ফেরার হুমকি, প্রয়োজনে ফুটবল ছেড়ে দিবেন তিনি

লা লিগা সেগুন্দা ডিভিশনের ক্লাব কাদিজের ডিফেন্ডার রাফায়েল হিমেনেজ জার্কি। কিন্তু সবাই তাকে চেনে 'ফালি' নামেই। তিনিই প্রথম কোন স্প্যানিশ ফুটবলার যে অনুশীলনে ফেরার সিদ্ধান্ত সরাসরি প্রত্যাখ্যান করেছেন। প্রয়োজনে ফুটবলটাই ছেড়ে দিয়ে অন্য চাকুরী করবেন, তবুও নিজেকে এবং নিজের পরিবারকে ঝুঁকিতে ফেলতে করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট কঠিন এ সময়ে ফুটবলে ফেরার কোনো ইচ্ছাই নেই তার।
ফাইল ছবি: এফসি বার্সেলোনা

স্প্যানিশ সেগুন্দা ডিভিশনের ক্লাব কাদিজের ডিফেন্ডার রাফায়েল হিমেনেজ জার্কি। সবাই তাকে চেনে 'ফালি' নামে। তিনিই প্রথম কোন স্প্যানিশ ফুটবলার যে অনুশীলনে ফেরার সিদ্ধান্ত সরাসরি প্রত্যাখ্যান করেছেন। প্রয়োজনে ফুটবলটাই ছেড়ে দিয়ে অন্য চাকুরী করবেন, তবুও নিজেকে এবং নিজের পরিবারকে ঝুঁকিতে ফেলতে করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট কঠিন এ সময়ে ফুটবলে ফেরার কোনো ইচ্ছাই নেই তার।

দুই মৌসুম আগেও ধারে বার্সেলোনা বি দলে খেলা ২৬ বছর বয়সী এ ডিফেন্ডার দলের অন্যতম ভরসার নাম। লিগ স্থগিত হওয়ার আগ পর্যন্ত চলতি মৌসুমে ২৩ ম্যাচে মাঠে উপস্থিত ছিলেন। অবস্থা কিছুটা অনুকূলে থাকায় এ সপ্তাহেই তার ক্লাব অনুশীলন শুরু করতে যাচ্ছে। তবে ফালি তাতে অংশগ্রহণ করবেন না বলেই জানিয়েছেন। স্প্যানিশ রেডিও স্টেশন কাদেনা কোপেকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, 'আমি এখনই ফুটবলে ফেরার পরিকল্পনা করছি না।'

এমনকি ফুটবলে না ফেরার জন্য ক্লাবের কাছে নিজের বেতন দাবি করবেন না ফালি, 'আমি বেতনের টাকাও চাচ্ছি না। কারণ আমি এমন একজন খেলোয়াড় যে নীতি নিয়ে থাকি। আমি ক্লাবকে কখনোই চাপ দিব না কারণ আমি এটার প্রাপ্য না। সবচেয়ে বড় ব্যাপার আমার স্বাস্থ্য এবং আমার মেয়ে।'

মূলত নিজের পরিবারের জন্যই ফুটবলে ফিরতে চাইছেন না তিনি। কারণ করোনাভাইরাসের এখনও কোনো প্রতিষেধক কিংবা প্রতিরোধক আবিষ্কার হয়নি। পরিবারকে রক্ষায় প্রয়োজনে ফুটবলটাই ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি, 'আমার সামান্য কিছু টাকা জমা আছে, যদি প্রয়োজন হয়, আমি অন্য চাকুরী খুঁজে নেব- কিন্তু আমি আমার পরিবারকে হুমকিতে ফেলতে পারবো না।'

আরও কমপক্ষে ১০ থেকে ১৫ দিন পরিস্থিতি দেখে সিদ্ধান্ত নেবেন বলে জানিয়েছেন এ ডিফেন্ডার, ফুটবলাররা অনেকটা সুপারহিরোর মতো কিন্তু আমরা সাধারণ মানুষ এবং বর্তমানে আমি অপেক্ষা করতে চাই। হয়তো আরও ১০ থেকে ১৫ দিন। এরপর আমি অনুশীলনের ফিরবো কি-না সিদ্ধান্ত নেব।'

তবে এ সময়ে ফুটবল ফিরতে তার মতো আরও অনেকেই ভয় পাচ্ছেন বলে জানালেন ফালি, 'আমি কারও নাম বলবো না কিন্তু আমি জানি আমার মতো অনেকেই এখন ফুটবলে ফিরতে ভয় পাচ্ছে। তারা আমাকে এটা বলেছে।'

বর্তমানে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে আছে কাদিজ। আর কয়েকটি ম্যাচ খেললে আগামী মৌসুমে লা লিগায় খেলতে পারবে তারা। তাই এ সময়ে ফালিকে হাতছাড়া করতে চায়না ক্লাব। ফালিকে ফুটবলে ফেরানোর ব্যাপারে তাই আশাবাদী কাদিজের প্রেসিডেন্ট ম্যানুয়েল ভিজকাইনো, 'সে ভুল বলছে কিন্তু সে কাউকে মিথ্যে বলছে না। সে ভীত এবং আমাদের তার ভয়কে মুছতে কাজ করতে হবে। আমার মনে হয় আমি তাকে বুঝিয়ে ফুটবলে ফেরাতে পারবো।'

সাম্প্রতিক সময়ে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব কিছুটা কমায় ফুটবল মাঠে গড়ানোর চেষ্টা করছে স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন। সে অনুযায়ী গত সোমবার থেকেই ব্যক্তিগতভাবে অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে স্পেনের দলগুলো। খুব শিগগিরই লিগ গড়ানোর লক্ষ্যে আগের দিন সব খেলোয়াড়রা নিজেদের কোভিড-১৯ পরীক্ষাও করিয়েছেন।

Comments

The Daily Star  | English

Consumers brace for price shocks

Consumers are bracing for multiple price shocks ahead of Ramadan that usually marks a period of high household spending.

11h ago