মাদারীপুরে ৩ কিশোর ও রংপুর বিভাগে পুলিশ-আনছারসহ ১৬ জনের করোনা শনাক্ত

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলায় নতুন করে একই গ্রামের তিন কিশোরের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় আক্রান্ত ব্যক্তির মোট সংখ্যা ৫২। অন্যদিকে রংপুরের আট জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে পুলিশ-আনছারসহ আরও ১৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।
Corona infected
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলায় নতুন করে একই গ্রামের তিন কিশোরের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় আক্রান্ত ব্যক্তির মোট সংখ্যা ৫২। অন্যদিকে রংপুরের আট জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে পুলিশ-আনছারসহ আরও ১৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

আজ সোমবার রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা প্রদীপ চন্দ্র মণ্ডল এ তথ্য নিশ্চিত করেন। রংপুরের তথ্য নিশ্চিত করেন রংপুর মেডিকেল কলেজ ও দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ।

রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা প্রদীপ চন্দ্র মণ্ডল বলেন, ‘গত ৩ মে রাজৈর উপজেলার ইশিবপুর ইউনিয়নের একটি মসজিদের ইমামের করোনা শনাক্ত হয়। এরপর, ওই মসজিদের আশেপাশের অন্তত ৫০টি বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করে স্থানীয় প্রশাসন। পরে, ওই ইমামের সংস্পর্শে আসা ৪৭ জনকে চিহ্নিত করে ৫ মে ২৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকা পাঠায় স্বাস্থ্য বিভাগ। এরমধ্যে ৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়। আজ আবার তিন জনের করোনা শনাক্ত হলো। এদের বয়স ১৪, ১৬, ১৭ বছর। এর মধ্যে একজন প্রতিবন্ধীও আছেন। তাকে তার বাড়িতেই চিকিৎসা দেওয়া হবে। বাকি দুজনকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি করা হয়েছে।’

রংপুরের বিভাগে নতুন শনাক্ত হওয়া ১৬ জনের মধ্যে রংপুরের নয় জন, লালমনিরহাটের দুই জন, কুড়িগ্রামে এক জন, দিনাজপুরে এক জন, নীলফামারীতে দুই জন ও ঠাকুরগাওয়ে এক জন আছেন।

এরমধ্যে রংপুর জেলা পুলিশ লাইন্সের ৩ সদস্য, মিঠাপুকুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক কর্মচারী, মেট্রোপলিটন পুলিশের এক সদস্য, রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এক নার্স, রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আনসার ক্যাম্পের এক সদস্য, রংপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের দুই কর্মচারী, কুড়িগ্রাম সদর এলাকার এক শিশু, লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের কর্মচারী ও লালমনিরহাট সাপ্টিমারী এলাকার এক যুবকের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

এ নিয়ে রংপুর বিভাগে আক্রান্তের সংখ্যা ৩৫৬ জনে পৌঁছালো। আক্রান্তদের মধ্যে পুলিশ ও চিকিৎসকসহ স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মী বেশি। এরমধ্যে নীলফামারী, দিনাজপুর ও গাইবান্ধায় মারা গেছে চার জন।

Comments

The Daily Star  | English
hostility against female students

The never-ending hostility against female students

What was intended to be a sanctuary for empowerment has morphed into a harrowing ordeal for many female students

17h ago