খেলা শুরু আগে সবার করোনা পরীক্ষা চান মিঠুন

করোনাভাইরাসের কারণে দেশের সব ধরনের খেলা বন্ধ রয়েছে। ক্রিকেট তো বটেই। যদিও এ ভাইরাসের সংক্রামণ দিন দিন বেড়েই চলেছে, তারপরও সীমিত আকারে লকডাউন কমানো হয়েছে বাংলাদেশে। যে কারণে ক্রিকেট মাঠে গড়ানোর দাবি উঠেছে। ইউরোপিয়ান ফুটবলের মতো দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটও দর্শক শূন্য মাঠে আয়োজনের কথা বলছেন অনেকেই। বাংলাদেশ জাতীয় দলের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিঠুন চাইছেন এমনটা। তবে মাঠে ক্রিকেট ফেরার আগে সবার কোভিড-১৯ পরীক্ষা করার দাবি করেছেন এ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান।
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

করোনাভাইরাসের কারণে সব ধরনের খেলা বন্ধ রয়েছে বাংলাদেশে। ক্রিকেট তো বটেই। যদিও এ ভাইরাসের সংক্রামণ দিন দিন বেড়েই চলেছে, তারপরও সীমিত আকারে লকডাউন কমানো হয়েছে দেশে। যে কারণে মাঠে ক্রিকেট গড়ানোর দাবি উঠেছে। ইউরোপিয়ান ফুটবলের মতো দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটও দর্শক শূন্য মাঠে আয়োজনের কথা বলছেন অনেকেই। বাংলাদেশ জাতীয় দলের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিঠুন চাইছেন এমনটা। তবে মাঠে ক্রিকেট ফেরার আগে অবশ্যই সবার কোভিড-১৯ পরীক্ষা করার দাবি করেছেন এ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান।

কদিন আগে ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলিও দর্শক শূন্য মাঠে ক্রিকেট আয়োজনের কথা বলেছেন। এমনকি বিশ্বকাপও এভাবে আয়োজনের পক্ষে তিনি। এছাড়া প্যাট কামিন্স সহ আরও বেশ কিছু অস্ট্রেলিয়ান খেলোয়াড়ও দাবি তুলেছেন। সেখানে বাংলাদেশে ঘরোয়া ক্রিকেট এমনভাবে শুরু হতে পারেই। যদিও এর প্রতিবন্ধকতা রয়েছে অনেক। তবে ক্রিকেটারদের স্বার্থে এবং দেশের ক্রিকেটের স্বার্থে মাঠে ফের ক্রিকেট চাইছেন মিঠুন। আর যদি খেলা শুরু হয় তবে অবশ্যই যেন করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা হয়, সেটাও চেয়েছেন এ ব্যাটসম্যান।

ডেইলি স্টারকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মিঠুন বলেছেন, 'আমি মনে করি, এটা (করোনাভাইরাস পরীক্ষা) করা উচিত। আমি এটাকে শতভাগ সমর্থন করি। কার শরীরে আছে তা তো বলতে পারব না আমরা। আমার নিজের শরীরেও থাকতে পারে। এখন আমি যদি করোনা পজিটিভ হই আর খেলতে গিয়ে দলের সবাই আক্রান্ত হলো, সেটা আমি চাইব না। সংক্রমণ হয়ে থাকলে আমি সুস্থ হয়ে উঠে আবার ফিরে আসব। আমি কখনোই চাইব না যে, আমার একার জন্য গোটা দল ভুক্তভোগী হোক। সবারই করোনাভাইরাস পরীক্ষা হওয়া উচিত।'  

দর্শক শূন্য মাঠে খেলা আয়োজনে ঠিক অভ্যস্ত নয় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। বিষয়টি সম্পূর্ণ নতুনই। তবে করোনাভাইরাসের এ পরিস্থিতিও সম্পূর্ণ নতুন বলে জানালেন মিঠুন। তাই পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে সামনে এগিয়ে যাওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ হবে বলে মনে করেন এ ব্যাটসম্যান, এটা (দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে খেলা) যদি হয়, তবে প্রথমবারের মতো হবে। বিষয়টা একেবারে নতুন হবে। এখন ভাইরাসটাও তো নতুন। এটাও তো আগে আসেনি। তাই দেখতে যেমনই লাগুক না কেন, খেলাটা শুরু হওয়া গুরুত্বপূর্ণ।'

তবে খেলোয়াড়দের স্বাস্থ্যের ব্যাপারটাও সমান গুরুত্ব দিয়েছেন মিঠুন, 'খেলোয়াড়দের সুরক্ষাটা গুরুত্বপূর্ণ। এখন দর্শকভর্তি মাঠের ভেতরে খেললাম, আর এক হাজার লোক আক্রান্ত হলো কিংবা খেলোয়াড়রা আক্রান্ত হলো, তার চেয়ে ফাঁকা মাঠে খেলে সুস্থতা নিশ্চিত করা গুরুত্বপূর্ণ না? দেখতে অদ্ভুত লাগবে। তা ছাড়া, নতুন যে কোনো কিছু একটি অন্যরকমই লাগে।'

তবে সবমিলিয়ে ক্রিকেট আবার মাঠে ফেরার অপেক্ষায় আছেন মিঠুন। কারণ এটাতে অনেকের রুটিরুজিও নির্ভর করে। মিঠুনের ভাষায়, 'দেশের পরিস্থিতি বুঝে, ক্রিকেট খেলার পরিবেশ যখন হবে, যত দ্রুত সম্ভব ঘরোয়া ক্রিকেট যেন চালু হয়। যেখান থেকে শুরু হয়েছে, সেখান থেকেই যেন শুরু হয়। বাংলাদেশের বর্তমান প্রেক্ষাপটে, জাতীয় দলে যারা খেলছে, তাদের ১৫-২০ জনের প্রিমিয়ার লিগ না হলেও সমস্যা হবে না। তারা চলতে পারবে। কিন্তু বাকি ৯০ ভাগ ক্রিকেটার প্রিমিয়ার লিগের উপরই নির্ভর করে থাকে। এখানে আর্থিক বিষয়টা জড়িয়ে আছে। এই খেলোয়াড়দের কথা চিন্তা করেও প্রিমিয়ার লিগ শুরু হওয়া খুব জরুরি বলে আমি মনে করি। তাতে সবাই যেমন ক্রিকেটে ফিরতে পারবে, আবার অর্থনৈতিক সমস্যাটাও দূর হবে।'

পুরো বিষয়টি অবশ্য বিসিবির কোর্টে ঠেলে দিয়েছেন এ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান, 'আমি চাই মাঠে ক্রিকেট ফিরুক। আমি খেলতে চাই। আর তা সুরক্ষা নিশ্চিত করে। ক্রিকেট বোর্ডে অনেক মানুষ আছেন এসব দেখভাল করার জন্য, তারা সবকিছু বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেবেন। কী করলে ভালো হবে, কতটুকু করা সম্ভব-কতটুকু সম্ভব না, সবকিছু হিসাবনিকাশ করে তারা সিদ্ধান্ত নেবেন।'

উল্লেখ্য, দুই রাউন্ড হওয়ার পর গত মার্চে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচ স্থগিত হয়ে আছে। শুরুতে সাময়িকভাবে বন্ধ করা হলেও পরবর্তীতে সরকারী নির্দেশে অনির্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ হয়ে আছে এ লিগ।

Comments

The Daily Star  | English

Int’l bodies fail to deliver when needed: PM

Though there are many international bodies, they often fail to deliver in the time of crisis, said Prime Minister Sheikh Hasina

19m ago