সবচেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জেতার কীর্তি গড়বেন, দাবি জোকোভিচের

৩২ বছর বয়সী জোকোভিচ জানান, দুই প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ফেদেরার ও নাদালকে ছাড়িয়ে যাওয়ার সামর্থ্য তার আছে এবং এ নিয়ে তার মনের মধ্যে কোনো সন্দেহ নেই।
djokovic
ছবি: এএফপি

অবসর নেওয়ার আগে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতবেন ও টানা সবচেয়ে বেশি সপ্তাহ র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থাকবেন, এমন দাবি করেছেন সার্বিয়ার টেনিস তারকা নোভাক জোকোভিচ।

ছেলেদের টেনিসে রেকর্ড ২০টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জেতার কীর্তি সুইজারল্যান্ডের রজার ফেদেরারের দখলে। তার ঠিক পেছনেই আছেন স্পেনের রাফায়েল নাদাল। তিনি জিতেছেন ১৯টি শিরোপা। তিন নম্বরে থাকা জোকোভিচ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জেতার উল্লাস করেছেন ১৭ বার। তাদেরকে একত্রে টেনিসের ‘বিগ থ্রি’ হিসেবে অভিহিত করা হয়।

শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রখ্যাত সাংবাদিক গ্রাহাম বেনসিঙ্গারকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ৩২ বছর বয়সী জোকোভিচ জানান, দুই প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ফেদেরার ও নাদালকে ছাড়িয়ে যাওয়ার সামর্থ্য তার আছে এবং এ নিয়ে তার মনের মধ্যে কোনো সন্দেহ নেই।

টেনিস র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থাকা এই তারকা নিজের ভবিষ্যৎ লক্ষ্য সম্পর্কে বলেন, ‘আমি নিজেকে নিয়ে সবসময় খুব আত্মবিশ্বাসী। আমি বিশ্বাস করি যে, আমি সর্বোচ্চ সংখ্যক গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিততে পারি এবং সবচেয়ে লম্বা সময় ধরে এক নম্বরে থাকার রেকর্ডটি ভেঙে দিতে পারি।’

করোনাভাইরাসের কারণে অন্যান্য সব খেলার মতো টেনিসও বন্ধ হয়ে যাওয়ার আগে অপ্রতিরোধ্য গতিতে ছুটছিলেন জোকোভিচ। রেকর্ড অষ্টম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শিরোপা জেতার পাশাপাশি টানা ২১ ম্যাচে অপরাজিত ছিলেন তিনি।

সর্বাধিক গ্র্যান্ড স্ল্যামের মতো দীর্ঘতম সময় র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থাকার রেকর্ডও ফেদেরারের। সুইস কিংবদন্তি টানা ২৩৭ সপ্তাহ ধরে ছিলেন চূড়ায়। সবমিলিয়ে ৩১০ সপ্তাহ। এই পরিসংখ্যানে জোকোভিচ অনেক পিছিয়ে। তার ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ টানা ১২২ সপ্তাহ। আর সবমিলিয়ে শীর্ষস্থানে থেকেছেন ২৮২ সপ্তাহ।

৩৯ বছর বয়সেও যথেষ্ট দাপটের সঙ্গে খেলা চালিয়ে যাচ্ছেন ফেদেরার। এ নিয়ে জোকোভিচের মন্তব্য, ‘আমি সীমাতে বিশ্বাস করি না। আমি মনে করি, সীমাবদ্ধতা হলো কেবল লোকের আত্মা বা মনের এক ধরনের বিভ্রম।’

Comments