‘দর্শকদের গুরুত্ব না দিলে তারাও গুরুত্ব দেবে না’

আইপিএলের সফলতম দল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের অধিনায়ক রোহিত শর্মার মতে, দর্শকদের ঘিরেই খেলাটা তৈরি, তাদের সর্বাধিক গুরুত্ব না দিলে তারাও মুখ ফিরিয়ে নিতে পারেন।
Rohit Sharma
ফাইল ছবি: এএফপি

আইপিএলের ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর সমর্থক ভিত্তি বেশ শক্তিশালী। তুলনায় বিপিএলের দলগুলোর তেমন কোন সমর্থক ভিত্তিই নেই। তা গড়ে তুলতে কোন প্রয়াসও দেখা যায় না। আইপিএলের সফলতম দল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের অধিনায়ক রোহিত শর্মার মতে, দর্শকদের ঘিরেই খেলাটা তৈরি, তাদের সর্বাধিক গুরুত্ব না দিলে তারাও মুখ ফিরিয়ে নিতে পারেন।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) এর প্রায় প্রতি আসরেই  বদলায় নিয়ম। শীর্ষ ক্রিকেটারদের দেখা যায় কেউ এক বছর এই দলে, তো পরের বছর আরেক দলে খেলছেন। এতে করে দর্শকরা হন বিভ্রান্ত।

মহেন্দ্র সিং ধোনির নাম বলতে যেমন চেন্নাই সুপার কিংস বোঝায়, রোহিত শর্মা বা কাইরন পোলার্ড বলতে যেমন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স, বিরাট কোহলির নাম এলেই আসে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর নাম। বিপিএলে এরকম কোন ভিত নেই।

সমর্থক ভিত তৈরি করতে শীর্ষ কয়েকজন ক্রিকেটারকে একই দলে খেলানোর চিন্তা আগেই নিজের লাইভে বলেছিলেন তামিম ইকবাল। শুক্রবার রাতে  রোহিতের সঙ্গে  অনলাইন আড্ডায়ও আনেন এই প্রসঙ্গ।

রোহিতকে তামিম প্রথমে জিজ্ঞেস করেন বিপিএলের খেলা সরাসরি দেখেছেন কিনা, রোহিত জানান কয়েকবার হাইলাইটস দেখেছেন তিনি, ‘আমি ইউটিউবে হাইলাইটস দেখেছি। এখানে (ভারতে) একটি চ্যানেলে দেখাত, এখন দেখায় কিনা জানি না। তবে ইউটিউবে হাইলাটস দেখেছি।’

এরপরই তামিম আসেন মূল প্রসঙ্গে, ‘একটা খুব ভাল ব্যাপার আছে আইপিএলে, মূল ক্রিকেটারদের ধরে রাখা হয়। বিপিএলে যা হয় না। প্রতি বছরেই বলতে গেলে দল বদলাই আমরা।’

রোহিত জানান একই দলে কয়েকজনের টানা খেলাটা সমর্থক তৈরিতে কতটা দরকার,  ‘একই ফ্র্যাঞ্চাইজি দলে থাকা খুব দরকার। তাহলে একটা সমর্থকগোষ্ঠী তৈরি হয়। বাংলাদেশের মানুষ ক্রিকেট পাগল, সত্যি বলতে এতটা ক্রিকেট পাগল দেশ আমি দেখিনি। মূল কয়েকজনকে একই দলে রেখে রোমাঞ্চ তৈরি করতে পারলে, সমর্থকগোষ্ঠী বাড়বে। দেশের মতই তখন আবেগ নিয়ে ফ্র্যাঞ্চাইজিকে সমর্থন করবে।’

বিস্ফোরক এই ব্যাটসম্যানে মতে দর্শকদের বারবার বিভ্রান্ত করতে থাকলে তারা খেলাটায় আর মজা পাবে না, দর্শকদের দিতে হবে সর্বাধিক গুরুত্ব, ‘আইপিএলে এটা খুব ভালভাবে করা হয়। মূল কয়েকজনকে একই দলে রেখে ফ্যান বেইজ বানানো হয়েছে। সমর্থকদের অনেকে প্রিয় ক্রিকেটারদের জন্যই কোন দল সমর্থন করে। এখন যদি সেই ক্রিকেটার একবার এই দল, পরের বছর আরেক দলে খেলে তাহলে তাদেরও সমর্থন ঠিক থাকা না। তারা বিভ্রান্ত হয়। আমাদের মনে রাখা দরকার, দর্শকরাই খেলার প্রাণ। তাদেরকে আমরা যদি গুরুত্ব না দেই, তারাও আমাদের গুরুত্ব দেবে না।’

Comments

The Daily Star  | English