মাঠে ফিরল বুন্ডেসলিগা, শালকেকে উড়িয়ে দিলো ডর্টমুন্ড

বুন্ডেসলিগা ফেরার প্রথম দিনেই জালের ঠিকানা খুঁজে নিলেন এরলিং ব্রাট হালান্ড।
haaland
ছবি: এএফপি

ভক্তদের ধড়ে যেন প্রাণ এলো। দুই মাসের বেশি সময় স্থগিত থাকার পর চালু হলো বুন্ডেসলিগা। ইউরোপের শীর্ষ লিগগুলোর মধ্যে জার্মানিতেই প্রথম মাঠে গড়াল ফুটবল।

বুন্ডেসলিগা ফেরার প্রথম দিনেই জালের ঠিকানা খুঁজে নিলেন এরলিং ব্রাট হালান্ড। কম গেলেন না তার দুই সতীর্থ রাফায়েল গেরেইরো আর থর্গান হ্যাজার্ডও। তাদের নৈপুণ্যে ঘরের মাঠ সিনিয়াল ইডুনা পার্কে বড় ব্যবধানে জিতল বরুসিয়া ডর্টমুন্ড।

শনিবার ‘রিভারডার্বি’তে শালকে জিরো ফোরের জালে গুণে গুণে চারবার বল পাঠায় স্বাগতিকরা। এতে লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ও শীর্ষে থাকা বায়ার্ন মিউনিখের সঙ্গে ব্যবধান ১ পয়েন্ট নামিয়ে আনল ডর্টমুন্ড।

করোনাভাইরাসের প্রকোপ শুরু হওয়ায় গেল মার্চে স্থগিত করা হয়েছিল বুন্ডেসলিগা। শঙ্কা, উদ্বেগ এখনও কাটেনি। তবে মাঠে উপস্থিত ফুটবলার, কোচ, রেফারি, গণমাধ্যমকর্মী ও অন্যান্যদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করার অঙ্গীকার নিয়ে দর্শকবিহীন মাঠে চালু হলো ফুটবল।

একই সময়ে মাঠে গড়ায় পাঁচটি ম্যাচ। তবে মূল আকর্ষণ ছিল ডর্টমুন্ড ও শালকের ম্যাচ ঘিরে। লম্বা সময় পর খেলা মাঠে ফেরায় ছিল উৎসবেরও আবহ। প্রতিপক্ষকে গোল বন্যায় ভাসিয়ে কাঙ্ক্ষিত সময়টা রাঙালেন হালান্ড-গেরেইরো-হ্যাজার্ডরা।

ম্যাচের ২৯তম মিনিটে এগিয়ে যায় ডর্টমুন্ড। জুলিয়ান ব্রান্ডটের ফ্লিক থেকে বল পেয়ে যান হ্যাজার্ড। ডান দিক থেকে তার বাড়ানো ক্রস খুঁজে পায় ডি-বক্সে থাকা হালান্ডকে। বাঁ পায়ের আলতো টোকায় লক্ষ্যভেদ করতে ভুল করেননি নরওয়ের এই তরুণ স্ট্রাইকার।

বুন্ডেসলিগার চলতি আসরে হালান্ডের গোল হলো ১০টি। গেল জানুয়ারিতে ডর্টমুন্ডে যোগ দেওয়ার পর সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ১৩ বার জালের ঠিকানা খুঁজে নিলেন তিনি।

বিরতির ঠিক আগে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন পর্তুগিজ লেফট ব্যাক গেরেইরো। শালকেকে দিতে হয় গোলরক্ষকের ভুলের মাশুল। জার্মান মিডফিল্ডার ব্রান্ডটের বাড়ানো বল নিয়ে বাম দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে কোণাকুণি শটে গোল করেন গেরেইরো।

দ্বিতীয়ার্ধের তৃতীয় মিনিটে আবারও গোল উদযাপন করে ডর্টমুন্ড। ব্রান্ডটের কাছ থেকে বল পেয়ে ডি-বক্সের বাইরে থেকে ডান পায়ের জোরালো শটে লক্ষ্যভেদ করেন বেলজিয়ান ফরোয়ার্ড হ্যাজার্ড।

৬৩তম মিনিটে স্বাগতিকদের বড় জয় নিশ্চিত করেন গেরেইরো। হালান্ডের সঙ্গে বল দেওয়া নেওয়া করে ডি-বক্সে ঢুকে বা পায়ের বাইরের অংশ দিয়ে টোকা মেরে ম্যাচে নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন তিনি।

এই জয়ে ২৬ ম্যাচ খেলে বুন্ডেসলিগায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা ডর্টমুন্ডের পয়েন্ট বেড়ে হলো ৫৪। এক ম্যাচ কম খেলে ৫৫ পয়েন্ট নিয়ে এক নম্বরে আছেন বায়ার্ন। আটে নেমে যাওয়ার শালকের অর্জন ২৬ ম্যাচে ৩৭ পয়েন্ট।

অন্যান্য ম্যাচে অগসবুর্গকে তাদের মাঠেই ২-১ গোলে হারিয়েছে ভলফসবুর্গ। হফেনহেইম নিজদের মাঠে ৩-০ গোলে হেরেছে হার্থা বার্লিনের কাছে। ডুসেলডর্ফ ও পাডেরবর্নের ম্যাচ শেষ হয়েছে গোলশূন্যভাবে। লাইপজিগকে ১-১ গোলে রুখে দিয়েছে ফ্রেইবুর্গ। লিগের তিন নম্বরে থাকা লাইপজিগের অর্জন ২৬ ম্যাচে ৫১ পয়েন্ট।

Comments

The Daily Star  | English

No respite for Gazans ahead of Eid day

Tensions soar as Hezbollah launch rockets, drones at Israel; US targets Houthi assets

2h ago