পটুয়াখালীতে মাদক চোরাকারবারের অভিযোগে চেয়ারম্যানের ছেলে গ্রেপ্তার

পটুয়াখালীতে মাদক চোরাকারবারের অভিযোগে এক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের ছেলেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা তাকে আটকের পর গলাচিপা থানায় হস্তান্তর করেন।
arrest logo
প্রতীকী ছবি। স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

পটুয়াখালীতে মাদক চোরাকারবারের অভিযোগে এক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের ছেলেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা তাকে আটকের পর গলাচিপা থানায় হস্তান্তর করেন।

আজ সোমবার দুপুর ১টার দিকে গলাচিপা উপজেলা পরিষদের সামনে থেকে মো. হাসান রেজা চৌধুরী (৪৫) ওরফে রাসেল চৌধুরীকে আটক করা হয়।

রাসেল গলাচিপা উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দুলাল চৌধুরীর ছেলে।

রাসেলের বিরুদ্ধে গলাচিপা থানায় শতাধিক মাদক মামলা রয়েছে বলে জানান গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মিনরুল ইসলাম।

রাসেলকে ‘মাদকসেবী’ ও ‘মাদক বিক্রেতা’ হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘সে এলাকায় দীর্ঘ দিন যাবৎ ইয়াবা ক্রয়-বিক্রয় করে আসছিল। তাকে গলাচিপা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।’

এদিকে, বরগুনায় দীর্ঘদিন ধরে কলার ব্যবসার আড়ালে ফেনসিডিল চোরাকারবারের অভিযোগে দুই জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আজ ভোররাতে বরগুনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) শাহজাহান হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল শহরের আমতলা সড়কে অভিযান চালিয়ে দুই জনকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন: বরগুনা কলেজ ব্রাঞ্চ সড়কের সমীর (৩৪) ও ঝিনাইদহ জেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের শামসুল হকের ছেলে সাঈদ (৩৫)।

সে সময় তাদের কাছ থেকে আট বোতল ফেনসিডিল ও নগদ ৩৩ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয় বলে জানায় পুলিশ।

পুলিশের ভাষ্য মতে, কলা ব্যবসার আড়ত দেওয়ার জন্য দুই দিন আগে গ্রেপ্তারকৃতরা আমতলা সড়কের কুদ্দুস মাস্টারের একটি ঘর ভাড়া নেয়। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহজাহান হোসেন ভোররাত ১টার দিকে সেখানে অভিযান চালিয়ে সমীর ও সাঈদকে গ্রেপ্তার করে।

প্রাথমিকভাবে তারা ‘মাদক চোরাকারবারের’ সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার কথা পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে বলেও উল্লেখ করা হয়।

Comments

The Daily Star  | English

Dhaka footpaths, a money-spinner for extortionists

On the footpath next to the General Post Office in the capital, Sohel Howlader sells children’s clothes from a small table.

7h ago