ইমরানের মতো আগ্রাসী অধিনায়ক হতে চান বাবর

পাকিস্তানকে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিংয়ের সেরা তিনের মধ্যে ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যও নির্ধারণ করেছেন তিনি।
babar and imran khan
ছবি: এএফপি (সম্পাদিত)

বিশ্বকাপজয়ী ইমরান খানের মতো আগ্রাসী অধিনায়ক হতে চান বাবর আজম। পাশাপাশি পাকিস্তানকে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিংয়ের সেরা তিনের মধ্যে ফিরিয়ে আনার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছেন তিনি।

সম্প্রতি বাবরের হাতে ওয়ানডে দলের নেতৃত্ব তুলে দিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়কত্ব তিনি করছেন গেল বছরের শেষভাগ থেকে। অর্থাৎ সাদা বলের ক্রিকেটের দুই সংস্করণেই এখন পাকিস্তানের নেতা এই ২৫ বছর বয়সী ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

পাকিস্তানের কিংবদন্তি সাবেক অধিনায়ক ইমরানের সহজাত নেতৃত্বগুণের তুলনা পাওয়া ভার। ১৯৯২ আসরে তার অধিনায়কত্বে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল দলটি। তিনি প্রাধান্য দিতেন আক্রমণাত্মক কৌশলকে। সময়ের অন্যতম সেরা তারকা বাবরও হাঁটতে চান পূর্বসূরির দেখানো পথে। নতুন দায়িত্ব পাওয়ার পর গণমাধ্যমের কাছে তিনি বলেছেন, ‘আমি আগ্রাসী অধিনায়ক হতে চাই। আমি ইমরান খানের কৌশল অবলম্বন করতে চাই।’

বয়সভিত্তিক ক্রিকেট থেকেই নেতৃত্বের সঙ্গে পরিচয় আছে বাবরের। তাই নিজের দায়িত্ব সম্পর্কে বেশ ভালোভাবে অবগত তিনি, ‘আমি অতীতে অনূর্ধ্ব-১৯ দল ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়কত্ব করেছি।... আপনি যখন নেতৃত্ব দিবেন, তখন আপনার মেজাজ কিছুটা ঠাণ্ডা থাকা দরকার। আপনার কাজ হলো দলকে টেনে নিয়ে যাওয়া। প্রতিপক্ষকে হারানোর জন্য সুশৃঙ্খল পরিকল্পনা করা।’

সতীর্থ ক্রিকেটারদের প্রতি আস্থা রাখা ও তাদেরকে উৎসাহ দেওয়ার গুরুত্ব নিয়ে বাবরের মত, ‘মাঠে আপনি হয়তো ভেতরে ভেতরে রাগ অনুভব করতে পারেন, তবে আপনাকে নিয়ন্ত্রণ রাখতে হবে। আমি এটা অনূর্ধ্ব-১৯ দলে থাকতে শিখেছি। মাঠে খেলোয়াড়দেরকে আত্মবিশ্বাস যোগাতে হবে, তাদের প্রতি খুব বেশি আক্রমণাত্মক মেজাজ দেখানো যাবে না। যদি আপনি দলের খেলোয়াড়দের ১১০ ভাগ সমর্থন করেন, তবে তারাও এর প্রতিদান দিবে।’

চলতি মাসের শুরুতে বার্ষিক হালনাগাদের পর আইসিসি র‍্যাঙ্কিংয়ে অবনমন হয়েছে পাকিস্তানের। ওয়ানডেতে ষষ্ঠ ও টি-টোয়েন্টিতে চতুর্থ স্থানে আছে তারা। বাবর এই অবস্থার উন্নতি চান, ‘আমি যখন র‍্যাঙ্কিংয়ের দিকে তাকাই, তখন এটা আমি এটা কিছুতেই মানতে পারি না। আমার কাজ হলো, দলকে শীর্ষ তিনে পৌঁছে দেওয়া। পিসিবি ভেবেছে আমি প্রস্তুত (অধিনায়কত্ব করতে) এবং তারা আমাকে দায়িত্ব দিয়েছে। আমি প্রস্তুত।’

Comments

The Daily Star  | English

Work begins to breathe life into dying Ichamati

The long-awaited project to rejuvenate the Ichamati river began under the supervision of Bangladesh Army, bringing joy to the people of Pabna

20m ago