ওয়াসিমের মুখোমুখি হতে না হওয়ায় ‘ভাগ্যবান’ তামিম

ওপেনার হওয়ায় পেসারদের বিপক্ষে এমনিতে বেশ দাপট নিয়েই খেলেন তামিম ইকবাল। কিন্তু সেই পেসার যদি হন ওয়াসিম আকরাম তবে নাকি মাঠেই নামতে চাইবেন না তিনি! ওয়াসিমের অবসরের প্রায় চার বছর পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখা তামিম জানান ওয়াসিমকে সামলাতে না হওয়ায় একদিক থেকে তিনি বেশ ভাগ্যবান।

ওপেনার হওয়ায় পেসারদের বিপক্ষে এমনিতে বেশ দাপট নিয়েই খেলেন তামিম ইকবাল। কিন্তু সেই পেসার যদি হন ওয়াসিম আকরাম তবে নাকি মাঠেই নামতে চাইবেন না তিনি! ওয়াসিমের অবসরের প্রায় চার বছর পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখা তামিম জানান ওয়াসিমকে সামলাতে না হওয়ায়  একদিক থেকে তিনি বেশ ভাগ্যবান। 

মঙ্গলবার রাতে তামিমের আহবানে অনলাইনে আড্ডা দিতে এসেছিলেন আকরাম খান, মিনহাজুল আবেদিন নান্নু আর খালেদ মাসুদ পাইলট। পরে এক পর্যায়ে সেখানে যোগ দেন পাকিস্তানি কিংবদন্তি পেসার ওয়াসিম। 

আলাপ চলে ওয়াসিমের ঢাকা লিগ খেলতে আসা থেকে এশিয়া কাপ, ১৯৯৯ বিশ্বকাপ নিয়েও। তরুণ পেসারদের নিয়ে ওয়াসিমের কাছে টিপসও জানতে চান তামিম। একবারে শেষ দিকে  ওয়াসিম বলেন তার এই আড্ডায় যোগ দেওয়ার কারণ,  ‘আমাকে বলার পরই রাজি হয়ে যাই। কারণ পুরনো এসব বন্ধুদের সঙ্গে খানিকক্ষণ কাটানো আনন্দের। আমি জানি  এখনকার তরুণরা আমাকে খেলতে দেখেনি। তবে ইউটিউবকে ধন্যবাদ, যার সুবাদে তারা আমাকে দেখতে পাচ্ছে।’

তামিম তখন কথার মাঝে বলেন, ‘আমি খুবই ভাগ্যবান ওয়াসিম ভাই, আমি আপনার মুখোমুখি হতে চাই না। আমি কোনভাবেই চাই না। আপনি যে এখন খেলেন না, তাতে আমরা (ব্যাটসম্যানরা) সবাই খুব ভাগ্যবান (হাসি)।’

তবে ওয়াসিম জানান বাঁহাতি হওয়ার কারণে সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবালের সঙ্গে লড়াইটা খুব জমত তার,  ‘এটা খুব ভালো লড়াই হতো। বিশেষ করে তোমার আর সাকিবের সঙ্গে। বাঁহাতি হিসেবে বেশ ভাল লড়াই জমত।’

তামিম তখন আবার বলেন, ‘আমি বাড়িতে খুব স্বস্তিতে থাকতে চাই। আপনাকে কোনভাবেই মোকাবেলা করার ইচ্ছে নেই (হাসি)।’

২০০৩ সালে শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেন সর্বকালের অন্যতম সেরা বাঁহাতি ওয়াসিম। আর ২০০৭ সাল থেকে আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শুরু হয় তামিমের।

Comments

The Daily Star  | English

Death came draped in smoke

Around 11:30pm, there were murmurs of one death. By then, the fire had been burning for over an hour.

10h ago